[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৬ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

পর্দা উঠলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০১-১২ ৭:০৪:০১ এএম
ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে উদ্বোধনকালে বক্তব্য রাখছেন অর্থমন্ত্রী/ছবি: শাকিল

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে উদ্বোধনকালে বক্তব্য রাখছেন অর্থমন্ত্রী/ছবি: শাকিল

ঢাকা: ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’। এইতো ষোড়শ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিপাদ্য বিষয়। আর সে লক্ষ্যকে সামনে নিয়েই শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) শুরু হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব।

দর্শককে সিনেমামুখী করতে রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ আয়োজন করেছে এ উৎসবের। শুক্রবার বিকেলে বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এসময় প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক গিরিস কাসারাভ্যালি ও উৎসব পরিচারক আহমেদ মুজতবা জামাল। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

উদ্বোধনী বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেন, চলচ্চিত্রের উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বিনোদনের ক্ষেত্রে এ উৎসব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

হাসানুল হক ইনু বলেন, চলচ্চিত্র আমাদের ভাবায়, আমাদের জাগায়, আমাদের অনুপ্রাণিত করে। সে পরিপ্রেক্ষিতেই এ উৎসব আমাদের চলচ্চিত্রের অনেক কাছে নিয়ে আসবে বলে মনে করি। যা আমাদের মন ও মননকে জাগাতে সাহায্য করবে।

উৎসব চলবে আগামী ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত। এবারের উৎসবে উল্লেখযোগ্য প্রায় ৩৫টি দেশের চলচ্চিত্র জায়গা করে নিয়েছে। উৎসবে বাংলাদেশের দশটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রসহ মোট ২০টির বেশি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে বলে স্বাগত বক্তব্যে জানান উৎসব পরিচারক আহমেদ মুজতবা জামাল।

উৎসবে উন্নত চলচ্চিত্র প্রদর্শনের মাধ্যমে ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন চলচ্চিত্র সমূহের সমাহার ঘটিয়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত চলচ্চিত্রকার, প্রযোজক, পরিবেশক, প্রদর্শক ও কলাকুশলীসহ দর্শকদের সুস্থ চলচ্চিত্রের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি অন্যতম লক্ষ্য বলেও জানান তিনি।

এবারে চলচ্চিত্র প্রদর্শন ও সেমিনারের ভেন্যু হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল ও প্রধান মিলনায়তন। এছাড়াও আঁলিয়ঁস ফ্রসেজ মিলনায়তন, রাশিয়ান কালচার সেন্টার ও স্টার সিনেপ্লেক্সে উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো প্রদর্শিত হবে।

জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন ও পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে প্রতিদিন সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকেল ৩টার প্রদর্শনীতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে চলচ্চিত্র দেখতে পরবে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে। পাবলিক লাইব্রেরির সকালের প্রদর্শনীগুলোতে সুবিধাবঞ্চিত ও বিশেষায়িত শিশুদের বিনামূল্যে চলচ্চিত্র দেখার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে উইমেন্স ফিল্ম মেকারস সেকশন ও শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম সেশনের চলচ্চিত্রসমূহ প্রদর্শীত হবে। ১২ থেকে ২০ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিতভাবে চলবে প্রদর্শনীগুলো। ১৫ থেকে ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত রাজধানীর রাশিয়ান কালচার সেন্টারে স্পিরিচুয়্যাল ফিল্ম সেশনের চলচ্চিত্রগুলো প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ৪টি করে প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। প্রদর্শনীগুলোও কমপ্লিমেন্টারি বেসিসে উন্মুক্ত থাকবে সবার জন্য।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০১৮
এইচএমএস/এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache