bangla news

বলিউডের ৪০ পেরোনো সবুজ নায়কেরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৮-০৪ ৪:১৮:২৩ এএম

সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বলিউডের ফিল্ম ইন্ডাষ্ট্রিতে আসছে নতুন নতুন হিরো । অভিষেক বচ্চন, হৃত্বিক রোশনের পর এসেছেন শহীদ কাপুর, রণবীর কাপুর, ইমরান খান, অভয় দেওল, ইমরান হাশমি সহ আরো অনেকেই।

সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বলিউডের ফিল্ম ইন্ডাষ্ট্রিতে আসছে নতুন নতুন হিরো । অভিষেক বচ্চন, হৃত্বিক রোশনের পর এসেছেন শহীদ কাপুর, রণবীর কাপুর, ইমরান খান, অভয় দেওল, ইমরান হাশমি সহ আরো অনেকেই। এতোসব নতুনের ভীড়েও দুই দশকের পুরনো চার নায়ক-ই এখনো বক্স অফিসে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রেখেছেন। এরকম কয়েকজন হিরোকে নিয়েই আমাদের এই বিশেষ আয়োজন।

বয়স ৪০ পেরিয়ে গেলেও এখনো বলিউডের অনেক হিরোই নিজেদের টগবগে তারুণ্য বজায় রেখেছেন। সেই নব্বই দশকের শাহরুখ, সালমান, আমির আর অজয় দেবগনের মত দুই দশকের পুরোনো অভিনেতারাই এখনও বলিউডকে ব্যবসা সফল ভাল ছবি উপহার দিয়ে চলেছেন। এমনকি ৬৪ বছর বয়সী বিগ বি অমিতাভ বচ্চনও এখনো সমানে নিজের ছক্কা হাঁকিয়েই চলেছেন। চার দশক পুরোনো এই অভিনেতা এখনো বিভিন্ন ছবিতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন। সম্প্রতি ‘বুদ্ধা হোগা তেরা বাপ’ ছবিতে নিজের দুর্দান্ত পারফরমেন্স দেখিয়ে প্রমান করেছেন তার তারুণ্য। শিগগির বিগবি ভক্তদের সামনে সেই তারুণ্য নিয়েই উপস্থিত হচ্ছেন ‘আরাকশান’ ছবিতেও। সেই সঙ্গে বহুল জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো ‘কৌন বানেগা ক্রোড়পতি’ এর পঞ্চম সেশনেও বরাবরের মত নিজের কৃতিত্ব দেখাতে আসছেন অমিতাভ বচ্চন।


বিগ বি অমিতাভ ছাড়াও অনিল কাপুর, সঞ্জয় দত্ত, শাহরুখ খান, আমির খান, সালমান খান, অজয় দেবগন, সাঈফ আলি খান আর অক্ষয় কুমারের মত ৪০ পার হওয়া অভিনেতারাই এখনো বলিউডে পরিচালকদের পছন্দের তালিকার শীর্ষে থাকেন। এইসব সুপারস্টারদের কথা মাথায় রেখেই পরিচালকরা তাদের ছবির কাহিনী ও বাজেটের তালিকা নির্ধারন করে থাকেন। কখনো অভিনেতা, কখনো পরিচালক, কখনো প্রযোজক, কখনোবা নিজ কন্ঠে গান গেয়ে এই জনপ্রিয় অভিনেতারা বারবার চমকে দিয়েছেন অসংখ্য ভক্তকে।

৪৫ বছর বয়সী সালমান খান এখনও বলিউডে অবস্থান করছেন শীর্ষ তালিকায়। ৫০ কোটি রূপীতে পৌছে গেছে তার পারিশ্রমিকের পরিমাণ। গেল বছরের বক্স অফিসের সবচেয়ে ব্যবসা সফল ছবি ‘দাবাঙ্গ’-এর পর চলতি বছর সাফল্য আরেকবার তার হাতে ধরা দিয়েছে ‘রেডি’ ছবিটিতে। এ বছরই সালমান প্রথমবারের মত যৌথ প্রযোজনায় ‘চিল্লার পার্টি’ ছবিটির মুক্তি দিয়েছেন। ভক্তদের আনন্দ দেওয়ার জন্যে তার ‘বডিগার্ড’ ছবিটি এখন মুক্তির অপেক্ষায় আছে। যা আবারো বক্স অফিসে তুমুল ব্যবসা করবে বলে মনে করছেন অনেকেই।

বলিউড বাদশা শাহরুখ খান ‘মাই নেম ইজ খান’ ছবিটির মাধ্যমে ২০১০ সালে পেয়েছেন বিশাল সাফল্য। ঐতিহাসিক নাইন এলিভেনে ধর্মীয় অসম্যতার প্রেক্ষাপটে একটি ভিন্নধর্মী প্রেমের কাহিনী নিয়ে ছবিটি পরিচালনা করেছেন করন যোহর। ছবিটি এতটাই জনপ্রিয় হয়েছে যে প্রথম সপ্তাহেই বিশ্ব জুড়ে এটি ১৮ মিলিয়ন ব্যবসা করে। এ বছর নিজের হোম প্রোডাকশনের ‘রা ওয়ান’এবং ফারহান আক্তারের ‘ডন টু : দি কেস কনটিনিউ’ নামে কিং খানের বড় বাজেটের দুইটি ছবি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে।
বলিউডের আরেক দূর্দান্ত হিরো আমির খান। ৪৬ বছর বয়সী এই অভিনেতা কেবল অভিনয় করেই নয়, ছবি পরিচালনা ও ছবি প্রযোজনা করেও বলিউড ফিল্মডোমে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছেন। বয়সের ভারে হয়তো নিজের কলেজ বয় লুক হারিয়ে ফেলেছেন. তবে তারুণ্যের উদ্যমতা এখনও ধরে রেখেছেন আমির খান। ২০০৯ সালের ‘থ্রি ইডিয়েটস্’, ২০১০ সালের ‘পিপলি লাইভ’এবং সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া ছবি ‘দিল্লি বেলি’ তে আমিরের কাজ দর্শকদের কাছে এতটাই জনপ্রিয়তা পেয়েছেন যে তাকে এখন মিস্টার পারফেকটশনিষ্ট বলে আখ্যায়িত করা হয়।

৪২ বছর বয়সী আরেক অভিনেতা অজয় দেবগন তার অভিনয় ক্ষমতার দুর্দান্ত  প্রমান এখনও দিয়ে চলেছেন। সিরিয়াস মুভি ‘ওয়ানস আপুন এ টাইম ইন মুম্বাই’এবং কমেডি মুভি ‘গোলমাল থ্রি’ তে অভিনয় করে অজয় বুঝিয়েছেন বলিউডতে তার আরো অনেক দেওয়ার আছে। দুটি ছবিই বক্স অফিসে সুপারহিট ব্যবসা করেছে। সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া তার অ্যাকশনধর্মী ছবি ‘সিঙ্গাম’, এটিও বক্স অফিসে তুমুল সাড়া জাগিয়েছে।

গেলো বছর ৪০-এ পা রাখা বলিউডের ছোটে নবাব সাঈফ আলি খান ‘আরাকশান’ নামের একটি সিরিয়াস মুভিতে একজন ডেলিট স্কুল টিচারের চরিত্রে অভিনয় করছেন। এছাড়া তার নিজের হোম প্রোডাকশনের আওতায় ‘এজেন্ট ভিনোদ’ নামের মুভিটি মুক্তির অপেক্ষায় আছে। ছবিটিতে দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষনের মত অসম্ভব সুন্দর পারফরমেন্স দেখা যাবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

বলিউডের ডানপিটে অভিনেতা অক্ষয় কুমারের জন্যে ২০১০ সাল খুব একটা ভালো না গেলেও তার খ্যাতির পরিমান বিন্দুমাত্র কমে যায়নি। এ বছর তার ‘খাট্টা মিট্টা’, ‘অ্যাকশন রিপপ্লে’, ‘তিশ মার খান’,’পাটিয়ালা হাউজ’ এবং ‘থ্যাংক ইউ’ ছবিগুলো তেমন ব্যবসা করতে না পারলেও পরিচালক সাজিদ খানের ‘হাউজ ফুল’ ছবিটি বক্স অফিসে দারুণ ব্যবসা করে। ৪৪ বছর বয়সী এই অভিনেতার ‘দেশী বয়েজ’, ‘জোকার’, ‘হাউজ ফুল টু’ এবং কানাডিয়ান ফিল্ম ‘ব্রেক আওয়ে’ সহ বেশ কিছু ছবি আগামি বছর মুক্তির অপেক্ষায় আছে। আশা করা যাচ্ছে, এই ছবিগুলোর সাফল্যের মাধ্যমে অক্ষয় আবারো নিজের অবস্থানে ফিরে আসবেন।

৪০ উর্দ্ধ অভিনেতাদের সাফল্যের এই দৌড়ে ৫১ বছর বয়সী অনিল কাপুর আর সঞ্জয় দত্তও পিছিয়ে নেই। সঞ্জয় দত্তের ‘ডাবল ধামাল’ ছবিটি বক্স অফিসের একটি ব্যবসা সফল ছবি। অন্যদিকে অনিল কাপুর ‘মিশন ইমপোসিবল-গোষ্ট প্রোটোকল’ এর মত সম্মানজনক প্রজেক্টে কাজ করে আর্ন্তজাতিক অঙ্গনে নিজের খ্যাতি ধরে রেখেছেন।

রোমান্টিক থেকে শুরু করে কমেডি চরিত্রে অভিনয়ের ব্যাপারে বলিউডের এই উর্দ্ধ ৪০ অভিনেতারা বরাবরই পারদর্শী। তাই সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাদের সবার বয়স যেন মোটেও বাড়ছে না, বরং আশ্চর্য ক্ষমতাবলে তারা বয়সটাকে থামিয়ে রেখেছেন।

বাংলাদেশ সময় ১৩২০,আগস্ট ০৪,২০১১
 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2011-08-04 04:18:23