bangla news

দাঁড়াতে পারবে তো ব্যান্ডদল ‘অ্যাডভার্ব’!

ওমর ফারুক বিশাল, নিউজরুম এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১৭ ৪:০৮:২৮ পিএম
‘অ্যাডভার্ব’র সদস্যরা

‘অ্যাডভার্ব’র সদস্যরা

২০১৪ সালে প্রান্ত, সোহাগ, তুহিন, রেক্স এবং লিঙ্কন মিলে গড়ে তোলেন ব্যান্ডদল ‘অ্যাডভার্ব’। এরপর থেকে নিয়মিত চর্চা ও পরিকল্পনা করে আসছে উঠতি এই ব্যান্ডটির সদস্যরা। লক্ষ্য একটা- ‘অ্যাডভার্ব’কে প্রথম সারির ব্যান্ডের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া।

তবে হুট করেই এগোতে চান না তারা। যে কারণে ব্যান্ড গঠনের প্রায় পাঁচ বছর পর তাদের প্রথম গান প্রকাশ পায়। এ প্রসঙ্গে ব্যান্ডটির ভোকাল প্রান্ত বাংলানিউজকে বলেন, ‘ভালো গানের জন্যে নিজেদের গড়ে তুলতে আমরা নিয়মিত চর্চা করছি। সময় নিয়ে নিজেদের তৈরি করছি। যে কারণে পাঁচ বছর পর অর্থাৎ ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে আমাদের প্রথম গান ‘কতদূর’ প্রকাশ পায়। এরপর গত ২২ আগস্ট প্রকাশ পায় আমাদের দ্বিতীয় গান ‘অবসাদ’।’

‘অ্যাডভার্ব’র সদস্যরা

‘দুটি গানই বেশ প্রশংসিত হয়েছে। মানে, খুব ভালো সাড়া পেয়েছি। গানগুলো শ্রোতারা শুনতে পাবেন ‘অ্যাডভার্ব’র ফেসবুক পেইজ, বিভিন্ন স্যোশাল মিডিয়া প্লাটফর্ম, বিভিন্ন অনলাইন স্ট্রিমিং অ্যাপ এবং ‘অ্যাডভার্ব’র অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে। এছাড়া দেশের সবগুলো রেডিওতে প্রায়ই বাজানো হচ্ছে আমাদের গান দুটি। আশা করি সবার ভালোবাসা-সহযোগিতা পেলে ‘অ্যাডভার্ব’কে একটি প্রতিষ্ঠিত ব্যান্ড হিসেবে দাঁড় করাতে পারবো।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘রক অল্টারনেটিভ রক এবং এক্সপেরিমেন্টাল জনারের গান করে থাকি আমরা। সঙ্গীতই আমাদের একমাত্র ধ্যান-জ্ঞান। সামনে আমাদের আরও বেশ কয়েকটি গান প্রকাশ পাবে। অন্যান্য ব্যান্ডের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বাংলা রক গানের গৌরবকে গৌরবান্বিত করাই আমাদের লক্ষ্য। এছাড়া আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে ৫ থেকে ৬ গানের একটি শরীরি অ্যালবাম প্রকাশের ইচ্ছে আছে আমাদের।’

ব্যান্ডের বর্তমান লাইন আপ- প্রান্ত  (ভোকাল), লিংকন  (গিটার), রেক্স  (গিটার), সোহাগ  (ড্রামার) ও তুহিন (বেস গিটার)।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সংগীত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-17 16:08:28