ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

কালো টুপি পরা ‘নীলরাজা’

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬২৬ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৮
কালো টুপি পরা ‘নীলরাজা’ মাথায় কালো টুপি ছাপ ‘নীলরাজা’। ছবি- সংগৃহীত

মৌলভীবাজার: শরীরে তার নীলের ছড়াছড়ি। দূর থেকে ছোট্ট এই পাখিটি দেখা যায় না। প্রকৃতির সবুজের সঙ্গে মিশে যায়। নীল-সবুজের মাখামাখি হয়ে থাকে তখন। এ দারুণ সুন্দর পাখিটির অবস্থান সারা দেশব্যাপী। 

এই ‘নীলরাজা’ পাখিটির অপর বাংলা নাম ‘কালাঘাড় রাজন’। এর ইংরেজি নাম Black-naped Monarch এবং বৈজ্ঞানিক নাম Hypothymis azurea।

এর উচ্চতা ১৬ সেন্টিমিটার। আকারে আমাদের চড়ুইয়ের মতো।  

প্রখ্যাত পাখি বিষয়ক গবেষক ও লেখক শরীফ খান বাংলানিউজকে জানান, ডাইভ দিয়ে নেমে বা উপরের দিকে উঠে ‘চট’ শব্দে পোকামাড়ক ঠোঁটের ফাঁকে চেপে ধরে। এদের প্রধান খাদ্য উড়ন্ত পোকামাকড়।  

লেজের প্রসঙ্গে টেনে শরীফ বলেন, এই পাখির লেজটা বেশ চওড়া। কোনো কারণে উত্তেজিত হয়ে পড়লে কিছুটা মেলে ধরে নাচায়-দোলায়। এজন্য এই পাখিটিকে নেজনাচুনেও বলা হয়।

নীলরাজার শারীরিক গঠন সম্পর্কে শরীফ খান বলেন, বুক, পিঠ, মাথা, ঘাড়, কপাল ও গাল নীল। মনে হয় যেন এই মাত্র নীল রঙ মেখেছে। মালার মতো চমৎকার একটি কালো রঙের ছাপ রয়েছে গলায়। মাথার পেছন দিকেও জর্জেট-কালো রঙের একটি টিপ রয়েছে। কেউ কেউ এ পাখিটিকে কালো টুপিও বলে।  
 
এদের প্রজনন মৌসুম বর্ষাকাল। সরু-শুকনো লতা, ঘাস, গাছের সরু আশ, কলাগাছের শুকনো সুতো-আঁশ ও মাকড়সার জাল দিয়ে চায়ের মতো বাসা তৈরি করে ৩ থেকে ৪টি ডিম দেয় এবং বারো থেকে পনের দিনের মতো ছানা ফুটে বলে জানান শরীফ খান।  

বাংলাদেশ সময়: ১২২০ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৮
বিবিবি/আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।