ঢাকা, শুক্রবার, ৮ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৩ জুলাই ২০২১, ১২ জিলহজ ১৪৪২

তারার ফুল

সেদিন তারা ভরা রাতে...

কামরুজ্জামান মিলু, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১৬ ঘণ্টা, আগস্ট ৬, ২০১৪
সেদিন তারা ভরা রাতে... ছবি: নূর / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

তারা ভরা রাত। সুরের মূর্ছনা ছড়াতে এলো এলআরবি।

দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ডটি পেয়েছে নতুন মাত্রা। আইয়ুব বাচ্চু, স্বপন, মাসুদ ও রোমেলকে ছাপিয়ে সেদিন মধ্যমণি হয়ে উঠলেন আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুব নামের এক তরুণ। তিনি গিটার জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে। বাবার আদরের তাজো।

তিন দিনের বামবা-যমুনা ঈদ কনসার্টের সমাপনী আয়োজনে তাজো দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যান্ড এলআরবির সঙ্গে তাল মিলিয়ে গিটার বাজিয়ে জানান দিয়েছেন, সংগীতে তার দক্ষতা কম নয়। দর্শক-শ্রোতারা অনুষ্ঠানের শেষ পর্যন্ত উপভোগ করেছেন তার পরিবেশনা। অনেক দর্শক পাশ থেকে বলেই ফেললেন- যেমন বাবা, তেমনি তার উত্তরসূরী!

গিটারের মূর্ছনায় ভিন্ন এক মুগ্ধতা ছড়িয়েছিলেন তাজো। তার প্রতি দর্শকের করতালিতে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন বাবা। তখন তার চোখে-মুখে আনন্দের আভাস। দর্শক-শ্রোতাদের মন বলছিল, এই রাত যদি না শেষ হয়! ঈদ কনসার্টে পুত্রের অভিষেকের অনুভ‚তি প্রকাশ করতে গিয়ে আইয়ুব বাচ্চুর চোখের কোণে আনন্দাশ্রæ নজর এড়ায়নি কারও। তিনি বলেছেন, ‘এ দেশে সংগীতের পথটা অনেক নির্মম। অনেক যন্ত্রণা বুকে চেপে বহু বছর ধরে গান করে যাচ্ছি। তবে আমি চাই না, তাজো গান-বাজনাকে পেশা হিসেবে নিক। ’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ছেলে আজ আমার পাশে দাঁড়িয়ে বাজিয়ে যাচ্ছে অনর্গল। একজন পিতা হিসেবে এর চেয়ে সুখের ঘটনা কী হতে পারে! আজ সত্যিই আমি পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ সুখী বাবা হিসেবে দাঁড়িয়ে আছি আপনাদের সামনে। তবুও আমি চাই না পেশা হিসেবে সংগীত বেছে নিক তাজো। যতদিন এই শিল্প নিয়মের মধ্যে আসবে না ততদিন শৌখিনভাবেই গান করাই ভালো ওর জন্য। ’

বাবার কিংবা মায়ের হাত ধরে সংগীতাঙ্গনে হেঁটেছেন অনেকেই। এর মধ্যে অনেকে সফলতা পেয়েছেন। তবে আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুবের বেলায় ঘটনাটা একটু ভিন্ন। কারণ বাবা কখনও চাননি ভবিষ্যতে ছেলে গিটার বাজানোকে পেশা হিসেবে নেবে। তিনি সবসময়ই চাইতেন, তার আদরের তাজো শৌখিনভাবে গিটার বাজাবে। কারণ একটাই, দেশীয় সংগীতাঙ্গনের নতজানু পরিস্থিতি।

মাত্র ১৬ বছর বয়সী আহনাফ এখন পড়াশোনা করছেন ও’লেভেলে। প্রায় আট বছর ধরে বাবার কাছে গিটার শিখছেন। তাকে তালিম নিতে সহযোগিতা করছেন এলআরবির আরেক মেধাবী গিটারিস্ট মাসুদও। জানা গেছে, এখন থেকে এলআরবির বিশেষ কনসার্টগুলোতে চাইলে বাজাতে পারবে তাজো। বাবা তার ছেলেকে উপযুক্ত না করে তার পাশে দাঁড়িয়ে বাজানোর সুযোগ দিতে চাননি কখনও। এই দিনের জন্য প্রায় আট বছর অপেক্ষা করেছেন তাজো। ঈদ কনসার্টে সংগীত পরিবেশনের প্রস্তুতি হিসেবে পরপর দুই দিন টানা কয়েক ঘণ্টা এলআরবির সঙ্গে অনুশীলন করেছেন এই তরুণ।

গিটার জাদুকরের ছেলের গল্প হয়তো এখানেই শেষ নয়। বলা ভালো তার যাত্রা শুরু হলো। আগামী দিনগুলোতে হয়তো আবার তাদের একসঙ্গে বাজাতে দেখা যাবে, অন্য কোনো তারা ভরা রাতে...

* এলআরবিতে আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে

বাংলাদেশ সময় :  ২২০৫ ঘণ্টা, আগস্ট ০৬, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa