bangla news

প্রথমবারের মতো এক গানে কণ্ঠ দিলেন হাদী ও আসিফ

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-১৭ ৭:৩৮:১৫ পিএম
সৈয়দ আব্দুল হাদী-আসিফ আকবর

সৈয়দ আব্দুল হাদী-আসিফ আকবর

জীবন্ত কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদীকে বরাবরই আইডল মানেন বাংলা গানের যুবরাজ আসিফ আকবর। সৈয়দ আব্দুল হাদীও আসিফ আকবরকে অত্যধিক স্নেহ করেন।  

দেশবরেণ্য শিল্পী হাদী তার গাওয়া যে কোনও গান গাইবার আগাম অনুমতি দিয়ে রেখেছেন আসিফ আকবরকে। এমন নজির বাংলা সংগীতের ইতিহাসে বিরল। এ থেকেই অনুমান করা যায়, তাদের মধ্যকার সম্পর্কের গভীরতা।

তবে এসব পুরনো ভালোবাসার চিত্র ছাপিয়ে একেবারে নতুন আয়োজন নিয়ে হাজির হচ্ছেন দুই প্রজন্মের অন্যতম এই দুই শিল্পী।

হ্যাঁ, প্রথমবারের মতো দুজনে কণ্ঠ দিলেন এক গানে। শিরোনাম ‘বাবা ছেলের টান’। গানে গানে তারা বলবেন বাবা ও ছেলের মধ্যকার সম্পর্ক, প্রেম-ভালোবাসা, আবেগ আর দায়িত্ববোধের কথা। যেখানে বাবার কথাগুলো গেয়েছেন সৈয়দ আবদুল হাদী, আর ছেলের কথাগুলো আসিফ আকবরের কণ্ঠে। বাবা দিবস উপলক্ষে গানটি প্রকাশ করছে ‘ধ্রুব  মিউজিক স্টেশন’ (ডিএমএস)।  সুহৃদ সুফিয়ানের কথায় গানটির সুর করেছেন কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত পরিচালক কিশোর দাশ। সংগীতায়োজন করেছেন সুমন কল্যাণ ও কিশোর দাস 

এ প্রসঙ্গে সৈয়দ আব্দুল হাদী বলেন, ‘আসিফের বলিষ্ঠ গায়কী আমাকে মুগ্ধ করে। আমাদের সময় যারা গান শুরু করি, তাদের প্রধান সম্পদ ছিল নিজের কণ্ঠ। আসিফের এই সম্পদ আছে। সে তার কণ্ঠ দিয়েই সংগীতাঙ্গন মাতিয়ে রেখেছে। তার গান শুনতে আমারও ভালো লাগে। আসিফ আমাকে বড় ভাই বলেই সম্বোধন করে, শ্রদ্ধা করে। দুই ভাই মিলে কণ্ঠ দিলাম একটি ভিন্ন ধারার গানে। আশা করি, আমাদের শ্রোতারা সাদরেই গ্রহণ করবেন এ গান।

সৈয়দ আব্দুল হাদীর সঙ্গে গানে কণ্ঠ দিয়ে উচ্ছ্বসিত আসিফ আকবর। তিনি বলেন, ‘প্রতিটা মানুষের মনেই স্বপ্ন থাকে। সেই স্বপ্ন কখনো পূরণ হয়, কখনো হয় না। ছোটবেলা থেকেই হাদী ভাইয়ের বলিষ্ঠ মায়াবী কণ্ঠের ভক্ত আমি, তার সঙ্গে গান গাইবার সুযোগ হয়েছে মানে আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। গানটি সবার হৃদয় স্পর্শ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।’
  
আগামী শনিবার (২০ জুন) ধ্রুব মিউজিক স্টেশন (ডিএমএস) এর ইউটিউব চ্যানেলে অবমুক্ত করা হবে ‘বাবা ছেলের টান’। পাশাপাশি গানটি শুনতে পাওয়া যাবে জিপি মিউজিক, বাংলালিংক ভাইব, রবি স্প্ল্যাশ,ও স্বাধীন মিউজিক অ্যাপ এ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৮ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২০
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংগীত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-06-17 19:38:15