bangla news

সামিহার রোদেলা দিন

তৃণা শর্মা, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৯-১৬ ২:০২:০৪ এএম
সামিহা, ছবি-নূর, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সামিহা, ছবি-নূর, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হাসলে গালে টোল পড়ে, এজন্যই এক লাখ টাকা উপহার পেয়েছিলেন সামিহা। পুরো নাম সামিহা হোসেন খান। ২০১২ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতার ঘটনা এটি। এতে দ্বিতীয় রানারআপও হন তিনি। এর মাধ্যমেই পরিচিতি ছড়িয়ে পড়েছে তার। সেই থেকে অভিনয় করছেন তিনি।

হাসলে গালে টোল পড়ে, এজন্যই এক লাখ টাকা উপহার পেয়েছিলেন সামিহা। পুরো নাম সামিহা হোসেন খান। ২০১২ সালে ‘লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার’ প্রতিযোগিতার ঘটনা এটি। এতে দ্বিতীয় রানারআপও হন তিনি। এর মাধ্যমেই পরিচিতি ছড়িয়ে পড়েছে তার। সেই থেকে অভিনয় করছেন তিনি।
 
সুন্দরী প্রতিযোগিতায় নাম লেখালেও সামিহা বরাবরই চাইতেন ভালো চাকরি করবেন। স্কুলে পড়ার সময় প্রিয় বিষয় ছিলো অর্থনীতি। বড় হয়ে অর্থনীতিবিদ হওয়ার ইচ্ছা ছিলো তার। উচ্চমাধ্যমিক পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন ভারতের জলপাইগুড়িতে। এরপর দেশে ফিরে স্নাতকে ভর্তি হন। পাশাপাশি কাজ করছেন ছোটপর্দায়।
 সামিহার কয়েকটি ধারাবাহিক নাটক প্রচার হচ্ছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে। এর মধ্যে রয়েছে অঞ্জন আইচের পরিচালনায় ‘মেঘের উপর মেঘ জমেছে’, মারুফ মিঠু পরিচালিত নাটক ‘বউ বকা দেয়’। একুশে টিভির রূপসজ্জা বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘রূপ লাবণ্য’র উপস্থাপিকা হিসেবেও দেখা যায় তাকে। ছোটবেলায় নাচ-গান শিখলেও নাচের প্রতি তার খুব আগ্রহ। ফলে নিয়মিত নাচের অনুষ্ঠান করেন তিনি।

চার বছরে সামিহার কাজের সংখ্যা হাতেগোনা। সমসাময়িকদের তুলনায় তা অনেক কম। এর কারণ স্পষ্ট করে তিনি বললেন, ‘আমি আসলে প্রথম থেকে সব কাজ করতাম না। বেছে বেছে কাজ করায় এখন আর গড়পড়তা কাজ করতে পারি না। এ নিয়ে আমার কোনো আক্ষেপ নেই।’
 
ছোটপর্দার পাশাপাশি সামিহা অভিনয় করেছেন বড়পর্দার জন্যও। মিজানুর রহমান লাবুর পরিচালনায় ‘তুখোড়’ নামের একটি ছবিতে দেখা যাবে তাকে। এটি মুক্তি পাবে কবে তা জানতে চাইলে বাঁকা হাসি হেসে তিনি বলেন, ‘আমার ছবি হলেও এটা আমিই জানি না! প্রযোজকরা জানিয়েছেন, পোস্টের কাজ নাকি বাকি আছে।’
 
ইদানীং কয়েকজন অভিনেত্রী কলকাতা কিংবা যৌথ প্রযোজনার ছবিতে কাজ করেছেন। সামিহার এমন ইচ্ছে করে না? ‘আমি বেড়ে উঠেছি জলপাইগুড়িতে। আর সাগর জাহানের ‘সিকান্দার বক্স’ সিরিজের নাটকে অভিনয়ের সুবাদে ওপার বাংলার মানুষ আমাকে চেনেন। বেশকিছু ফটোশুট করেছি ওখানে। ভালো কাজের প্রস্তাব এলে কলকাতায় কাজ করবো। ওদের কাজ ভালোই লাগে’- বললেন এই তরুণী অভিনেত্রী।
 কাজের সংখ্যা খুব কম। বিশেষ দিনেও তেমন একটা দেখা যায় না সামিহাকে। তার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কেমন? মিষ্টি করে হেসে বললেন, ‘চাইলে প্রথম থেকেই অনেক কাজ করতে পারতাম। পর্দায় কাজ করতে ভালোও লাগে, কিন্তু তা মাঝে মধ্যে। বেশি ভালো লাগে কর্পোরেট চাকরি। তাই উচ্চশিক্ষার জন্য দেশের বাইরে যাওয়ার চেষ্টা করছি। উচ্চশিক্ষা লাভের পর কর্পোরেট চাকরিতে মনোযোগ দিতে চাই।’
 
বাংলাদেশ সময়: ১১৫৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৬
টিএস/জেএইচ/এসও 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2016-09-16 02:02:04