ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

বিনোদন

হাসপাতাল ছেড়ে যে বার্তা দিলেন মিঠুন

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
হাসপাতাল ছেড়ে যে বার্তা দিলেন মিঠুন

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন মিঠুন চক্রবর্তী। হাসপাতাল ছেড়েই তিনি হেলথ টিপসের সঙ্গে দিলেন রাজনৈতিক বার্তা।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান তিনি।

হাসপাতাল থেকে বের হয়ে মিঠুন জানান, তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ। এখন কোনো সমস্যা নেই। একই সঙ্গে জানান, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে প্রচারে মাঠে নামবেন। তিনি আরও জানান, মানুষের উত্থানের সময় এসেছে।

হাসপাতালের বাইরে দাঁড়িয়ে মিঠুন বললেন, কোনো সমস্যা নেই। সমস্যা খাওয়াতে। আমি গোগ্রাসে খাই। এর পর ডায়াবেটিস রোগীদের উদ্দেশ্য করে হেলথ টিপস দেন তিনি। তিনি বলেন, যাদের  ডায়াবেটিস রয়েছে, ভাববেন না মিষ্টি না খেলে কিছু হবে না। খাওয়া নিয়ন্ত্রণ করুন।

নিজের সমস্যার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, আমার সমস্যা, বেশি খেয়েছি। আমি রাক্ষস। বকা খেলাম। তবে এখন আমি পুরোপুরি সুস্থ।

তাকে প্রচারের ময়দানে পাওয়া যাবে বলেও সোমবার জাান মিঠুন। তিনি বলেন, ১ মার্চ থেকে লাগাতার প্রচার। বিজেপির হয়েই করব। আমাদের রাজ্যের বাইরে অন্য রাজ্যে যদি ডাকে সেখানেও যাব।

সন্দেশখালি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সময় এসেছে, মানুষের জেগে ওঠা উচিত। যা হচ্ছে, মানা যায় না। দেব তাকে হাসপাতালে দেখতে এসেছিলেন। তবে রাজনৈতিক বিষয়ে আলোচনা হয়নি।  

‘প্রজাপতি’ ছবির সহঅভিনেতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, দেব এসেছিল আমার সঙ্গে দেখা করতে। আমি রাজনৈতিক কোনো কথা বলি না। খুব বুদ্ধিমান ছেলে দেব। ভালো ছেলে। তবে রাজনৈতিকভাবে মন্তব্য করব না।

মিঠুন হাসপাতালে থাকাকলীন ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তার শরীরের সংবাদ নিয়েছিলেন। সেই প্রসঙ্গে বিজেপি সাংসদ মিঠুন বলেন, দারুণ শ্রদ্ধা করি প্রধানমন্ত্রীকে।

সোমবার সন্দেশখালি রওনা হতেই শুভেন্দুদের আটকায় পুলিশ। শুভেন্দু জানিয়ে দেন, তিনি জাতীয় সড়কে বসে থাকবেন। এ প্রসঙ্গে মিঠুন বলেন, শুভেন্দুকে আটকে কী হবে? সে ভেঙে বেরিয়ে যাবে। সে খুব শক্তিশালী নেতা। আটকে কোনো লাভ নেই।

কবে থেকে শুটিংয়ে ফিরবেন, সে কথাও জানিয়েছেন মিঠুন। তিনি বলেন, শুটিং করব ১৯  ফেব্রুয়ারি থেকে। দুটি দিন ক্ষতি হয়ে গেছে। আমি কাল থেকেও কাজ করতে পারি, এটা আমার ইচ্ছা।

শনিবার সকালে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন মিঠুন। ভর্তি করা হয় কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালে।  

শনিবার হাসপাতালের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে মিঠুনকে ভর্তি করা হয়েছে। তার ডান হাত এবং পায়ে দুর্বলতা রয়েছে। মস্তিষ্কে এমআরআই-সহ বিভিন্ন শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ, খাচ্ছেন নরম খাবার। নিউরোলজি, কার্ডিয়োলজি এবং গ্যাস্ট্রোএনট্রোলজি বিভাগের চিকিৎসকদের নিয়ে একটি মেডিকেল দল গঠন করা হয়েছে। সেই মেডিকেল দলের নিবিড় পর্যবেক্ষণে রয়েছেন মিঠুন। তবে মিঠুনকে কবে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে, সেই নিয়ে স্পষ্ট করে হাসপাতাল পক্ষ কিছু জানানো হয়নি।  

অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীর প্রযোজনায় ‘শাস্ত্রী’ ছবির শুটিং চলছিল। তখনই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান তৃণমূলের বিধায়ক-অভিনেতা সোহম। গত বছর মিঠুন অভিনীত ছবি ‘কাবুলিওয়ালা’ মুক্তি পেয়েছে। সেই ছবি প্রশংসা পেয়েছে দর্শক মহলে। এবার সদ্য নতুন একটি ছবির কাজে হাত দিয়েছেন। তার মধ্যেই ঘটল এ বিপত্তি। শনিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে ফের তাকে দেখতে যান সোহম। যদিও মিঠুনের পুত্রবধূ মাদলসা শর্মা দাবি করেন, তিনি সুস্থ রয়েছেন। স্ট্রোকের খবর ভুয়া বলে দাবি করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।