ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ কার্তিক ১৪২৭, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

বিনোদন

‘হৃদিতা’ সিনেমার অনুদান বাতিল করতে আইনি নোটিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০
‘হৃদিতা’ সিনেমার অনুদান বাতিল করতে আইনি নোটিশ 'হৃদিতা' সিনেমার নায়ক এবিএম সুমন ও নায়িকা পূজা চেরি

সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত 'হৃদিতা' সিনেমার কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ দেওয়া হয়েছে। সিনেমাটির নির্মাতাদের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ এনে চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাদুকাঠি মিডিয়ার কর্ণধার মো. মিজানুর রহমান এই নোটিশ পাঠিয়েছেন।

'হৃদিতা'র সরকারি অনুদান বাতিল করে এর সকল কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে তথ্য সচিব এবং সিনেমাটির প্রযোজকসহ ৯ জনকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে। জাদুকাঠি মিডিয়ার কর্ণধার মো. মিজানুর রহমানের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আফতাব উদ্দিন ছিদ্দিকী এই নোটিশ পাঠিয়েছেন। নোটিশে অন্যান্যদের মধ্যে চলচ্চিত্র অনুদান কমিটির সভাপতি তথ্যমন্ত্রী, সহ-সভাপতি তথ্য-প্রতিমন্ত্রী, এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক, অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমার ‘হৃদিতা’র পরিচালক-প্রযোজক এম. এন. ইস্পাহানী ও পরিচালক আরিফ জাহানকে পক্ষভুক্ত করা হয়।

জানা যায়, ২৪ সেপ্টেম্বর রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এবং ২৭ সেপ্টেম্বর ই-মেইলে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। অনিয়ম এবং অনুদানের শর্ত ও নীতিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অনুদান বাতিল ও শুটিংসহ যাবতীয় কার্যক্রম স্থগিত চাওয়া হয়েছে।  

নোটিশে অভিযোগ করে বলা হয়, ‘হৃদিতা’ আনিসুল হকের লেখা প্রকাশিত একটি উপন্যাস। লেখক ২০১৯ সালের ২৮ এপ্রিল, ৫০ হাজার টাকা সম্মানীতে প্রযোজক মিজানুর রহমানকে এটি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য অনুমতি দেন।  

তিনি নোটিশে দাবি করেন, ‘হৃদিতা’ গল্পে তার প্রযোজনায় একটি সিনেমা নির্মাণাধীন, যেটির নাম 'ড্রিম গার্ল'। সিনেমাটির জন্য তিনি অর্থ ব্যয় করেছেন এবং ইস্পাহানী ও আরিফ জাহানকে পরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেন; পাশাপাশি নায়ক-নায়িকাকেও চুক্তিবদ্ধ করান। তবে করোনার কারণে সিনেমাটি আটকে ছিল। এরই মধ্যে ২০১৯-২০ অর্থবছরে ‘হৃদিতা’ চলচ্চিত্রের জন্য এম. এন. ইস্পাহানী প্রযোজক হিসেবে অনুদান পেয়েছেন। কিন্তু ওই প্রজ্ঞাপনের বছরখানেক আগেই মিজানুর এককভাবে ‘হৃদিতা’ নিয়ে সিনেমা নির্মাণ শুরু করেন।

নীতিমালা অনুযায়ী নির্মাণাধীন সিনেমার চিত্রনাট্য অনুদান পাওয়ার সুযোগ নেই। সে ক্ষেত্রে অনুদানপ্রাপ্ত ‘হৃদিতা’ সিনেমা পরিচালক-প্রযোজক প্রতারণা ও অনিয়মের আশ্রয় নিয়েছেন বলেও দাবি করা হয়।

এদিকে নোটিশের প্রাপ্তি স্বীকার করে বিষয়টি বাংলানিউজকে নিশ্চিত করেছেন এম. এন. ইস্পাহানী। তিনি বলেন, রোববার (২৮ সেপ্টেম্বর) আমি নোটিশটি হাতে পেয়েছি। এখানে আমাদের কোনো জবাব দিতে বলা হয়নি, সিনেমার কার্যক্রম স্থগিত করতে বলা হয়েছে।  

তিনি আরও বলেন, নোটিশে যে অভিযোগগুলো করা হয়েছে সেগুলোর সঠিক জবাব আমাদের কাছে রয়েছে। আর 'হৃদিতা'র গল্প আমরা আনিসুল হকের কাছ থেকে জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে চুক্তি করে নিয়েছি। আর তিনি তার গল্প একাধিক জনকে দিতে পারেন এবং এর আগেও এই গল্পে একটি নাটকেরও অনুমতি তিনি দিয়েছেন। বিষয়টি আমরা যথাযথ নিয়মঅনুযায়ী সমাধান করতে পারবো বলে আশা করছি।

এদিকে সরকারি অনুদানের 'হৃদিতা' সিনেমায় প্রথমবার জুটি বেঁধে অভিনয় করতে যাচ্ছেন আলোচিত চিত্রনায়ক এবিএম সুমন ও চিত্রনায়িকা পূজা চেরি। গত ২৩ জুলাই তারা সিনেমাটির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০
জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa