ঢাকা, রবিবার, ২৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ১১ জুন ২০২৩, ২২ জিলকদ ১৪৪৪

বিনোদন

আমাকে আর সাকিবকে মেডেল দেওয়া উচিত: হিরো আলম

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৫ ঘণ্টা, মার্চ ১৯, ২০২৩
আমাকে আর সাকিবকে মেডেল দেওয়া উচিত: হিরো আলম

দুবাই থেকে ফিরে রোববার (১৯ মার্চ) সকালে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন হিরো আলম। এসময় তিনি পুলিশের কাছে পুরস্কার দাবি করেন।

হিরো আলম বলেন, আমাকে আর সাকিব আল হাসানকে মেডেল দেওয়া উচিত। পুরস্কৃত করা উচিত। কারণ, আমরা যদি অনুষ্ঠানে না যেতাম, কে আসামি, তার সন্ধান পেত না। আমাদের জন্যই তারা আসামির সন্ধান পেয়েছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে আলোচিত এই ইউটিউবার বলেন, কোর্ট রায় না দেওয়া পর্যন্ত আমরা তাকে খুনের আসামি (অপরাধী) বলতে পারি না। আমি শুনেছি সে তো ছয় নম্বর আসামি।  

প্রশ্ন রেখে হিরো আলম বলেন, আগের পাঁচজনের নাম কেউ বলে না কেন? তাদের কোনো খবর নাই কেন? ছয় নম্বর আসামিকে নিয়ে সবার এত মাথা ব্যথা কেন? প্রথম পাঁচ আসামি টাকা দিয়ে মামলা থেকে তাদের নাম কেটে ফেলছে নাকি?

আরাভ খান যে হত্যা মামলার আসামি, সেটি জানতেন না বলে দাবি করেছেন হিরো আলম। তিনি বলেন, পুলিশ আমাকে সতর্ক করলে যেতাম না। আমাদের মেসেজ (বার্তা) দিতে পারত, বিমানবন্দরে আটকাতে পারত। পুলিশ নিজেই জানত না সে খুনের মামলার আসামি। আমরা যাওয়ার পর জানতে পেরেছে। শিল্পীদের কেউই জানত না।

পুলিশ বলছে, দুবাইয়ের আলোচিত গয়নার দোকান আরাভ জুয়েলার্সের মালিক ‘আরাভ খান’ এর আসল নাম রবিউল ইসলাম। তিনি এক পুলিশ পরিদর্শক হত্যা মামলার আসামি- যোগ করেন হিরো আলম।  

ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও হিরো আলমসহ বিনোদন জগতের বেশ কয়েকজন তারকা দুবাইয়ে আরাভ জুয়েলার্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ায় ওই দোকান আর এর মালিকের খবর সংবাদের শিরোনামে আসে।

ইতোমধ্যেই ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলেন, আরাভ খানের বিরুদ্ধে খুনের মামলার বিষয়টি সাকিবসহ অন্যদের জানানো হলেও তারা এতে ‘সাড়া দেননি’।

এ বিষয়ে সাকিবের বক্তব্য পাওয়া না গেলেও রোববার হিরো আলম বললেন এভাবে- পুলিশ যে দাবি করেছে, আমাদের জানানো হয়েছে, এটা একশভাগ মিথ্যা কথা। মেসেজ দেখাতে বলেন। প্রমাণ দিতে বলেন।

হিরো আলম প্রশ্নও তোলেন, পুলিশের ভুল ছিল। তারা বিষয়টি জানলে আমাকে জানায়নি কেন?

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের সম্ভাবনা হওয়ার আশঙ্কা নিয়ে তিনি বলেন, পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করতেই পারে। তারা যদি প্রমাণ দিতে পারে যে জানানোর পরেও আমরা গিয়েছি, যে শাস্তি দেবে মাথা পেতে নেব।

আরাভ জুয়েলার্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যাওয়া প্রত্যেক শিল্পীকে বিমানভাড়াসহ সব খরচের পরে সম্মানী দেওয়া হয়েছে বলেও জানান হিরো আলম।

তবে আরাভ খান এক ভিডিওতে দাবি করেছিলেন, তার দোকান উদ্বোধনে যারা দুবাই গিয়েছিল, তাদের কাউকে টাকা পয়সা দেওয়া হয়নি।

আরাভ খানের কথা ‘মিথ্যা’ দাবি করে হিরো আলম বলেন, সে তো আমাদের আত্মীয় স্বজন না। আমরা কেন যাব তার অনুষ্ঠানে? আমাদের বিমানভাড়াসহ সব খরচ ছাড়াও শিল্পীদের সম্মানী দিয়েছেন।

এই সম্মানীর টাকা দিয়ে রমজানে গরীবদের মধ্যে কাপড় ও সেমাই বিতরণ করবেন বলে জানান হিরো আলম।  

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, মার্চ ১৯ , ২০২৩
এনএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa