ঢাকা, শনিবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ আগস্ট ২০১৯
bangla news

এ যুগে সত্যিকারের ভালোবাসা পাওয়া যায় না: স্পর্শিয়া

মো. জহিরুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-০৬ ৫:১৩:৩১ পিএম
অর্চিতা স্পর্শিয়া। ছবি: রাজীন চৌধুরী/বাংলানিউজ

অর্চিতা স্পর্শিয়া। ছবি: রাজীন চৌধুরী/বাংলানিউজ

ছোট পর্দা দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছেন অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শিয়া। ঈদে অনন্য মামুন পরিচালিত ‘আবার বসন্ত’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বড় পর্দায় অভিষেক ঘটলো তার। সিনেমাটি দেশের ৭টি প্রেক্ষাগৃহে ঈদের দিন (বুধবার, ৫ জুন) মুক্তি পেয়েছে।

‘আবার বসন্ত’ এবং নিজের ক্যারিয়ারসহ নানা বিষয় নিয়ে বাংলানিউজের মুখোমুখি হয়েছেন স্পর্শিয়া। 

বাংলানিউজ: বড় পর্দায় আপনার অভিষেক ঘটলো। কেমন লাগছে?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
এটা আসলে আরও দুই মাস আগে হওয়ার কথা ছিল। ‘আবার বসন্ত’ মুক্তি পাবে পাবে করে এবার ঈদে মুক্তি পেলো। তবে নিজেকে সৌভাগ্যবতী বলতে হবে, কারণ সিনেমা মুক্তির সবচেয়ে বড় মৌসুম ঈদ, সে সময়ই আমার প্রথম সিনেমাটা মুক্তি পেলো।

বাংলানিউজ: রেসপন্স কেমন পাচ্ছেন?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
আমি তো ভালোই পাচ্ছি। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে ‘আবার বসন্ত’র গল্পটা একটু ভিন্ন ধরনের। মানে সচরাচর যে ধরনের গল্পে সিনেমা হয়, তেমন নয়। আর সিনেমা দেখতেও মানুষ প্রেক্ষাগৃহে যাচ্ছে, উপভোগ করছে। এটাই আনন্দের জায়গা। অর্চিতা স্পর্শিয়া। ছবি: রাজীন চৌধুরী/বাংলানিউজবাংলানিউজ: সিনেমার প্রমোশনে অনেক সময় দিয়েছেন, এখনো দিচ্ছেন। এটা কি এনজয় করছেন? 
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
সত্যিকথা বলতে গেলে আমি খুব একটা এনজয় করছি না। কারণ আমি একদমই সোশ্যাল পারসন না। আমার নিজস্ব একটা জগৎ আছে, একটা গণ্ডি আছে। আমার হাতেগোনা কয়েকজন বন্ধু-বান্ধব আছে। ওই জায়গায় আমি একেবারে আলাদা। কিন্তু পিআর (পাবলিক রিলেশন) করা, পাবলিসিটি বা প্রচুর সাক্ষাৎকার দেওয়া খুব একটা আমার ভালো লাগে না। এতো কথা বলতে আমার একদমই ভালো লাগে না।

এর আগে তো নাটক করেছি। ছোট পরিসরে টুকটাক কথা বলা বা সাক্ষাৎকার দেওয়া হয়েছে, এগুলো আসলে দিতেই হয়। আমাদের কাজেরই একটা অংশ। কিন্তু সিনেমার প্রমোশন করতে এসে এতো কথা বলতে হচ্ছে যে, সারাজীবনও আমি এতো কথা বলিনি। এতো টিভি চ্যানেলে যাইনি।

বাংলানিউজ: তারপরও প্রমোশনে অংশ নিচ্ছেন যে?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
মূলত এখানে আমার প্রমোশন আমি করছি না, এটা আমার সিনেমার প্রমোশন। সিনেমা অনেক বড় একটি বিষয়। আর আমাদের সিনেমাটা একেবারে ভিন্ন ঘরানার। তাই সিনেমাটা ভালো নাকি খারাপ, সেটা জানার জন্য মানুষকে হলে গিয়ে দেখতে হবে। তারপর মানুষ বলবে এটা ভালো হয়নি বা ভালো হয়েছে। কারো ভালো লাগবে, কারো লাগবে না। কিন্তু আগে দর্শকদের জানাতে হচ্ছে যে এরকম একটি সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে আছে আপনারা দেখতে আসুন। সেজন্যই আসলে প্রচারণাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলানিউজ: ‘আবার বসন্ত’ কেমন হয়েছে?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
মূলত সিনেমাটার গল্পটা ভালো বলেই আমি এটা করতে রাজি হয়েছি। সিনেমাটিতে আমার চরিত্রের নাম তিথি। চরিত্রটা খুব সুন্দর করে লেখা হয়েছে। চরিত্রটার ডাইমেনশন আছে। তাই অভিনয় করতে অনেক মজা পেয়েছি, এনজয় করেছি। আমার মনে হয় এ রকম গল্প আমাদের দেশে আরও হওয়া উচিত। 

বাংলানিউজ: সিনেমাটিতে তারিক আনাম খানের বয়স ৬৫, আর আপনার ২৫। বলা হচ্ছে সিনেমায় আপনাদের মধ্যে অসম প্রেম হয়েছে।
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
আমার মনে হয় তারিক আনাম খানের আসল বয়সই ৬৫, আর আমার আসল বয়স ২৫। প্রেমে আসলে অসম বলে কিছু নেই। প্রেম, শিক্ষা ও মৃত্যু এগুলোর কোনো বয়স হয় না। সেটা যেকোনো সময় হতে পারে। তবে ‘আবার বসন্ত’ কিন্তু অসম প্রেমের গল্প নয়। আপনি যদি সিনেমাটি দেখেন, তাহলে এতে প্রেমের খুব বেশি কিছু পাবেনই না। এটা সম্পূর্ণ পারিবারিক গল্প, একটা লোকের একাকিত্বের গল্প। তিথির একটা আলাদা গল্প। সব মিলিয়ে আমার বিশ্বাস মানুষের ভালো লাগবে।   অর্চিতা স্পর্শিয়া। ছবি: রাজীন চৌধুরী/বাংলানিউজবাংলানিউজ: এই গল্পটা আমাদের সমাজের সঙ্গে কতটুকু সামঞ্জস্যপূর্ণ বলে আপনি মনে করেন?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
এটা আমাদের সমাজেরই গল্প। এই গল্পটা কিন্তু একজনের জীবন থেকে নেওয়া। গোপনীয়তার জন্য আমরা তার নামটা প্রকাশ করতে পারছি না। ইমরান চৌধুরী নামের চরিত্রটা তারিক ভাই করেছেন, সেটা একদম বাস্তব একটা চরিত্র। যিনি অনন্য মামুনের খুব কাছের একজন।  

বাংলানিউজ: তিথি চরিত্রটা কেমন?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
গল্পে তিথি মেয়েটা একটি সত্যিকারের ভালোবাসা খোঁজে। যেটা আমার বয়সী ছেলে-মেয়েদের মধ্যে নেই। এই যুগের ছেলে-মেয়েদের মধ্যে সত্যিকারের ভালোবাসা পাওয়া যায় না। ইমরান চৌধুরীর আলাদা একটা ক্রাইসিস রয়েছে- তার বউ নেই এবং তার ছেলে-মেয়ে তাকে একদম সময় দেয় না। 

বাংলানিউজ: আপনার বয়সী কারো মধ্যে সত্যিকারের ভালোবাসা নেই, এটা কেনো মনে হয়?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
নেই এমনটা না। কিন্তু আশেপাশে তাকালেই আমি তেমনটা দেখি। এ যুগের ভালোবাসা কী সেটা যদি আমাকে কেউ জিজ্ঞেস করে, তাহলে আমি বলবো, মোবাইলে ইমোজি থাকে না ‘হার্ট সাইন’র? ওইটা হচ্ছে এই যুগের ভালোবাসা।

বাংলানিউজ: ‘আবার বসন্ত’র পর আপনার নতুন আর কী কী সিনেমা আসছে?
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
সামনে আমার আরও দুইটা সিনেমা আসছে। এগুলো হচ্ছে-নিয়ামুল মুক্তা পরিচালিত ‘কাঠবিড়ালী’ ও নুরুল আলম আতিক-এর ‘মানুষের বাগান’। দু’টি সিনেমাই ঈদের পর মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

বাংলানিউজ: সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। ঈদ মোবারক।
অর্চিতা স্পর্শিয়া:
বাংলানিউজের সকল পাঠককে ঈদ মোবারক।

**পোশাক: রঙ বাংলাদেশ

বাংলাদেশ সময়: ১৭১০ ঘণ্টা, মে ০৬, ২০১৯
জেআইএম/এইচএ/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সিনেমা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-06-06 17:13:31