ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
bangla news

চোখে সমস্যা দেখা দিয়েছে খুরশীদ আলমের

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-০১ ৯:১৩:৪৬ পিএম
খুরশীদ আলম

খুরশীদ আলম

সিটি স্ক্যান রিপোর্ট ভালো এসেছে। মাথা, দাঁতের ও মুখের ব্যথা কমেছে। মাথার ব্যান্ডেজ খুলতে আর কয়েক দিন সময় লাগবে। এখন চোখে কিছুটা সমস্যা দেখা দিয়েছে। হাতেও খানিকটা ব্যথা হচ্ছে। 

তবে হাতের চেয়ে চোখের সমস্যা নিয়ে কিছুটা আশঙ্কা রয়েছে। মঙ্গলবার (০২ এপ্রিল) হবে চোখের পরীক্ষা। এই রিপোর্টটি ভালো আসলেই আর কোনো রকমে শঙ্কা থাকবে না, আল্লাহর রহমতে। একুশে পদক প্রাপ্ত সঙ্গীতশিল্পী খুরশীদ আলমের বর্তমান শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে তার স্ত্রী রিনু আলম বাংলানিউজকে এমনটিই জানিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার চোখের ইতিবাচক রিপোর্ট আসলে ঐদিন বিকেলেই বাসায় ফিরতে পারবো- আশা করছি। তবে মঙ্গলবার না হলে বুধবার (০৩ মার্চ) অবশ্যই বাসায় ফিরতে পারবো বলে ডাক্তার জানিয়েছেন। আপনার সবাই দোয়া করবেন।

সঙ্গীতশিল্পী খুরশীদ আলম বর্তমানে রাজধানীর গ্রিন লাইফ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। 

এর আগে শনিবার (৩০ মার্চ) পরিবারের সিদ্ধান্তে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুরশীদ আলমকে বগুড়া থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্স করে ঢাকায় আনা হয়।

শুক্রবার (৩০ মার্চ) দিনগত রাত তিনটার দিকে বগুড়া-রংপুর মহাসড়কের চারমাথা এলাকায় মালবাহী ট্রাক ও প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে গুণী এই সঙ্গীতশিল্পী আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।

দুর্ঘটনায় মাথায়, মুখে এবং দাঁতে বেশি আঘাত (চারটি দাঁত ভেঙে গেছে) পান গুণী এই শিল্পী।

বগুড়ার সংগঠন জয়পুরহাট কল্যাণ ট্রাস্টের এক সম্মাননা অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য শুক্রবার বগুড়ায় যান জয়পুরহাটের কৃতী সন্তান জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী খুরশীদ আলম। রাতের খাবার খাওয়ার জন্য গাড়ি নিয়ে শহরের দিকে গিয়েছিলেন। খাবার শেষে ফেরার পথে দুর্ঘটনায় আহন হন একুশে পদক প্রাপ্ত গুণী সঙ্গীতশিল্পী খুরশীদ আলম।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০১৯
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সঙ্গীত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-01 21:13:46