bangla news

বাংলা ভাষার দুরবস্থা নিয়ে নকশীকাঁথার গান

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২১ ৪:০৮:৫০ পিএম
ব্যান্ডদল নকশীকাঁথা

ব্যান্ডদল নকশীকাঁথা

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলা ভাষার দুরবস্থা নিয়ে প্রকাশ পেলো ব্যান্ডদল নকশীকাঁথা’র গান-ভিডিও। শিরোনাম ‘ভাষার ভাষার দুর্গতি’।

গত বছর গানটি তৈরি করে নকশীকাঁথা। এরপর দেশের বিভিন্ন মঞ্চে গানটি গেয়ে আসছে তারা। এবার আনলেন প্রকাশ্যে। 

এ গান প্রকাশের ব্যাপারে নকশীকাঁথা ব্যান্ডের ভোকাল সাজেদ ফাতেমী বলেন, বাংলা ভাষার বিরোধিদের নিয়ে মধ্যযুগের কবি আব্দুল হাকিম এক অনন্য বার্তা দিয়ে গেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘যে সবে বঙ্গেতে জন্মে হিংসে বঙ্গবানী/সেসব কাহার জন্ম নির্ণয় ন জানি/দেশি ভাষা বিদ্যা যার মন না জুয়ায়/নিজ দেশ ত্যাগী কেন বিদেশে ন যায়’- মাতৃভাষার মর্যাদার লড়াইয়ে কবির এই চারটি চরণ আজও বাঙালিকে শক্তি যোগায়। আর সেই শক্তিই আমাদের এই গান তৈরির মূল অনুপ্রেরণা।

তিনি আরও বলেন, এখন আমরা নিজেরাই প্রতিনিয়ত বাংলা ভাষার ক্ষতিসাধন করছি। অন্য ভাষার কথা বাদই দিলাম। শুধু বাংলা ভাষার কথাই বলছি। বাংলা আমাদের মায়ের মুখের ভাষা। অথচ এই ভাষায় শুদ্ধভাবে ক’জন কথা বলছি। যেকোনো স্তরের যেকোনো মানুষকে যদি বলা হয়, ৫ মিনিট শুদ্ধ বাংলায় কথা বলুন, পারবেন না। আমাদের দৈনন্দিন কতটি কাজে বাংলা ব্যবহার করছি। আমাদের দলিল দস্তাবেজে বাংলার ব্যবহার হচ্ছে কী? এমন নানা প্রশ্ন ও সেগুলোর জবাব খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করেছি এই গানে।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বৃহস্পতিবার লেজার ভিশনের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ব্যতিক্রমী এই গানটির ভিডিও প্রকাশ করা হয়। 

বাংলা ভাষা নিয়ে গান প্রকাশের ব্যাপারে লেজার ভিশনের চেয়ারম্যান এ কে এম আরিফুর রহমান বলেন, নকশীকাঁথা সব সময় ব্যতিক্রমী কাজ করে। এই গানটি আরও বেশি ব্যতিক্রম। কারণ বাংলা ভাষার দুরবস্থা আমরা সবাই দেখছি। কিন্তু কেউ এখনো গানের মাধ্যমে এভাবে প্রকাশ করেনি। নকশীকাঁথাই সম্ভবত প্রথম এ ধরনের কাজ করলো। এর ভোকাল সাজেদ ফাতেমীকে সাধুবাদ জানাই।

নকশীকাঁথা ব্যান্ডের লাইনআপ: সাজেদ ফাতেমী (দল প্রধান ও ভোকাল), জে আর সুমন(অ্যাকুইস্টিক গিটার, রাবাব ও দোতারা), বুলবুল সাহা (কাহন ও পারকেশন্স), রোমেল হাসান (মেলোডিকা ও অ্যাকোর্ডিয়ান), শামস (বেজ গিটার)।

ভিডিও:

 

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংগীত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-21 16:08:50