ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

প্রাণীজগতের অবিশ্বাস্য ৫ বুদ্ধিমান

পরিবেশ-জীববৈচিত্র্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৬ ঘণ্টা, আগস্ট ৫, ২০১৩
প্রাণীজগতের অবিশ্বাস্য ৫ বুদ্ধিমান

ঢাকা: সব প্রাণীর বুদ্ধি কিন্তু একরকম নয়। কাক, অক্টোপাস অন্যদের থেকে অনেক এগিয়ে।

কেউ কেউকে শিয়ালকে পণ্ডিত মনে করলেও হাতি কিংবা শূকরছানা কিন্তু কম যায় না। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক প্রাণীজগতের প্রখর বুদ্ধিসম্পন্ন পাঁচ প্রাণীর কথা।

Octopusঅক্টোপাস
প্রাণীদের মধ্যে অক্টোপাস সবচেয়ে বুদ্ধিমান ও স্মার্ট। তারা ক্ষণস্থায়ী ও দীর্ঘস্থায়ী দু’ধরনের স্মৃতি ধারণ করে রাখতে পারে এরা। এমনকি তারা জলের ভেতর গোলকধাঁধা থেকেও বের হয়ে আসতে পারে অ্যাকুরিয়াম থেকে বের হওয়ার মতো করে।

অক্টোপাস অনেক সময় দুষ্টুমি করে জেলেদের নৌকা আটকে দেয়। এমনকি তারা কাঁকড়ার খোলস ছাড়িয়ে তাদের মাংস খেয়ে উদরপূর্তি করতে পারে। জার খোলার ব্যবস্থাও এ প্রাণীর জানা আছে।

হাতি
চার হাজার বছর আগে থেকে মানুষ হিসেবে হাতিকে বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। মানুষ তাদের শক্তি ও বুদ্ধি ব্যবহার করেছে উৎপাদনমুখী কাজে এবং যুদ্ধে। আর বিনোদন-প্রাণী হিসেবে হাতির খ্যাতি তো আছেই। ইদানীং অনেক হাতিকে আঁকার প্রশিক্ষণ দিয়েও সফল হয়েছেন অনেকে। পরিতাপের বিষয়, সারা বিশ্বে বুনো হাতি নিধনের যে হার দেখা যায় তাতে আফ্রিকান হাতি ১৫ বছরের মধ্যে বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

কাক
পাখিদের মধ্যে বুদ্ধিমান পাখি হিসেবে কাকের খ্যাতির কথা সবার জানা। কাক চতুর প্রাণী শিম্পাঞ্জি ও গরিলার মতো নিজের সমস্যা নিজেই সমাধান করতে পারে। কাকের আইকিউ স্তন্যপায়ী প্রাণী যেমন মানুষ, বানর, বনমানুষ ইত্যাদির কাছাকাছি। তাদের আচরণের সাথেও বেশ মিল। এরা খাদ্য পাওয়ার জন্য বিভিন্ন উপাদান বা যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে পারে।

ছোটবেলায় গল্পে পড়া কলস থেকে কাকের পানি খাওয়ার কথা সবার মনে আছে নিশ্চয়ই। কাকের সত্যি সত্যি এরকম বুদ্ধি আছে। কাক ভবিষ্যৎ ঘটনা সম্পর্কে ধারণা করতে পারে, বিশেষ করে তাদের নিজের সমস্যা সমাধানের জন্য। স্মৃতিশক্তিও খুব ভালো। কাক যে কোনো মুখ চিনে রাখতে পারে।

শূকরছানা
কুকুর আর শূকরের ঝগড়ায় সবসময় যে শূকর পরাজিত বা হেনস্থা হয় তা আমাদের সবার মনে আছে। কিন্তু এ দুই প্রাণীর মধ্যে শূকর বেশি স্মার্ট। কারণ এটি শব্দ এবং শব্দগুচ্ছ মনে রাখতে পারে। এমন কি এক বছর আগে শোনা শব্দও মনে রাখতে পারে অনায়াসে।

chimpanzeeশূকরছানাকে যখন তার মা শিক্ষা দেয় তখন তারা একজনের ভুল দেখে আরেকজন শিক্ষা নেয়। আশ্চর্যের বিষয়, তিন বছরের শিশুর জন্য যে ভিডিও গেম জটিল, সে গেম শূকরছানারা খেলতে পারে।

শিম্পাঞ্জি
জিনরহস্য আবিষ্কারের আগে ধারণা করা হতো, প্রাণীসাম্রাজ্যে কেবল মানুষ খাবারের জন্য যন্ত্রপাতি ব্যাবহার করতে পারে। কিন্তু এখন জানা যাচ্ছে, শিম্পাঞ্জি এ কাজটি বেশ ভালোভাবে পারে। তারা লাঠি দিয়ে গর্ত খুঁড়ে সুস্বাদু উইপোকা খুঁজে বের করতে পারে। পারে মাছ শিকার করতে। এছাড়া অন্যান্য শিকারেও তারা বেশ পারদর্শী।

শিম্পাঞ্জিরা একটি উচ্চমানের সমাজে বাস করে। তারা সুন্দর সূর্যাস্ত উপভোগ করতে পারে। একজন সঙ্গী মারা গেলে শোক এবং ভালোবাসা প্রকাশ করে। মানুষের মতো তারা ভাষা শিখতে না পারলেও সহজেই ভাবের আদান-প্রদান করতে পারে এরা।

সূত্র: রিডার্স ডাইজেস্ট

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, আগস্ট ০৫, ২০১৩
সম্পাদন‍া: আসিফ আজিজ, নিউজরুম এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa