bangla news

অদিতি আমার খুব ভালো সঙ্গী ছিল: অপূর্ব

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৫-১৮ ২:৫৮:৩৮ এএম
অপূর্ব ও অদিতি

অপূর্ব ও অদিতি

বিয়ের ৯ বছর পর ভেঙে গেলো অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব এবং নাজিয়া হাসান অদিতির সংসার। সোমবার (১৭ মে) ফেসবুকের মাধ্যমে খবরটি সবাইকে জানিয়েছেন উভয়ই।

এদিকে বিচ্ছেদের নির্দিষ্ট কোনো কারণ না বললেও একে অপরের প্রশংসা করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছেন অপূর্ব-অদিতি। 

প্রথমে অদিতি এবং পরে বিচ্ছেদ নিয়ে লেখেন অপূর্ব। অপূর্বর সুখী জীবন কামনা করেছেন অদিতি। আর সাবেক স্ত্রীকে ভালো সঙ্গী সম্বোধন করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন অপূর্ব। এছাড়া দুজন একসঙ্গে একমাত্র ছেলেকে লালনপালন করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বিচ্ছেদ নিয়ে অপূর্বের লেখাটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল:-

ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আমি সবাইকে জানাচ্ছি, নাজিয়া হাসানের সঙ্গে আমার ৯ বছরের চমৎকার যাত্রাটি একটি অপ্রত্যাশিত মোড় নিয়েছে। যার কারণে আমি কিংকর্তব্যবিমূঢ়! যদিও এটা আমরা নিজেদের জন্য চাইনি, কিন্তু দুঃখের বিষয় জীবন আজ আমাদের এখানেই নিয়ে এসেছে।

যত বছর আমরা একসঙ্গে ছিলাম, সে সবসময় আমার খুব ভালো সঙ্গী ছিল এবং সত্যিকারের একজন শুভাকাঙ্ক্ষীও। সে আমার অনেক সফলতার মূল চাবিকাঠি। সে অসাধারণ একজন মানুষ, আত্মবিশ্বাসী উদ্যোক্তা এবং সর্বোপরি ভালো মনের একজন মানুষ।

আমি ক্যারিয়ারে অনেককিছু অর্জন করেছি, কিন্তু আমার সবচেয়ে বড় অর্জন আমার ছেলে আয়াশ। পিতৃত্বের এই অসাধারণ উপহারের জন্য আমি নাজিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেষ করতে পারবো না। সে আমার সন্তানের অনুকরণীয় মা। আমাদের ছেলের লালন পালনের জন্য সঙ্গী হিসেবে একসঙ্গে আমাদের যাত্রা সর্বদা অব্যাহত থাকবে।

আমি জানি, বিয়ের সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর অনেক প্রশ্ন সৃষ্টি হয়। তবে আমি আমার বন্ধুবান্ধব, আমার সহকর্মীদের এবং আমার লক্ষ লক্ষ ভক্তদের অনুরোধ করছি, দয়া করে হৃদয় দিয়ে আমাদের বিষয়টা চিন্তা করুন। এটাই আমাদের পক্ষে সবচেয়ে ভালো সিদ্ধান্ত হয়েছে। সিদ্ধান্তটিতে আমাদের উভয়ের পরিবার সহায়ক ছিল। আমি এবং নাজিয়া এই কঠিন সময় যাতে পার করতে পারি, সেজন্য আপনাদের সমর্থন একান্ত কাম্য। 

সবশেষে অপূর্ব সাবেক স্ত্রী, ছেলে ও নিজের জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। 

বাংলাদেশ সময়: ০০০০ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২০
জেআইএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   টেলিভিশন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-05-18 02:58:38