ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

বিনোদন

আমি প্রতারণার শিকার : ন্যান্সী

বিপুল হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২, ২০১১
আমি প্রতারণার শিকার : ন্যান্সী

‘আমি প্রতারণার শিকার। অনুমতি না নিয়েই প্রতারণা করে আমার নামে একটি একক অ্যালবাম বাজারে ছেড়েছে প্রযোজনা সংস্থা সঙ্গীতা।

এ বিষয়ে আমি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের কথা ভাবছি। ’ এভাবেই বাংলানিউজের কাছে নিজের ক্ষুব্ধ মনোভাব জানালেন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী ন্যান্সী।

ন্যান্সী জানান, ঈদের দু-তিন মাস আগে কয়েকটি মিক্সড অ্যালবামের জন্য তার সাতটি গান রেকর্ডিং করা হয়। এই গানগুলোর সঙ্গীতায়োজনে ছিলেন সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক পঞ্চম, রাজিব এবং রুমী রহমান। বিভিন্ন শিল্পীর গান নিয়ে বের হওয়া মিক্সড অ্যালবামে গানগুলো ব্যবহার করার কথা ছিল। কিন্তু এই সাতটি গান আর চলচ্চিত্রের জন্য গাওয়া একটি গান নিয়ে তাকে কিছু না জানিয়েই ন্যান্সীর একক অ্যালবাম হিসেবে `আমার প্রিয়তমা` নামে একটি অ্যালবাম ঈদের কয়েকদিন আগে অডিও বাজারে ছাড়ে সঙ্গীতা। পুরো বিষয়টিকে ন্যান্সী তার সঙ্গে প্রতারণা বলে মনে করছেন।

বাংলানিউজকে ন্যান্সী বলেন, বর্তমানে হাবিব ওয়াহিদের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনায় আমি আমার দ্বিতীয় একক অ্যালবামের কাজ করছি। মাস দুয়েক আগে এ অ্যালবামটি প্রকাশের আগ্রহের কথা জানিয়ে সঙ্গীতা থেকে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। আমি বিষয়টি পুরোপুরি হাবিব ভাইয়ের উপর ছেড়ে দিয়েছি বলে জানাই। এরপর সঙ্গীতার কর্ণধার সেলিম খান বেশ কয়েকবার কথা বলেন হাবীব ভাইয়ের সঙ্গে। কিন্তু আর্থিক ব্যাপারে সঙ্গীতার দেওয়া প্রস্তাব মনঃপুত না হওয়ায় এই নিয়ে কথাবার্তা আর আগায় নি। ঈদের দুদিন আগে হঠাৎ করেই চেনা-পরিচিতদের মাধ্যমে জানতে পারি, সঙ্গীতা থেকে আমার একটি একক অ্যালবাম বাজারে ছাড়া হয়েছে। এতে আমি আকাশ থেকে পড়ি। পরে অ্যালবামটি সংগ্রহ করে দেখি, মিক্সড অ্যালবামের জন্য আমার গাওয়া আটটি গান নিয়ে এটি প্রকাশ করা হয়েছে। অথচ এ বিষয়ে আমার সঙ্গে ন্যুনতম কথা বলার প্রয়োজন বোধ করি নি সঙ্গীতা।

ন্যান্সীর একক অ্যালবাম প্রকাশের ব্যাপারে সঙ্গীতার স্বত্তাধিকারী সেলিম খানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, নান্সী এই সময়ের একজন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী। আমরা মনে করেছি ঈদে তার একটি একক অ্যালবাম থাকা উচিত। মিক্সড অ্যালবামের জন্য তার গাওয়া কিছু গান আমাদের সংগ্রহে ছিল। এই গানগুলো মিলিয়ে একটি অ্যালবাম বের করা সম্ভব বলেই ঈদের আগে খুব দ্রুত নান্সীর একটি একক অ্যালবাম আমরা রিলিজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। চটজলদি অ্যালবামটি রিলিজ দেওয়ার কারণে তার সঙ্গে এ বিষয়ে কোনো আলোচনা করা সম্ভব হয় নি। একক অ্যালবামটিতে স্থান পাওয়া ন্যান্সীর এই গানগুলো সত্ত্ব সঙ্গীতার। তাই এগুলো মিক্সড নাকি একক অ্যালবামে ব্যবহার করবো, এ সিদ্ধান্ত আমরা নিতেই পারি।

এই সময়ের তুমুল জনপ্রিয় গায়িকা ন্যান্সীর প্রথম একক অ্যালবাম ‘অধরা’ রিলিজ পেয়েছিল ২০০৯ সালে। এরপর অডিও বাজারে তার কোনো একক অ্যালবাম আসেনি।   গত কয়েকমাস ধরে তিনি হাবিব ওয়াহিদের সুর ও সঙ্গীত পরিচালনায় দ্বিতীয় একক অ্যালবামের কাজ করছেন।   এটি আগামী ভালোবাসা দিবসে রিলিজ দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। সম্প্রতি ডেডলাইন মিউজিকের সঙ্গে এ ব্যাপারে একটি চুক্তি সম্পাদন হয়েছে। ন্যান্সীর দ্বিতীয় একক অ্যালবামটি আসছে ডেড লাইন মিউজিকের ব্যানারে। কিন্তু এরই মধ্যে এই ঈদে বিনা অনুমতিতে ন্যান্সীর একটি একক অ্যালবাম বাজারে ছেড়েছে সঙ্গীতা। এ বিষয়ে শুভানুধ্যায়ীরা ন্যান্সীকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য পরামর্শ দিয়েছেন। ন্যান্সী নিজেও আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছেন। তিনি শ্রোতাদের কাছে `আমার প্রিয়তমা` অ্যালবামটি না কেনার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময় ১৯৩০, সেপ্টেম্বর ০২, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa