bangla news

ও ফ্যানিরে…

2900 |
আপডেট: ২০১৪-০৯-১৭ ১১:০৫:০০ এএম
দীপিকা পাড়ুকোন ‌ও অর্জুন কাপুর

দীপিকা পাড়ুকোন ‌ও অর্জুন কাপুর

অর্জুন কাপুরের অদ্ভূত এক শখ। মানুষের দাঁতের মাড়ি সংগ্রহ করে কাঁচের বোতলে ভরে। এ কী আজব শখ রে বাবা! বাস্তবে নয় কিন্তু। নতুন ছবি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’-তে এমন কাজকর্ম করতে দেখা যাচ্ছে অর্জুনকে।

অর্জুন কাপুরের অদ্ভূত এক শখ। মানুষের দাঁতের মাড়ি সংগ্রহ করে কাঁচের বোতলে ভরে। এ কী আজব শখ রে বাবা! বাস্তবে নয় কিন্তু। নতুন ছবি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’-তে এমন কাজকর্ম করতে দেখা যাচ্ছে অর্জুনকে।

‘একজন ডাকপিয়নের গল্প শুনেছিলাম আমি। এগারো বছর ধরে হাজতে সাজা কাটছে সে। তার অপরাধ- একটি চিঠি সে সময়মতো পৌঁছে দেয়নি। এ কাহিনী শোনার পরেই ছবির গল্পটা আমার মাথায় এলো।’ নতুন ছবি ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ নিয়ে এমনটাই বলছিলেন পরিচালক হোমি আদাজানিয়া।

এটি তার তৃতীয় ছবি। প্রথমটি ‘বিং সাইরাস’ মুক্তি পেয়েছে ২০০৬ সালে। ২০১২ সালে হলে আসে ‘ককটেল’।

এ তো গেলো ছবি আর পরিচালকের কথা। যাদের নিয়ে এ ছবি, তাদের কথাও তো কিছু বলতে হয়, নাকি? চলতি বছরেই এর আগে দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছে দীপিকা পাড়ুকোনের। দু’টিতেই প্রশংসিত হয়েছে তার অভিনয়। প্রথমটি ‘কোচাদাইয়্যা’। এতে তার সহশিল্পী দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্ত। শাহরুখ খানের সঙ্গে ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ আছে হলের মুখ দেখার প্রতীক্ষায়।

‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’-তে দীপিকার সহশিল্পী অর্জুন কাপুর। ‘গুন্ডে’ ও ‘টু স্টেট’-এর পর এ বছর এটি তার তৃতীয়। তবে অর্জুন-দীপিকা এবারই প্রথম পর্দা মাতাচ্ছেন ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ দিয়ে।

পোকোলিমা নামের একটি গ্রামের বাসিন্দাদের অদ্ভূত সব কান্ড-কীর্তি নিয়ে ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’। অ্যাডভেঞ্চার আছে, রয়েছে হাসির চোরাস্রোতে খিল ধরে যাওয়ার সম্ভাবনা। একটাই যা সমস্যা- ভাষা হিন্দি নয়, ইংরেজি। অবশ্য নির্মাতা বলছেন, ‘ভাষা ইংরেজি হলেও, সেটি এমনভাবে বলা হয়েছে যে দর্শকদের না বোঝার কথা নয়। ইংরেজিটা একদম দেশি কায়দায় বলা হয়েছে।’

সবই তো বলা হলো, এবার কাহিনীর দিকে একটু নজর দেয়া যাক। গ্রামের এক বৃদ্ধ ডাকপিয়ন ফ্রেডি। তার পুরনো প্রেমিকাকে খুঁজে বের করার জন্য এগিয়ে আসে যুবতী বিধবা অ্যাঞ্জি। ফ্রেডি হতাশ। সে জানতে পারে ৪৬ বছর আগে তার প্রেমিকা স্টেফানি ফার্নান্ডেজকে লেখা একটি চিঠি আজও পৌছায়নি। এই প্রেমিকাকেই ফ্রেডি ভালবেসে ডাকত ফ্যানি বলে। শুরু হয় ফ্যানিকে খোঁজার মিশন। এ মিশনে অ্যাঞ্জি তার শাশুড়ি রোজিকেও যুক্ত করে। এরই মধ্যে ঘটনা আরেকটা ঘটে। অ্যাঞ্জির পুরনো প্রেমিক ফিরে আসে গ্রামে। সেই-ই তাদেরকে গাড়িতে তুলে বেড়িয়ে পড়ে ফ্যানির খোঁজে। কারন স্যাভিও ছাড়া তাদের মধ্যে কেউ গাড়ি চালাতে পারেনা। সেই গাড়িটি কিন্তু স্যাভিওর নয়, চিত্রশিল্পী ডন পেড্রোর। সে আবার রোজির প্রতি দূর্বল। পাঁচজনের লম্বা সফরে একে একে বেরুতে থাকে অনেক সত্য।

তবে ছবির গল্প যতোটা না ভিন্ন, তার চেয়ে বেশি ভিন্নতা আছে অভিনেতা-অভিনেত্রীর তালিকায়। বলা হচ্ছে- নাসিরউদ্দিন শাহ, পঙ্কজ কাপুর ও ডিম্পল কাপাডিয়ার কথা। এই প্রথম কোনো বলিউডি ছবিতে একসঙ্গে তাদেরকে দেখা যাবে। ফ্রেডির চরিত্রে নাসিরউদ্দিন শাহ, চিত্রকর ডন পেড্রোর চরিত্রে পঙ্কজ কাপুর, আর রোজি হিসেব ডিম্পল কাপাডিয়া- প্রত্যেকেই নিজের জায়গায় সফল।

রইলো বাকি দুই। দীপিকা পাড়ুকোন ও অর্জুন কাপুর। তাদের অভিনয় নিয়ে আলাদা করে কিছু বলার দরকার আছে? যেখানেই হাত দেন যাদু ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’-তে দীপিকার অ্যাঞ্জি চরিত্রটি এমন যে ক্ষণিকেই ভালো লেগে যাবে তাকে। অর্জুন কাপুরের চলাফেরার মাঝে সাবলীলতা আছে। এতেও সেটা চুটিয়ে ব্যবহার করতে পেরেছেন তিনি।

সবমিলিয়ে ছবির কলাকুশলীদের পরিশ্রম বিফলে যায়নি। বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে। টুইটারে অমিভাভ বচ্চন লিখেছেন, ‘কি দূর্দান্ত আনন্দময় জীবনের গল্প তুলে ধরা হয়েছে ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ ছবিতে। সাবাশ নাসির, ডিম্পল, পঙ্কজ, দীপিকা ও অর্জুন… শুভকামনা!’ করণ জোহর বলেছেন, ‘বলিউডে এই ইংরেজি ভাষার ছবিটি চলচ্চিত্র নির্মানকে আরোও উদ্বুদ্ধ করবে।’ ৫ অক্টোবর ১৯তম বুসান ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে দেখানো হবে ছবিটি।

অপ্রয়োজনীয় কোনো গান নেই এতে। মাত্র তিনটি গান। ‘ও ফ্যানিরে’, ‘শেক ইওর বুটিয়া’ ও ‘ডিং ডং’। লিখেছেন শচীন-জিগার, অ্যালান মার্চার ও ডিনো। সংগীত পরিচালনা করেছেন ম্যাথিয়াস ডুপ্লেসি ও সচীন-জিগার।

ট্রেলার প্রকাশের পর বেশ সাড়া ফেললেও শেষমেষ তেমন ভালো ব্যবসা হয়নি। ১২ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাওয়ার পর ৩৭ কোটি রুপি বাজেটের এই ছবির ছয়দিনের আয় ২৮ কোটি ৭৫ লাখ রুপি।

সমালোচকরা বলছেন, ১০০ কোটি ও ২০০ কোটির এই রোমান রাজত্বে মস্তিষ্কহীন ছবির সঙ্গে দৌড়ে পেড়ে ওঠেনা ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’র মতো স্বল্প বাজেটের ছবি। যারা বাধাধরা নিয়মের বাইরে গিয়ে বানাতে চান, তারা এমন ইংরেজি ভাষার মিশ্রনে ছবি বানিয়ে হোমি আদাজানিয়ার এই রীতি ধরে রাখতে পারেন।
আর যারা কোটি কোটি রুপির চিন্তা বাদ দিয়ে ভালো ছবি উপভোগ করতে চান, তারা স্বচ্ছন্দে দেখে ফেলতে পারেন ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’।

* ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ ছবির ‘ও ফ্যানিরে’ গানের ভিডিও লিংক


* ‘ফাইন্ডিং ফ্যানি’ ছবির ‘শেক ইওর বুটিয়া’ গানের ভিডিও লিংক


বাংলাদেশ সময় : ২০৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-09-17 11:05:00