ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

বাংলাদেশে ফিরেছে হেলেন

আগরতলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৫ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০১২
বাংলাদেশে ফিরেছে হেলেন

আগরতলা (ত্রিপুরা) :  প্রায় এক মাস পর হেলেন ফিরেছে বাংলাদেশ। গত মাসের ১৩ তারিখ রাতে প্রায় সবার নজর এড়িয়ে সীমানা পেরিয়ে হেলেন বালা সুন্দরী ঢুকে পড়েছিল ভারতের আগরতলায়।

 

শনিবার সকালে সে ফিরে গেল তার পুরানো বন্ধু নয়নতারা, মৌসুমি, এবং রাজবাহাদুরের কাছে।
হেলেন বা হেলেন বালা সুন্দরী আর কেউ নয়, একটি হাতির নাম।

গত মাসে পয়লা বৈশাখের আগের রাতে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া  থেকে পালিয়ে আখাউড়া সীমান্ত দিয়ে এই হাতিটি চলে আসে আগরতলায়। এরপর হেলেন কে নিয়ে অনেক কাণ্ড ঘটে গেছে। শনিবার সকালে সেই আখাউড়া দিয়েই হেলেনকে পাঠানো হল বাংলাদেশে।

বাংলাদেশ সার্কাস পার্টির হাতি হেলেনের ত্রিপুরায় চলে আসা নিয়ে গলদঘর্ম হয় প্রশাসন।

বাংলাদেশের দ্য নিউ স্টার সার্কাসের হাতি এটি। হাতির মালিক আব্দুল সামাদ জানিয়েছেন, পয়লা বৈশাখের মিছিলে অংশগ্রহণ করানোর জন্য হাতিটিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সেখান থেকে পালিয়ে যায় সে।
তারপর অনেক রাতের দিকে সেটি আখেউড়া চেক পোস্ট দিয়ে ঢুকে পড়ে আগরতলায়।

সীমান্তে পাহাড়ারত বিএসএফ জওয়ানরা হাতিটিকে তাড়া করে। তাড়া খেয়ে হাতিটি শহরের ভেতর ঢুকে পড়ে। খবর দেয়া হয় পুলিশে। পুলিস কর্মীরাও হাতিটিকে কাবু করার চেষ্টা করে। উল্টো বাঁধনছাড়া এই প্রাণীটি আক্রমণাত্মক হয়ে  ওঠে। এতে পুলিস এবং বিএসএফ জওয়ানরা পিছিয়ে যায়।

খবর দেয়া হয় বন কর্মীদের। বনকর্মীরা আসার আগেই এটি শহর ছারিয়ে বিশ্রামগঞ্জ চলে যায়। রোবার দুপুরে বন কর্মীরা সে এলাকায় এলে হাতির দেখা পান। তারা হাতিটিকে আটকানোর চেষ্টা করে।

পরের সন্ধ্যায় ঝড়-বৃষ্টির মধ্যে হাতিটি উদয়পুর হয়ে আঠারভলার জঙ্গলে ঢুকে পড়ে।
 
বন দপ্তরের আধিকারিক সুশীল দেববর্মা জানান, আঠারভলার জঙ্গল হয়ে গান্ধারীর জঙ্গলে ঢুকে যায় হাতিটি। প্রায় সাত দিন পর হাতিটিকে নিয়ে আসা হয়েছিল রাজ্যের অভয়ারণ্য সিপাহীজলায়। বহু কষ্টে হাতিটিকে আটক করা হয়েছিল।

হাতিটি ছিল পোষা হাতি। যে জঙ্গলে গিয়ে হাতিটি ঢুকে যায় সেটি রাজ্যের হাতি অভয়ারণ্য। নাম গান্ধারী। ফলে বনকর্মীদের ভয় ছিল জংলী হাতিরা না হেলেনকে মেরে ফেলে। কারণ হেলেন সন্তান সম্ভবা। যার কারণে বহু কষ্ট করে সেই জঙ্গল থেকে হেলেনকে বের করে নিয়ে আসেন বনকর্মীরা।

এতদিন হেলেন ছিল সিপাহীজলাতেই। সেখানে তার চিকিৎসাসহ যাবতীয় সব কিছু হয়েছে।

আখাঊড়া সীমান্তে উপস্থিত হাতির মালিক জানান, তার হেলেন রয়েছে আগের মতোই। তার কাছে আরও তিনটি হাতি রয়েছে। তাদের নাম নয়নতারা, মৌসুমি, এবং রাজবাহাদুর।

এত ক’দিন আগরতলায় হেলেনকে দেখাশুনা করেছে আবুল হারেস এবং কৃষ্ণ শীল। আবুল হারেস জানিয়েছেন, গত এক মাসে হাতিটির ওপর একটা মায়া পরে গেছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশে হাতিটির আগের মালিক ছিলেন আব্দুই মিঞা। গত দশ মাস আগে হাতিটিকে তিনি বিক্রি করে দেন ওই সার্কাস দলের কাছে।

বাংলাদেশ সময় : ১৭৫৬ ঘণ্টা, ১৯ মে, ২০১২
সম্পাদরনা : আহ্সান কবীর, আউটপুট এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa