ঢাকা, বুধবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৭, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ সফর ১৪৪২

বিনোদন

প্রথমবার ছয় গুণী পাচ্ছেন ‘বশির আহমেদ সম্মাননা’

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
প্রথমবার ছয় গুণী পাচ্ছেন ‘বশির আহমেদ সম্মাননা’ বশির আহমেদ

২০১৪ সালের ১৯ এপ্রিল প্রয়াত হন দেশের অন্যতম প্রথিতযশা সংগীতশিল্পী, সুরকার ও সংগীত পরিচালক বশির আহমেদ। গুণী এই শিল্পীর চলে যাওয়ার পাঁচ বছরেরও বেশি সময় পর প্রথমবার প্রদান করা হচ্ছে ‘বশির আহমেদ সম্মাননা’।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বশির আহমেদের ৮০তম জন্মদিন। তার জন্মদিন উপলক্ষে রোববার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় অায়োজন করা হয়েছে ‘বশির আহমেদ সম্মাননা ২০১৯’।

কারা পাচ্ছেন প্রথমবারের বশির আহমেদ সম্মাননা- এমন প্রশ্নের উত্তরে বশির আহমেদপুত্র রাজা বশির বাংলানিউজকে বলেন, ‘এবার ছয়জন গুণীকে আমরা সম্মাননা দিচ্ছি। এর মধ্যে সংগীতশিল্পী হিসেবে ফেরদৌসি রহমান, সুরস্রষ্টা হিসেবে শেখ সাদী খান, গীতিকবি হিসেবে শহীদুল্লাহ্ ফরায়জী, যন্ত্রসংগীতশিল্পী হিসেবে চন্দন দাস, সাংবাদিকতায় নাসির আহমেদ এবং বিশেষ ব্যক্তিত্ব হিসেবে সম্মাননা পাচ্ছেন মুস্তফা কামাল সৈয়দ।

সম্মাননা অনুষ্ঠানে বশির আহমেদের জন্মদিন উপলক্ষে তাকে নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক আলোচনা পর্বে অংশ নেবেন- গুণী সংগীতশিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদী, গীতিকবি-চলচ্চিত্র নির্মাতা গাজী মাজহারুল আনোয়ার ও সংগীতশিল্পী খুরশীদ আলম।

বশির আহমেদসম্মাননা প্রদানের পর থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও। এই আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোস্তফা জব্বার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক জনাব লিয়াকত আলী লাকীসহ শিল্প-সংস্কৃতি জগতের আরও অনেকেই। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বিশিষ্ট সংগীত পরিচালক আজাদ রহমান। উপস্থিত থাকছেন বশির আহমেদের দুই সন্তান হোমায়রা বশির এবং রাজা বশির।

অনুষ্ঠানের আয়োজক সারগাম সাউন্ড স্টেশন। সার্বিক সহযোগিতায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি।

১৯৩৯ সালের ১৮ নভেম্বর কলকাতার খিদিরপুরে জন্মগ্রহণ করেন বশির আহমেদ। তিনি দিল্লির সওদাগর পরিবারের সন্তান। তার বাবার নাম নাসির আহমেদ। ১৯৬৪ সালে তিনি সপরিবারের ঢাকায় আসেন।  

ঢাকায় আসার আগেই উর্দু সিনেমায় গান গাওয়া শুরু করেন বশীর আহমেদ। রাগ সংগীতে তার দখল ছিল অচিন্তনীয়। ওস্তাদ বড়ে গোলাম আলী খাঁর কাছে তালিম নেন তিনি। ‘তালাশ’ সিনেমায় বিখ্যাত শিল্পী তালাত মাহমুদের সঙ্গে কাজ করেন তিনি। তার অনেক জনপ্রিয় গানের মধ্যে- ‘অনেক সাধের ময়না আমার’, ‘আমাকে পোড়াতে যদি এত লাগে ভালো’ ‘খুঁজে খুঁজে জনম গেল’ প্রভৃতি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৭, ২০১৯
ওএফবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa