bangla news

এবারও হচ্ছে না বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ৬:২৯:৫১ পিএম
বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসবে রাজধানীবাসীর উচ্ছ্বাস। ছবিটি ২০১৭ সালের, বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের ফেসবুক থেকে নেওয়া

বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসবে রাজধানীবাসীর উচ্ছ্বাস। ছবিটি ২০১৭ সালের, বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের ফেসবুক থেকে নেওয়া

ঢাকা: ভেন্যু না পাওয়ার কারণে এবারের বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসব বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ। গতবছরও একই কারণে উৎসবটি অনুষ্ঠিত হয়নি। 

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে উৎসবের আয়োজক বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আবুল খায়ের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বাংলানিউজকে তিনি বলেন, আমরা আর্মি স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষের কাছে ভেন্যু বরাদ্দ চেয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। সোমবার (২১ অক্টোবর) আমরা এ বিষয়ে চিঠি পেয়েছি। মূলত এরপরই জেনেছি ভেন্যু না পাওয়ার বিষয়টি।

বিকল্প ভেন্যু প্রসেঙ্গ আবুল খায়ের বলেন, ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। তাই সেখানেও এ উৎসব করা সম্ভব নয়। আর বিদেশি শিল্পীরা আর্মি স্টেডিয়ামে আয়োজন হলে নিরাপদ ও স্বস্তিবোধ করেন।

২০১২ সাল থেকে ২০১৬ পর্যন্ত টানা পাঁচবছর বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে উচ্চাঙ্গসঙ্গীতের সবচেয়ে বড় উৎসবটি হয়। প্রথমে তিনদিন করা হলেও গত দু’বছর উৎসবের ব্যাপ্তি করা হয় পাঁচদিন। 

২০১৭ সালে উৎসবের আয়োজন করা হয় ধানমন্ডির আবাহনী মাঠে। তবে ২০১৮ সালে ভেন্যু না পাওয়ায় কোনো উৎসবের আয়োজন করেনি কর্তৃপক্ষ বেঙ্গল ফাউন্ডেশন। এবারও ঘটেছে এমনটাই। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো বাতিল করা হলো এ উৎসবটি।

উৎসব বাতিলের নোটিশউৎসব বাতিলের বিষয়টি এরই মধ্যে দেশি-বিদেশি শিল্পীদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে আবুল খায়ের বলেন, উৎসব বাতিলের বিষয়টি দুইশতাধিক দেশি-বিদেশি শিল্পী ও কলাকুশলীকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। চূড়ান্ত পর্যায়ে এমন খবর পেয়ে বেশ মর্মাহত হয়েছেন শিল্পীরা। 

বেঙ্গল ফাউন্ডেশন সূত্র বলছে, আগামী ২৮ নভেম্বর শুরু হওয়া ওই উৎসব ঘিরে পরিকল্পনাসহ প্রস্তুতি ছিলো চূড়ান্ত পর্যায়ে। কিন্তু শেষ মুহূর্তে এসে জানা গেলো ভেন্যু পাওয়া যাচ্ছে না। 

এদিকে, বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসবের ফেসবুকে পেজে মঙ্গলবার দুপুরে উৎসব বাতিলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। সেখানে বলা হয়, অনিবার্যকারণে বেঙ্গল ফাউন্ডেশন ২০১৯ সালের বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসঙ্গীত উৎসব আয়োজন করছে না। আমরা আমাদের দর্শক-শ্রোতা ও শিল্পীদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী; যারা বিগত বছরগুলোতে এ উৎসবের প্রতি ভালোবাসা ও উৎসাহ দেখিয়েছেন।

ফেসবুকে এ পোস্ট দেখে হতাশা ব্যক্ত করেছেন অনেক সঙ্গীতপ্রেমী। শিরিন কনা নামে একজন লিখেছেন, ‘ব্যস্ত নাগরিক জীবনে বেঙ্গল ক্ল্যাসিক্যাল মিউজিক ফেস্টিভ্যাল এক নবধারার সূচনা করেছিল! গতবছর থেকে বন্ধ হয়ে যাওয়া এই উৎসব আদৌ কি আর অনুষ্ঠিত হবে? তবে বিগত সব প্রোগ্রামের জন্য আপনাদের আন্তরিকতা সত্যি প্রশংসনীয়! ধন্যবাদ আপনাদের!’

এটিকে ‘সঙ্গীতপ্রেমীদের জন্য অত্যন্ত দুঃখজনক সংবাদ!’ হিসেবেও দেখেছেন খন্দকার হামিদুল হক নামে একব্যক্তি। 

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০১৯
ডিএন/এমএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-10-22 18:29:51