ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বিনোদন

চলচ্চিত্রে নতুন মুখ খুঁজছে এফডিসি

বিপুল হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১০
চলচ্চিত্রে নতুন মুখ খুঁজছে এফডিসি

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের এই সময়ের অন্যতম সমস্যা শিল্পী সংকট। হাতেগোনা দু-তিনজন ছাড়া নির্ভর করার মতো নায়ক-নায়িকা নেই বললেই চলে।

এই শিল্পী সংকট কাটিয়ে ওঠার জন্য
বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) আয়োজনে ও চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠনের সহযোগিতায় আবারও শুরু হচ্ছে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’। এ কার্যক্রম সফল করার জন্য গঠন করা হয়েছে একটি আহ্বায়ক কমিটি ।

‘নতুন মুখের সন্ধানে’ আয়োজনের আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করছেন বিএফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মমতাজ আলা শাকুর আহমেদ। প্রধান সমন্বয়কারীর দায়িত্বে আছেন চলচ্চিত্র গ্রাহক সংস্থার সভাপতি আবদুল লতিফ বাচ্চু ও এফডিসির পরিচালক (কারিগরি ও প্রকৌশল) রানা হামিদ। তাদের সঙ্গে সমন্বয়কারী হিসেবে রয়েছেন চারজন। তারা হলেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির মহাসচিব শাহ আলম কিরণ, ফিল্ম এডিটর গিল্ডের সভাপতি আবু মুসা দেবু, চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ হোসেন জেমী ও চলচ্চিত্র সাংবাদিক মোহাম্মদ আওলাদ হোসেন। আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে আছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ হোসেন, চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি শওকত জামিল, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিজু আহমেদ, চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সহসভাপতি  খোরশেদ আলম খসরু, চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসুম পারভেজ রুবেল এবং চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সহকারী সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান লিটন।

এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মমতাজ আলা শাকুর আহমেদের সভাপতিত্বে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক সভায় এই কমিটি গঠন হয় এবং সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়। সভায় একটি উপদেষ্টা কমিটি গঠনের বিষয়েও আলোচনা হয় এবং পরবর্তী সভায় উপদেষ্টা কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়।

কমিটির অন্যতম প্রধান সমন্বয়কারী আবদুল লতিফ বাচ্চু বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে চলচ্চিত্র শিল্পে শিল্পী সংকট চরমে উঠেছে। শুধু নায়ক-নায়িকা নয়, সহ-অভিনেতা অভিনেত্রী, ভিলেন, কমেডি সব ধরনের চরিত্রের জন্য নতুন শিল্পী জরুরি হয়ে ওঠায় আমরা এফডিসির উদ্যোগে নতুন মুখের সন্ধানে নেমেছি। শিগগিরই আমরা সব বিস্তারিত জানাব। এবারের ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ আয়োজন হবে অবশ্যই সময়োপযোগী, আধুনিক ও ব্যাপক।

আশির দশকের শুরুতে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে শিল্পী সংকট প্রবল হলে এফডিসি ১৯৮৪ সালে ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ কার্যক্রম আয়োজন করে। প্রথমবারের সেই আয়োজন থেকে মান্না, দিতি, সোহেল চৌধুরী, সুব্রত, সাত্তার, নীপা মোনালিসা, খালেদা আকতার কল্পনা, রাশেদা চৌধুরীসহ অনেক শিল্পী চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত হন। পরে এফডিসি আরো কয়েকবার এই কার্যক্রম আয়োজন করলেও সেখান থেকে অমিত হাসান ও আমিন খান ছাড়া উল্লেখযোগ্য কোনও নতুন মুখ পাওয়া যায়নি।
 
সর্বশেষ ১৯৯৪ সালে এফডিসি ‘নতুন মুখের সন্ধানে’ আয়োজন করেছিল। কিন্তু সুষ্ঠু পরিকল্পনা আর ব্যবস্থাপনা না থাকায় সে কার্যক্রমও সফল হয়নি। এবার দীর্ঘ ১৬ বছর পর এফডিসি চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠনকে নিয়ে আবারও ‘নতুন মুখের সন্ধানে’-এর আয়োজন করছে। যদিও কিছুদিন আগে এফডিসি, এনটিভি ও মার্কেট এক্সেস-এর যৌথ উদ্যোগে ‘সুপার হিরো সুপার হিরোইন’ ইভেন্টের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখান থেকে দশজন নতুন নায়ক-নায়িকা তুলে আনা হয়। তাদের অনেকেই চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করলেও এখন পর্যন্ত কেউই নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণ করতে পারেননি।
 
বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৭৪০,  অক্টোবর ১৯, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa