ঢাকা, শুক্রবার, ৬ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিনোদন

সুসময়ে বিন্দু

বিপুল হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১০
সুসময়ে বিন্দু

রোজার ঈদে ২৭ আর কোরবানীর ঈদে ২৫, দুই ঈদে সব মিলিয়ে ৫২টি নাটকে অভিনয়। একজন অভিনেত্রীর জন্য এ এক বিশাল সাফল্য।

আফসান আরা বিন্দুর ক্যারিয়ারে এখন এমনই সুসময় ভর করেছে। শুধু নাটকই নয়, অভিনয় করছেন নতুন ২টি ছবিতে । এছাড়াও একাধিক ছবিতে কাজ করার ব্যাপারে কথাবার্তা চলছে।

লাক্স চ্যানেল আই সুপার স্টার ২০০৬ ইভেন্টের প্রথম রানার আপ বিন্দু শুটিং নিয়ে ইদানিং এতোই ব্যস্ত যে, দম ফেলবার ফুরসত নেই। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ শেষ করার পর ইচ্ছে ছিল বিসিএস দিবেন। কিন্তু কাজের চাপে তা আর হলো কই! অভিনয়টাকে যেহেতু পেশা হিসেবে নিয়েছেন, তাই কাজের মাঝেই এখন খুঁজে নেন আনন্দ।

গত ঈদে বেশ কিছু নাটকে বিন্দুর অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে দর্শকদের কাছে। যার মধ্যে মোহন খানের ‘পাত্র চাই না’, ‘ইফতেখার ফাহমীর ‘ব্রেকিং নিউজ’, হিমেল আশরাফের ‘প্রেমের নাম বেদনা’, ইদ্রিস হায়দারের ‘এবং হুমায়রা বেগম’, সৈয়দ জামিমের ‘টাকার বৃত্ত’, সেজুতি নাসিরের ‘প্রথম দেখা’ প্রভৃতি উল্লেখযোগ্য। রোজার ঈদে প্রচারিত বিভিন্ন নাটক সম্পর্কে বিন্দুর মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, গত ঈদে বিভিন্ন চ্যানেলে সবমিলিয়ে আমার ২৭টি নাটক প্রচারিত হয়েছিলো। ঈদের দুই দিনের মধ্যেই আমার অন্তত ১২টি নাটক প্রচার করা হয়। ঈদের দ্বিতীয় দিনতো একই সময়ে একসঙ্গে ৬টি টিভি চ্যানেলে আমার ৬টি নাটক প্রচারিত হচ্ছিল। একজন অভিনেত্রীকে একসঙ্গে এতোগুলো চরিত্রে দর্শক কীভাবে নিবে, তাই নিয়ে খুব টেনশনে ছিলাম । অবশ্য শেষপর্যন্ত আমাকে বিরূপ কোনো সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয় নি। বরং কিছু কাজের বেশ প্রশংসা পেয়েছি। এজন্য আমি আনন্দিত।

এবারের ঈদে নিজের অভিনীত নাটক সম্পর্কে বিন্দু বললেন, গেল ঈদে হাসির নাটকে আমাকে বেশি দেখা গেছে।   এবার হাসির পাশাপাশি সিরিয়াস গল্পের কিছু নাটকেও কাজ করছি। ব্যতিক্রমী কিছু চরিত্রেও আমাকে দেখা যাবে। আগের করা ৭টা নাটক এবার কোরবানীর ঈদে প্রচার হবে। ঈদে প্রচারের জন্য নতুন আরো ১৮টি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নিচ্ছি। প্রতিদিনই থাকছে শুটিং। এরই মধ্যে নাটকগুলোর ৭০ ভাগ কাজ হয়ে গেছে। আশা করছি, আমার অভিনয় এবারও দর্শকদের ভালো লাগবে। আসছে ঈদে কায়সার আহমেদের ‘তাল বেতাল’, মিলন ভট্টাচার্যের পরিচালনায় ‘ভালবাসার উল্টোপীঠ’, লুৎফুন নাহার মৌসুমীর ‘ছোটবেলা’ সহ  পরিচালক কায়েস চৌধুরী, অরুণ চৌধুরী, মুহাম্মদ মুস্তফা কামাল রাজ, নইম ইমতিয়াজ নেয়ামূল ও ইফতেখার ফাহমী পরিচালিত নাটকে বিভিন্ন চরিত্রে বিন্দুকে দেখা যাবে।

একক নাটকের কাজ নিয়ে ব্যস্ততার কারণে বিন্দু ধারাবহিক নাটকে অভিনয় কম করছেন। অবশ্য একপর্বের নাটকে অভিনয় করতেই তিনি বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। এ প্রসঙ্গে বিন্দু বললেন, ধারাবাহিক নাটক আমি একটু এড়িয়ে চলার চেষ্টা করি। কারণ ধারাবাহিকে অভিনয় করলে একধরণের বাধ্যবাধকতার মধ্যে পড়ে যেতে হয়। তাছাড়া বেশিরভাগ ধারাবাহিকের ধরণ আমার গতানুগতিক মনে হয়। দীর্ঘসময় ধরে করা কাজটি যদি আলাদা কিছু না হয়, তাহলে সেটা করার উৎসাহ বোধ করি না। বর্তমানে দুটি ধারাবাহিক নাটকে বিন্দু অভিনয় করছেন। হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে অরুণ চৌধুরী পরিচালিত ধারাবাহিক নাটক ‘লীলাবতী’-তে নাম ভূমিকায় তিনি অভিনয় করছেন। এটিএনবাংলা চ্যানেলে এটি প্রচার হচ্ছে। একুশে টিভিতে প্রচারিত মেগাসিরিয়াল ‘জহুর আলী জহুরী’ তে বিন্দুকে দেখা যাচ্ছে চুন্নি চরিত্রে।  

লাক্স সুন্দীর বিন্দুর চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়েছিল তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘দারুচিনি দ্বীপ’-এর মাধ্যমে। শতভাগ বানিজ্যিক ছবি পিএ কাজল পরিচালিত ‘পিরিতির দোকানদারি’-তেও তিনি ছিলেন বেশ মানানসই। খিজির হায়াত পরিচালিত ‘জাগো’ ছবিতে ফেরদৌসের বিপরীতে অভিনয় করে  বিন্দু প্রশংসিত হন। বর্তমানে তিনি অংশ নিচ্ছেন ‘৬৯-পাতলা খান লেন’ ছবির শুটিংয়ে। এটি পরিচালনা করছেন তরুণ নির্মাতা রাফায়েল আহমেদ। এ ছবিতেও তার বিপরীতে রয়েছেন ফেরদৌস। শাকিব খানের বিপরীতে বিন্দু অভিনয় করেছেন ‘এই তো প্রেম’ ছবিতে। সোহেল আরমান পরিচালিত এ ছবি বর্তমানে নির্মাণাধীন আছে। চলচ্চিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে বিন্দু বলেন, অভিনয়ের সবচেয়ে বড় মাধ্যম চলচ্চিত্র। এটা আমার স্বপ্নের জায়গা। এই জগতে আমি ধীর পায়ে এগিয়ে যেতে চাই। কাজের প্রস্তাব পাচ্ছি, তবে একটু চিন্তা-ভাবনা করে আমি এখানে পথ চলতে চাই। একাধিক ছবিতে কাজ করার ব্যাপারে কথাবার্তা চলছে, তবে এখনো কোনোটা চুড়ান্ত হয় নি।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়  ১৬৩০  অক্টোবর ২৯, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa