ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

বিনোদন

‘বাংলাদেশ আমার নিজের আরেকটি দেশ’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬
‘বাংলাদেশ আমার নিজের আরেকটি দেশ’ বিরজু মহারাজ, ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

‘বাংলাদেশে এলে মনে হয় আমার নিজেরই আরেকটি দেশ মনে হয়। এখানকার অনেক শিল্পী আমার সান্নিধ্যে এসেছে। তাই বাংলা সংস্কৃতির সঙ্গে আমি পরিচিত’- বলছিলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি কত্থক নৃত্যগুরু পন্ডিত বিরজু মহারাজ।  কত্থক নৃত্য সম্প্রদায় আয়োজিত তিন দিনের ‘কত্থক নৃত্য উৎসব ১৪২৩’ উদ্বোধনের পর তিনি এ অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

‘বাংলাদেশে এলে মনে হয় আমার নিজেরই আরেকটি দেশ মনে হয়। এখানকার অনেক শিল্পী আমার সান্নিধ্যে এসেছে।

তাই বাংলা সংস্কৃতির সঙ্গে আমি পরিচিত’- বলছিলেন উপমহাদেশের কিংবদন্তি কত্থক নৃত্যগুরু পন্ডিত বিরজু মহারাজ।   কত্থক নৃত্য সম্প্রদায় আয়োজিত তিন দিনের ‘কত্থক নৃত্য উৎসব ১৪২৩’ উদ্বোধনের পর তিনি এ অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

বিরজু মহারাজকে ক্রেস্ট তুলে দিচ্ছেন লায়লা হাসান।  ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমশনিবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকার শংকরে ছায়ানট মিলনায়তনে শুরুতে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বলন করেন পন্ডিত বিরজু মহারাজ। এখানে তাকে সম্মাননা পদক তুলে দেন নৃত্যশিল্পী লায়লা হাসান। শাল পরিয়ে দিয়েছেন নৃত্যশিল্পী মীনু হক। অতিথিদের মধ্যে তাদের পাশাপাশি বক্তব্য রেখেছেন নৃত্যশিল্পী আনিসুল ইসলাম হিরু। এদিন বিদূষী শ্বাশতী সেনকে জীনাৎ জাহান স্মৃতি সম্মাননা শাল পরিয়ে দেওয়া হয়।

মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করছেন বিরজু মহারাজ।  ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমসম্মাননা প্রদানের পর ছিলো ‘গুরু শিষ্য পরম্পরা’ শীর্ষক নৃত্যানুষ্ঠান। আয়োজক কত্থক নৃত্য সম্প্রদায় ছাড়াও নৃত্য পরিবেশন করেছে বুলবুল একাডেমি অব ফাইন আর্টস, নৃত্যাশ্রম, পুষ্পাঞ্জলি, রেওয়াজ পারফর্মিং আর্টস, আঙ্গিকাম, মৌলভীবাজারের নূপুর নিক্বণ এবং রংপুরের নৃত্যশিল্পীরা।

বক্তব্য রাখছেন বিরজু মহারাজ।  ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমউৎসবের আয়োজক কত্থক নৃত্য সম্প্রদায়ের অর্ধিকর্তা নৃত্যগুরু সাজু আহমেদের প্রশংসা করে পদ্মবিভূষণ খেতাবপ্রাপ্ত বিরজু মহারাজ বলেন, ‘কত্থক নৃত্যের প্রতি ওর ত্যাগ আর নিষ্ঠাকে সাধুবাদ জানাই। এ ধরনের আয়োজনের প্রতি সরকারি সুদৃষ্টি থাকলে ওর মতো নৃত্যশিল্পীরা আরও উৎসাহিত হবে। ’

অতিথিদের মধ্যে বিরজু মহারাজ।  ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমবড়দিনে সকাল সাড়ে দশটায় একই স্থানে বিরজু মহারাজকে নিয়ে সেমিনারে ‘পন্ডিত বিরজু মহারাজ : সংস্কৃতির শিকড়ে গতিময় সঞ্চরণ’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ পাঠ করবেন শেখ মেহেদী হাসান।

সোমবার (২৬ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় পন্ডিত বিরজু মহারাজ ও তার ছাত্রী বিদূষী শ্বাশতী সেন যুগলবন্দি পরিবেশন করবেন ছায়ানটে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬
জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।