ঢাকা, রবিবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

বিনোদন

ঈদের আগেই পরবর্তী অ্যালবাম

নামহীন ব্যান্ডদলটির নাম ‘শিরোনামহীন’

কামরুজ্জামান মিলু | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৮ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০১৩
নামহীন ব্যান্ডদলটির নাম ‘শিরোনামহীন’

ঢাকা: গানের মাধ্যমে মানুষের জীবনের গল্প, নাগরিক জীবনের কথা, গানের সাথে গল্প এবং নিজেদের ভাবনা তুলে ধরার প্রয়াসে নিজেদের পঞ্চম অ্যালবাম নিয়ে হাজির হচ্ছে জনপ্রিয় ব্যান্ডদল ‘শিরোনামহীন’।

`শিরোনামহীন`-এর প্রতিটি গানই যেন জীবনের এক একটি গল্প।

যে গল্পটা হয়তো কখনো কাউকে বলা হয়নি। ভক্ত এবং শ্রোতাদের জন্য সুখবর হচ্ছে এবার নিজেদের ব্যান্ডদলের নামেই আসছে তাদের নতুন অ্যালবাম।

বৃষ্টিমাথায় মিরপুরের রুপনগরে হাজির হলেন শিরোনামহীন ব্যান্ডের ভোকাল তুহিন। এর আগে উপস্থিত বেসগিটারিস্ট জিয়া এবং ড্রামার শাফিন। ব্যান্ডের বাকি দুই সদস্য বৃষ্টির কবলে পড়ে আসতে পারেনি। তাতে কি- শুরু করলাম শিরোনামহীনের সাথে নতুন অ্যালবাম এবং নানাবিষয়ে আলাপচারিতা।
sironamhin
শিরোনামহীনের প্রথম অ্যালবাম ‘জাহাজী’ বের হয় ২০০৪ সালে। এরপর এসেছে ইচ্ছে ঘুড়ি, বন্ধ জানালা এবং শিরোনামহীন রবীন্দ্রনাথ।

বর্তমানে পঞ্চম অ্যালবামের কাজ প্রায়ই শেষ করেছেন শিরোনামহীনের সদস্যরা। তাই শুরুতেই জানতে চাইলাম, নিজেদের দলের নামে কেন এবারের অ্যালবাম? উত্তরে জিয়া বাংলানিউজকে বললেন, ‘আমরা বর্তমানে একটি স্বনির্ভর ব্যান্ডদল। একটি অ্যালবাম প্রকাশ করতে যা যা করা দরকার, আমরা তা সবই করতে চেষ্টা করছি। আর বিশ্বের বড় বড় প্রায় সব ব্যান্ডেরই নিজেদের নামে অ্যালবাম রয়েছে। আমরা মনে করেছি, নিজেদের ব্যান্ডের নামে অ্যালবাম করার জন্য এখনই আমাদের উপযুক্ত সময়। তাই এবারে শ্রোতাদের জন্য ঈদের আগেই থাকবে আমাদের এই উপহার। ’

নতুন এ অ্যালবামে গান থাকছে মোট ১০টি। গানগুলোর শিরোনাম হলো- ‘আবার হাসিমুখ’, ‘আহত কিছু গল্প’, ‘কিছুকথা’, ‘বৃষ্টিকাব্য’, ‘পরী’, ‘মিছিল’, ‘চিঠি’, ‘শন শন, যদিও কাশবন’, ‘আতাত‍ায়ী’। দশটি গানের মধ্যে তারা বাকি একটি গানের শিরোনাম এখনও নির্ধারণ করেননি।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘ইনকারশস’-এর ব্যানারে আসবে তাদের নতুন অ্যালবামটি। আর এই দলের আরেকটি সুখবর হলো ‘আবার হাসিমুখ’ গানটির একটি মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করা হয়েছে। যা এমটিভিতে দেখানো হবে। তানিম রহমান অংশুর পরিচালনায় এ মিউজিক ভিডিওতে মডেল হিসেবে তাদের দলের পাশাপাশি দেখা যাবে মডেল অন্তু, পিয়া এবং রেশকে।

শিরোনামহীনের অ্যালবাম এবার সারাবিশ্বে একসাথে প্রকাশ হবে। এ বিষয়ে জিয়া বলেন, ‘আমাদের দেশের অনেক গান বাইরের শ্রোতারা শোনার জন্য পাইরেসির আশ্রয় নেন। আমরা এজন্য এবার আমেরিকার দুটি কোম্পানির সাথে কথা বলেছি। তারা অনলাইনে ২৩টি প্লাটফর্মে সারাবিশ্বে এ গানগুলোর প্রচার করবে। এছাড়া সারা বিশ্বব্যাপী ৬০টির মত রেডিওতে আমাদের গান থাকছে। আর যে কেউ অনলাইনে গান কিনতে পারবেন। ’

এবারে ‘শিরোনামহীন’ অ্যালবামটিতে থাকছে গানের সিডির পাশাপাশি একটি বই। যেখানে প্রত্যেকটি গানের পিছনের একটা গল্প থাকছে। এই কথা উঠতেই ড্রামার শাফিন বললেন, ‘যারা আমাদের গান পছন্দ করেন এবং সংগ্রহ করে রাখতে চান। এই সিডি ও বইটি ঠিক তাদের জন্যই আমরা করেছি। এখানে প্রত্যেকটি গানের সাথে একটি গল্প থাকছে। আমাদের নিজেদের ভাবনা থেকেই এটি করা। যেমন আবার হাসিমুখ গানটিতে এক আহত যোদ্ধার একটি চিঠির বিষয় নিয়ে। এজন্য এবারের অ্যালবামের মূল্য ধরা হয়েছে ১৫০ টাকা। শুধু গান নয়, গানের বাইরে শ্রোতোদের জন্য এই বইটি থাকছে। ’

১৯৯৬ সালের এপ্রিল মাসে গঠন করা এই ব্যান্ডদলটির নাম ‘শিরোনামহীন’। কিন্তু যাদের গানে এত সুন্দর শিরোনাম- তাদের দলের নাম কেন শিরোনামহীন?

এ প্রশ্নের উত্তরে অনেকটা হেসেই জিয়া বললেন, ‘১৯৯৬ সাল থেকে গান তৈরী করে আসছি। হাসিমুখ, শুভ্র রঙিনসহ অনেক গান আমাদের অনেক পুরোনো। একসময় দেখলাম ৫০টির মত গান তৈরী হয়ে গেছে। কিন্তু এই দলের নাম ঠিক করা হয়নি। তাই আমাদের নামহীন দলের নাম দেওয়া হলো ‘শিরোনামহীন’। ’

শিরোনামহীনের ‘নিশ্চুপ আধাঁর’, ‘হাসিমুখ’, ‘একা পাখি’, ‘অন্য কেউ’, ‘ক্যাফেটেরিয়া’ গানগুলো তাই সহজেই জয় করে নিয়েছে এদেশের গানপাগল যে কোন যুবকের মন।
sironamhin
এদিকে তন্ময় তানসেনের `পদ্ম পাতার জল` এবং আশরাফ শিশির এর ‘আমরা একটি সিনেমা বানাব’ চলচ্চিত্রে গান করেছেন শিরোনমহীন। তবে অ্যালবামের পাশপাশি স্টেজ শো করার বিষয়েও বেশ যত্নবান `শিরোনামহীন`।

তুহিন বলেন, `আমরা আসলে রেকর্ডিংয়ের চেয়ে ভক্তদের সামনে সরাসরি পারফরম্যান্স করতে বেশি পছন্দ করি। ’

২০০২ সালে বুয়েট থেকে পাস করা গানের এই সদস্যদের মাঝে বর্তমানে গিটারিস্ট তুষার এবং কিবোর্ডে রাজিব এখন সাথে নেই। ২০১১ সালে তারা তাদের পেশা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। পরে সেখানে যোগ দেন দিয়াত এবং রাসেল।

ফলে ‘শিরোনামহীন’- এর এখনকার লাইনআপ- জিয়া (বেসগিটার), তুহিন (ভোকাল), দিয়াত (গিটার), শাফীন (ড্রামস) এবং রাসেল (কীবোর্ড)।

গান তৈরির পাশাপাশি `শিরোনামহীন`-এর সদস্যদের রয়েছে ভিন্ন এক জগৎ। গানের বাইরে ব্যান্ডের ভোকাল তুহিন এবং জিয়া একটি আর্কিটেকচার ফার্মে চাকুরী করেন। আর শাফিন আগে চাকুরী করলেও বতমানে গানের সাথেই জড়িত। আর দিয়াত একটি মিডিয়া এজেন্সি এবং রাসেল একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করছেন।

তবে শিরোনামহীনের তুহিন বেশ কিছু নাটকে অভিনয়ও করেছেন। এ বিষয়ে তুহিন বলেন, ‘অভিনয় তো শিল্পের একটি মাধ্যম। আমি সবশেষ অংশুর পরিচালনায় স্পুক নাটকে অভিনয় করেছি। ’

শিরোনামহীনের নতুন অ্যালবাম প্রকাশের পর সবাই বিশ্রাম নিতে চান। কারণ, অ্যালবাম প্রকাশের আগ পর্যন্ত প্রায় দিন-রাতই পরিশ্রম করছেন তারা। তাদের বিশ্বাস, শ্রোতাদের জন্য তাদের সেরা উপহার হচ্ছে এবারের অ্যালবামটি। আর প্রত্যেকটি গান অনেক যত্ন করে করা। তাই বেশ সময় নিয়ে হলেও ভালো মানের একটা অ্যালবাম উপহার দিতে চান শিরোনমহীন দলের সদস্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ ঘন্টা, ২৮ মে, ২০১৩
এমকে/একেএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa