ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ সফর ১৪৪২

বিনোদন

রিয়ার আপত্তি বিহার পুলিশে, সিবিআইয়ে নয়

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১১ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২০
রিয়ার আপত্তি বিহার পুলিশে, সিবিআইয়ে নয় রিয়া চক্রবর্তী

সুশান্ত সিং রাজপুত মামলার মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী। এ মামলার তদন্তভার সিবিআই’র হাতে দিলে কোনো আপত্তি নেই বলে জানালেন অভিনেতার কথিত বান্ধবী।

কিন্তু বিহার পুলিশের এই মামলার তদন্ত করার কোনো আইনগত অধিকার নেই- এমন দাবি অভিনেত্রীর।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) রিয়ার পিটিশনের শুনানির দীর্ঘ জেরা শেষে এই মামলার সিবিআই তদন্ত এবং বিহার পুলিশের আইনগত অধিকার নিয়ে কোনওরকম রায় দেয়নি সর্বোচ্চ আদালত। রায় সংরক্ষিত রেখে সেদিন সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার সঙ্গে জড়িত সকল পক্ষকে বৃহস্পতিবারের (১৩ আগস্ট) মধ্যে লিখিত জবাব জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল।

সুশান্ত ও রিয়াসেদিন কোর্টরুমে শুনানি চলাকালীনই রিয়ার আইনজীবীকে নিজের পর্যবেক্ষন থেকে আদালত প্রশ্ন করেছিল, এই মামলার তদন্ত সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার আবেদন রিয়া চক্রবর্তী নিজেই করেছিল, তাহলে আপত্তি কোথায়? 

এদিন রিয়া জানান, তার কোনও আপত্তি নেই যদি সুপ্রিম কোর্ট ভারতীয় সংবিধানের ১৪২তম ধারা অনুযায়ী নিজের বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করে এই মামলার তদন্ত সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয়। কিন্তু বিহার পুলিশের এফআইআরের ভিত্তিতে যে মামলা সিবিআইয়ের হাতে রয়েছে, তা নিয়ে আপত্তি রয়েছে তার। কারণ, সেটি বিহার পুলিশের আইনগত অধিকারের বাইরে এবং আইন বিরোধীও বটে।

এই মামলার তদন্তভার অবিলম্বে পাটনা থেকে মুম্বাইয়ে স্থানান্তরিত করতে চেয়ে পিটিশন দায়ের করেছিলেন রিয়া। যদিও এই মামলার প্রথম শুনানির আগেই পাটনা পুলিশ এই মামলার তদন্ত তুলে দেয় সিবিআইয়ের হাতে। গত ৫ অাগস্ট কেন্দ্র থেকে সেই আবেদনে মঞ্জুরি দেওয়া হয় এবং এদিন রাতেই বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হাতে এই মৃত্যুর তদন্তভার দেওয়া হয়।

গত ১৪ জুন সুশান্তের বান্দ্রার অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার হয় অভিনেতার মরদেহ। যদিও মৃত্যুর ৫৯ দিন পরেও মুম্বাই পুলিশ এই মামলায় কোনও এফআইআর দায়ের করেনি। সুশান্তের ময়না তদন্তের চূড়ান্ত রিপোর্ট বলছে ‘ফাঁসিতে ঝুলে শ্বাসরোধ হয়ে অভিনেত্রার মৃত্যু হয়েছে।  

সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনে রিয়া ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে গত ২৫ জুলাই পাটনার রাজীব নগর থানায় এফআইআর দায়ের করেন অভিনেতার বাবা কেকে সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০- ধারায় অভিযোগ দায়ের হয়।

রিয়া আদালতে জানিয়েছেন, ৮ জুন পর্যন্ত গত এক বছর ধরে সুশান্তের সঙ্গে  লিভ ইন রিলেশনশিপে ছিলেন। ৮ জুন নিজের বাড়িতে শিফট করেন তিনি। যে কারণে সুশান্তের মৃত্যুর পর সব সন্দেহের তীর রিয়াকে ঘিরেই। তদন্ত চলছে আর সময়ই বলে দেবে দোষ-নির্দোষের যাবতীয় গল্প। তবে সেটা কতদিন, এটাই এখন দেখার অপেক্ষায়…!

বাংলাদেশ সময়: ২১১১ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২০
ওএফবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa