ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ জুন ২০১৯
bangla news

চলে গেলেন অভিনেত্রী মায়া ঘোষ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-১৯ ১১:৪৪:২৬ এএম
 মায়া ঘোষ

মায়া ঘোষ

দীর্ঘদিন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেন মঞ্চ, টিভি ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী এবং মুক্তিযোদ্ধা মায়া ঘোষ(৭০)। রোববার (১৯ মে) সকাল পৌনে ৯টার দিকে যশোরের কুইন্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।

মায়া ঘোষের বড় ছেলে দীপক ঘোষ বাংলানিউজকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘২০০০ সাল থেকে মা ক্যান্সারে আক্রান্ত। তবে প্রথম দিকে চিকিৎসার পর দীর্ঘদিন তিনি সুস্থ ছিলেন। ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে ক্যান্সারের কারণে ওনার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। এরপর এ বছর জানুয়ারি ও মার্চে দু’দফায়  ভারতে ওনার চিকিৎসা করানো হয়। কিন্তু তিনি দেশে ফিরতে উদগ্রীব থাকায় সেখান থেকে এনে যশোরে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।’

‘টানা দুই মাস ধরে মা হাসপাতালে ভর্তি। তাকে সুস্থ করতে আমরা অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু আজ (রোববার) সকাল ৮টা ৪৫মিনিটে তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন’, যোগ করেন দীপক ঘোষ।

তিনি আরও জানান, হাসপাতালের সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষে রোববার দুপুরে মায়া ঘোষের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে যশোরের নীলগঞ্জ শ্মশানে। সেখানেই তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

১৯৪৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর যশোরের মণিরামপুর উপজেলার প্রতাপকাটি গ্রামে মায়া ঘোষ জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম শঙ্কর প্রসাদ গাঙ্গুলি। একই উপজেলার মাছনা-খানপুর গ্রামের দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ১৯৮৪ সালে তারা ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। 

১৯৮১ সালে ‘পাতাল বিজয়’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় মায়া ঘোষের যাত্রা শুরু হয়। প্রায় দুই শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন করেছেন তিনি। অসংখ্য মঞ্চ নাটক ও টিভি নাটকের অভিনেত্রী তিনি। সর্বশেষ ২০১৬ সালে ধারাবাহিক নাটক ‘ডিবি’তে তাকে অভিনয় করতে দেখা যায়।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় কলকাতায় বাংলাদেশি শরণার্থী শিবিরে মুক্তিযোদ্ধাদের রান্না করে খাওয়ানোর কাজ করেছেন মায়া ঘোষ। বহু আহত মুক্তিযোদ্ধার সেবাও করেছেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৪  ঘণ্টা, মে ১৯, ২০১৯
জেআইএম/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সিনেমা টেলিভিশন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-19 11:44:26