ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন শাহনাজ রহমতউল্লাহ

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-২৪ ৪:৪৮:৩৮ পিএম
দাফন সম্পন্ন হওয়ার পর দোয়া প্রার্থনা। ছবি: রাজীন চৌধুরী

দাফন সম্পন্ন হওয়ার পর দোয়া প্রার্থনা। ছবি: রাজীন চৌধুরী

রোববার (২৪ মার্চ) বাদ জোহর বারিধারার ৯ নম্বর রোডের পার্ক মসজিদে একমাত্র জানাজার নামাজ শেষে দুপুর পৌনে ৩টার দিকে রাজধানী বনানীস্থ’র সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কবরস্থানে দাফন করা হয় দেশ বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী শাহনাজ রহমতউল্লাহকে।

বিদেশে থাকার কারণে শেষ বারের মতো সন্তানেরা দেখতে পারলেন না মায়ের মুখ। শাহনাজ রহমতউল্লাহর মেয়ে নাহিদ রহমতউল্লাহ রয়েছেন লন্ডনে। ছেলে সায়েফ রহমতউল্লাহ আছেন কানাডায়। টিকিট জটিলতার কারণে তাদের দেশে ফিরতে সময় লাগবে বলেই দ্রুত দাফন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। বললেন, শাহনাজ রহমতউল্লাহর স্বামী আবুল বাশার রহমতউল্লাহ।

বাদ জোহর জানাজা নামাজে মুসল্লিরা। ছবি: রাজীন চৌধুরী

এদিকে আগামী শুক্রবার (মার্চ) বাদ আসর বায়তুল আতিক কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাতের জন্য দোয়া মাহফিল হবে। সেই দোয়া-মাহফিলে সবাইকে সামিল হওয়ার জন্য আহ্বান করেছেন আবুল বাশার রহমতউল্লাহ।

অনেক কারণেই বাংলা গানের ইতিহাসে অনন্য হয়ে থাকবেন শাহনাজ রহমতউল্লাহ। বিশেষ করে বিবিসির জরিপে সর্বকালের সেরা ২০টি গানের মধ্যে ৪টি গানই বরেণ্য এই শিল্পীর কণ্ঠের।

শাহনাজ রহমত উল্লাহ সম্পর্কে বলছেন খুরশীদ আলম। ছবি: রাজীন চৌধুরী গানগুলো হচ্ছে- খান আতাউর রহমানের কথা-সুরে ‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’, গাজী মাহজারুল আনোয়ারের কথায় ও আনোয়ার পারভেজের সুরে ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘একবার যেতে দে না আমায় ছোট্র সোনার গাঁয়’ ও ‘একতারা তুই দেশের কথা বল রে এবার বল’। তার কণ্ঠের সেরা চারটি গানের তিনটিই বরেণ্য গীতিকবি গাজী মাজহারুল আনোয়ারের লেখা।  

এছাড়াও তার কণ্ঠের দেশাত্মবোধক জনপ্রিয় গানের মধ্যে- ‘প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ’, ‘আমার দেশের মাটির গন্ধে’, ‘আমায় যদি প্রশ্ন করে’ অন্যতম।

সিনেমার গানেও রেখেছেন অনন্য অবদান। স্বীকৃতিস্বরুপ পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। ১৯৯০ সালে ‘ছুটির ফাঁদে’র জন্য শ্রেষ্ঠ নারী কণ্ঠশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন শাহনাজ রহমতউল্লাহ। আর সঙ্গীতে অসামান্য অবদানের জন্য ১৯৯২ সালে ভূষিত হন একুশে পদক এ।

খুরশীদ আলম-ফুয়াদ নাসের বাবু-কবির বকুল। ছবি: রাজীন চৌধুরী

১৯৫২ সালে শাহনাজ রহমতউল্লাহর জন্ম। ১৯৭৩ সালে আবুল বাশার রহমতউল্লাহর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। তাদের ঘরে এক কন্যা ও এক পুত্র রয়েছে। তারা হলেন- নাহিদ রহমতউল্লাহ এবং একেএম সায়েফ রহমতউল্লাহ।

গুণী এই সঙ্গীতশিল্পী সুরকার আনোয়ার পারভেজের ছোট ও প্রয়াত চিত্রনায়ক জাফর ইকবাল’র বড় বোন।

সঙ্গীত ক্যারিয়ারে দীর্ঘ ৫০ বছর গান করেছেন শাহনাজ রহমতউল্লাহ। তবে আট বছর আগে গান গাওয়া ছেড়ে দেন তিনি। এবার ছেড়ে গেলেন পৃথিবীর মায়া।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০১৯
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   সঙ্গীত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14