ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯
bangla news

টিভি কিউ : নির্বাচিত অনুষ্ঠান

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৭-১১ ১২:১৩:৫২ এএম

এটিএন বাংলায় ১২ জুলাই সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে প্রচারিত হবে বাংলায় ডাবিংকৃত টিভি সিরিজ ‘দি লস্ট ওয়ার্ল্ড’।

বাংলায় ডাবিংকৃত দি লস্ট ওয়ার্ল্ড
এটিএন বাংলায় ১২ জুলাই সোমবার সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে প্রচারিত হবে বাংলায় ডাবিংকৃত টিভি সিরিজ ‘দি লস্ট ওয়ার্ল্ড’। বিখ্যাত ঔপন্যাসিক স্যার আর্থার কোনান ডয়েলের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত সিরিজটি প্রতি সোমবার প্রচারিত হচ্ছে। বিশ শতকের শুরুতে অসাধ্য সাধন ও প্রতœতাত্ত্বিক গবেষণার জন্য বেশকিছু গবেষণা শুরু হয়েছিল। এই অভিযানও ঠিক তেমনি শুরু হয়েছিল। সেখানে ছিল মৃত্যুর হাতছানি এবং আদিম মানুষদের আবাসভূমি; যেখানে ছিল অলৌকিক শক্তির উৎস আর তাদের রহস্য উদঘাটনের পথ। ভয়ঙ্কর এবং বিশালাকার প্রাণীদের সাথে যুদ্ধ করে বেঁচে থাকতে হয় সেখানে।

চ্যানেল আইতে ব্রান্ড ইয়াদ আলী
চ্যানেল আইতে ১২ জুলাই সোমবার রাত ৭টা ৫০ মিনিটে প্রচার হবে এক ঘণ্টার বিশেষ নাটক ‘ব্রান্ড ইয়াদ আলী’। রচনা ও পরিচালনা করেছেন আবু সুফিয়ান। অভিনয়ে রয়েছেন ইন্তেখাব দিনার, সুমাইয়া শিমু, ফারুক আহমেদ, শবনম পারভীন, ফেরদৌসী লীনা, সাজ্জাদ রেজা, হাসিবুর রহমান সবুজ, গীতা, আমিনুল ইসলাম আকাশ, শিউলী, দিপ্তি, খলিল প্রমুখ।


গল্প : প্রতারক চক্র সাধারণ মানুষকে কতভাবে আক্রান্ত করতে পারে তার কিছু কৌশল এ নাটকে দেখানো হয়েছে। ইয়াদ আলী সৈকত ও ইয়াদ আলী স্থলপথ এরা দুজন ঘটক। আর তাদের কনে সদস্য ম্যাডাম ওমরাও জান । এ গ্রুপের প্রধান তিন সদস্যর ল্য মানুষকে বোকা বানিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া। তাদের ল্যস্থান কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে যাওয়া সাধারণ মানুষ। সেখানে তারা নানা কৌশলে মানুষকে ঠকানো শুরু করে।   

ধারাবাহিক নাটক ছন্নছাড়া
এটিএন বাংলায় ১২ জুলাই সোমবার রাত ৮টায় প্রচার হবে ধারাবাহিক নাটক ‘ছন্নœছাড়া’র ২০তম পর্ব। নজরুল ইসলামের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করছেন হাসনাত করিম পিন্টু। অভিনয় করেছেন হুমায়ুন ফরিদী, চ্যালেঞ্জার, রহমত আলী, তরু মোস্তফা, রুনা খান, তারিক স্বপন, সুজানা, রূপক, উপমা, সুভাশিষ, রুমি, জুয়েল, ইকবাল, দিপু, পুষ্পিতা, তাসমী এবং জাহিদ হাসান।


গল্প: ছন্নছাড়া জীবন সবার পছন্দ না হলেও, টিংকুর ছন্নছাড়া জীবনটাকে পছন্দ করে না এমন কেউ নেই। টিংকুর জীবনটাই এমন। আজ এখানে তো কাল সেখানে। কখনো নিছক মনের খেয়ালে, কখনো জটিল সমস্যা সমাধানে। আর জটিল কোনো সমস্যা সমাধানে বাধার সম্মুখীন হলেই ধ্যানে বসে টিংকু। টিংকুর আবার স্থায়ী ঠিকানাও নেই, মামার বাড়িতে আশ্রিত। মামাতো ভাই মিশু আর দুই বোন মৌরী, মৌটুসী টিংকুর দারুণ ভক্ত হলেও গোয়ারগোবিন্দ মামা কিছুতেই টিংকুকে মানতে পারে না। তার দৃঢ় বিশ্বাস টিংকুর ছন্নছাড়া জীবনের প্রভাব তার সন্তানদের ওপর পড়ছে। এ কারণে মামার রোষানলে পড়ে টিংকু মাঝেমধ্যেই আশ্রয়হীন হয়ে পড়ে। তাতে তার কিছু যায় আসে না। যে কোনো পরিবেশে মানিয়ে নেওয়ার অসম্ভব মতা আছে তার। কিন্তু মানতে পারেনা লুবাবা, যার সাথে টিংকুর সব দিক থেকেই অনেক ব্যবধান। তারপরও অসম্ভব ভালোবাসে এই মেয়েটি টিংকুকে। সে চায় টিংকুকে নিয়মতান্ত্রিক জীবনের গন্ডিতে বেঁধে রাখতে।
 
ধারাবাহিক নাটক জলপুকুর

বাংলাভিশনে ১২ জুলাই সোমবার রাত ৮টা ১৫ মিনিটে প্রচার হবে ধারাবাহিক নাটক ‘জলপুকুর।’ পান্থ শাহরিয়ারের রচনা ও ফাত্তাহ তানভীরের পরিচালনায় নতুন এক পরিবারের গল্পে ধারাবাহিকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মামুনুর রশীদ, চাঁদনী, ইন্তেখাব দিনার, ত্রপা মজুমদার, শতাব্দী ওয়াদুদ প্রমুখ।
গল্প : কন্যাবিয়োগের বেদনায় জর্জরিত ফয়জুল্লাহ নানা কৌশলের আশ্রয়ে বাড়িটা বিক্রি করে যায় তার পরিচিত একজনের কাছে। ওরা মাত্র দুজন। স্বামী স্ত্রী। নতুন সংসার, এখনো রোজ সন্ধ্যায় তারা বন্ধুদের নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠে। এমন একটা বাড়ি এত অল্প টাকায় পাওয়া যাবে কখনো ভেবে দেখেনি মলয় ও তার স্ত্রী কুমকুম। আবার সেই পুকুর। এখানেই পা পিছলে পড়ে যায় কুমকুম। নেহাৎ দুর্ঘটনা বলে উড়িয়ে দিত ফয়সাল, যদি না তার স্ত্রী এই ঘটনার পর রোজ রাতে একা একা পুকুর পাড়ে বসে বিড়বিড় করার অভ্যাসটা তৈরি না করত। ফয়সালের মনে সন্দেহ দানা বাঁধে, কখনো নিজের বন্ধুদের নিয়ে, কখনো তার অনুপস্থিতিতে সেই সুদর্শনের আগমন নিয়ে।


বিরক্ত ফয়সাল যেন কিছুতেই নিজেকে এর বাইরে বের করে আনতে পারেন না। অথচ দিনের পর দিন ঘটে যেতে থাকে অস্বাভাবিক ও ভৌতিক ঘটনা, তালগোল পাকিয়ে ফেলে ফয়সাল। দিনের চাইতে রাতগুলো যেন বড় হয়ে দেখা দিতে থাকে আর সমস্ত কিছুর পরিণতিতে এক সংঘাত, কুমকুমের মৃত্যু। আসলে মৃত্যু বললে ভুল বলা হয় কুমকুম খুন হয় মলয়ের হাতে।


বাংলাভিশনে সপ্তাহের প্রতি সোম ও মঙ্গলবার রাত ৮টা১৫ মিনিটে প্রচার হচ্ছে জলপুকুর।

ধারাবাহিক নাটক খোঁয়াড়
দেশ টিভিতে শুরু হয়েছে ধারাবাহিক নাটক ‘খোঁয়াড়’। রচনায় হাফিজ রেদু, পরিচালনায় বিক্রম খান। নাটকটি প্রচারিত হবে প্রতি সোম ও মঙ্গলবার রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে। অভিনয়ে : আমিরুল হক চৌধুরী, আফরোজা বানু, চ্যালেঞ্জার, শিরিন আলম, চঞ্চল চৌধুরী, ফজলুর রহমান বাবু, আ খ ম হাসান, নাজনীন চুমকী, বিনয় ভদ্রসহ আরো অনেকে।


গল্প :  বাকের আল সাতপুরুষ ধরে গ্রামের খোঁয়াড়ের ইজারাদার। পেশাগত পদবির মতই তার নামের শেষে স্থায়ীভাবে যুক্ত হয়েছে ‘খোঁয়াড়ি’ পদবি।  খোঁয়াড়ের ইজারাদারি তাকে যেমন বাকের খোঁয়াড়ি নামে দশ গ্রামে পরিচিতি করেছে,তেমনি খোঁয়াড়ের লাভ-তির ফলাফল তাকে করছে বিত্তের অধিকারী। তাই খোঁয়াড়বন্দি গরু-ছাগলের চিৎকার তার মনের খোরাক, শান্তির গীত আর ঘুমের দাওয়াই। আবার এই খোঁয়াড়ের ভোগান্তিও কম নয়। এজন্য স্ত্রী, সন্তানসহ আত্মীয়-স্বজন তাকে বারবার তাগাদা দেয় খোঁয়াড়ি পেশা ত্যাগ করার জন্য। কিন্তু বাকের খোঁয়াড়ি পূর্বপূরুষের পেশা ছাড়তে নারাজ। একসময় অধৈর্য হয়ে বাকেরের স্ত্রী নূরজাহান, ছেলেদের পছন্দের তিন মেয়ে বকুল, হেনা, বেলী আর নূরা, নবা, নজু একজোট হয়ে শুরু করে গোপন কৌশলে খোঁয়াড় উচ্ছেদের অভিযান। সবাই মিলে একের পর এক ঘটাতে থাকে উদ্ভট আর হাস্যকর নানান ঘটনা।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৯৫০, জুলাই ১১, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-07-11 00:13:52