bangla news

রাঙাতে এলেন শেলিন

1886 |
আপডেট: ২০১৪-০৬-১৮ ১:১৯:০০ পিএম

বয়স মাত্র ২২ বছর, এইটুকু বয়সেই টানা দুই ছবিতে বাজিমাত করে দিলেন শেলিন উডলি। মার্চে 'ডাইভারজেন্ট' বক্স অফিসে সাড়া জাগিয়েছিল, আর গত ৬ জুন মুক্তি পাওয়া তার নতুন ছবি ‘দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস’ এখন আছে হলিউড টপচার্টের শীর্ষে।

বয়স মাত্র ২২ বছর, এইটুকু বয়সেই টানা দুই ছবিতে বাজিমাত করে দিলেন শেলিন উডলি। মার্চে 'ডাইভারজেন্ট' বক্স অফিসে সাড়া জাগিয়েছিল, আর গত ৬ জুন মুক্তি পাওয়া তার নতুন ছবি ‘দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস’ এখন আছে হলিউড টপচার্টের শীর্ষে।

এগুলোতে যে শেলিন শুধুই সুন্দর মুখের সুবাদে ছবির অলঙ্কার হিসেবে আছেন তা কিন্তু না। দুটোতেই তার চরিত্র চ্যালেঞ্জিং। প্রথমে ‘দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস’-এর গল্প শুনুন। হেজেল ও অগাস্টাস ওরফে গাসের মধ্যে বুদ্ধিবৃত্তিক মিল অনেক। হেজেল স্টেজ ফোর থাইরয়েড ক্যান্সারে ভুগছে, অক্সিজেন মাস্ক তার সার্বক্ষণিক সঙ্গী। গাসও ক্যান্সারের রোগী। একসময় সে কৃতী বাস্কেটবল খেলোয়াড় ছিল। কিন্তু পায়ে ক্যান্সার ধরা পড়তেই তার স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত হয়। অস্টিওসারকোমার জন্য তার ডান পা কেটে ফেলতে হয়। এখন প্রসথেটিক পায়ে ভর করেই তাকে চলতে হয়। এক ক্যান্সার সাপোর্ট গ্রুপে দেখা হওয়ার পর হেজেল ও গাস একে অপরের প্রেমে পড়ে। ছবিটিতে হেজেল চরিত্রে দেখা গেছে শেলিনকে। বুঝুন এ ধরনের চরিত্র পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে কতটা পরিশ্রম করতে হয়েছে। এই চরিত্রে কাজ করার সুবাদে আগামী বছর পুরস্কার অনুষ্ঠানগুলোতে শেলিনের হাতে সেরার স্বীকৃতি উঠলে অবাক হওয়ার কিছুই থাকবে না।

জন গ্রিনের লেখা তরুণ-তরুণীদের উপযোগী উপন্যাস ‘দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস’ অবলম্বনে তৈরি হয়েছে জশ বুন পরিচালিত ছবিটি। ১ কোটি ২০ লাখ ডলার বাজেটের ছবিটি এরই মধ্যে আয় করেছে ৮ কোটি মার্কিন ডলার। শেলিনের আগে হেইলি স্টেইনফেল্ড, লিয়ানা লিবারেটো ও ম্যারি কেট ওয়াইলসের কথা ভাবা হয়েছিল। কিন্তু পরিচালক জশ বুন পাকা জহুরির মতো হীরে চিনতে ভুল করেননি। অনেক সমালোচকের মতে, এ চরিত্রে শেলিনকে ছাড়া কেউই ভালো মানিয়ে যেতেন না।

লেখক জন গ্রিন ও পরিচালক জন বুনকে এক চিঠিতে শেলিন লিখেছিলেন, 'যদি কোনো কিছুর প্রতি আমার অনুরাগ জন্মে, তাহলে তার অংশ হতে সবকিছু করতেই প্রস্তুত থাকি। তিনি কথা রেখেছেন। 'ডাইভারজেন্ট'-এর দ্বিতীয় কিস্তির জন্য লম্বা চুল প্রয়োজন হলেও 'দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস' ছবির জন্য তাকে চুল কাটাতে হয়েছে। কারণ পরচুলা পরে অভিনয়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছিলেন না তিনি। শেলিন এখন ব্যস্ত 'ডাইভারজেন্ট'-এর দ্বিতীয় কিস্তি 'ইনসার্জেন্ট' ছবির কাজ নিয়ে।

এবার জেনে নিন 'ডাইভারজেন্ট'-এর গল্প। এতে সাহসী মেয়ে ট্রিস চরিত্রে অভিনয় করেছেন শেলিন উডলি। সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করা ও বিপজ্জনক সব কাজে অংশ নেওয়ার মানসিকতা নিয়ে চলে মেয়েটি। মজার বিষয় হলো 'ডাইভারজেন্ট'-এ শেলিন ও অ্যানসেল এলগর্ট অভিনয় করেছেন ভাইবোনের ভূমিকায়। আর 'দ্য ফল্ট ইন আওয়ার স্টারস'-এ তারা প্রেমিকা-প্রেমিকা!

মার্কিন এই অভিনেত্রী তিন বছর আগে জর্জ ক্লুনির মতো হেভিওয়েট তারকার পরিচালনায় তারই সঙ্গে অভিনয় করেছেন 'দ্য ডিসেন্ড্যান্টস' ছবিতে। ওই ছবি তাকে বেশ কিছু পুরস্কার ও মনোনয়ন এনে দিয়েছিল। শেলিন উডলিকে বলা হচ্ছে নতুন 'জেনিফার লরেন্স'। 'হাঙ্গার গেমস' সিরিজের সাহসী তরুণী ক্যাটনিস এভারডিন চরিত্রে ভাবা হয়েছিল লরেন্স ও শেলিন দু'জনকেই। মজার বিষয় হলো, 'ডাইভারজেন্ট' ছবিতে কাজের জন্য শেলিনকে উদ্বুদ্ধ করেছেন অস্কারজয়ী লরেন্সই। তার কাছ থেকেই ছবিটিতে অভিনয়ের পরামর্শ নিয়েছেন শেলিন। ২২ বছর বয়সী এই তারকা বলেন, 'তাকে একটি ই-মেইল পাঠিয়েছিলাম। মুক্ত চলচ্চিত্রে অভ্যস্ত হয়ে ওঠার পরও হাঙ্গার গেমসের মতো বাণিজ্যিক ছবিতে তিনি কাজ করেছেন বলে আমার কৌতূহল জেগেছিল।' উত্তরে লরেন্স বলেছিলেন, 'বোকামি করবে না। মাদক নেবে না, অশ্লীল ভিডিও বানাবে না। নিজের ছবি মুক্তির দিন গলা পর্যন্ত খাবে না কিংবা মদ্যপান করবে না।'

শেলিনের জন্ম ক্যালিফোর্নিয়ার সিমি ভ্যালিতে। তার মা লরি স্কুলের কাউন্সেলর আর বাবা লনি উডলি ছিলেন স্কুলের প্রিন্সিপাল। চার বছর বয়সেই মডেলিংয়ে অভিষেক হয় শেলিনের। মেয়ের বয়স যখন ১৫, লরি ও লনির বিয়ে বিচ্ছেদ হয়। 'দ্য সিক্রেট লাইফ অব দ্য আমেরিকার টিনএজার' ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পাওয়ার আগে নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটিতে ইন্টেরিয়র ডিজাইন বিষয়ে পড়তে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু নিয়তি তার জন্য বরাদ্দ রেখেছিল রূপালি দুনিয়া। এখন সেই দুনিয়াই রাঙিয়ে চলেছেন শেলিন উডলি। 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2014-06-18 13:19:00