ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

নির্বাচন

পাবনা-৪ আসনে উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩২৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২, ২০২০
পাবনা-৪ আসনে উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল মনোনয়নপত্র জমা দিচ্ছেন প্রার্থীরা।

পাবনা: পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) আসনে উপ-নির্বাচনকে ঘিরে উৎসব মুখর পরিবেশ তৈরি হয়েছে রাজনীতির মাঠে। সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত ২৭ আগস্ট নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনিত হন ঈশ্বরদী উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান বিশ্বাস।

 

এ উপ-নির্বাচনে সাবেক ভূমিমন্ত্রী শরিফ পরিবারের ছয় জনসহ দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন ২৮ জন। এ নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাপাসহ তিনজন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে।  

মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষদিনে বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বিকেলে প্রার্থীরা তাদের দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেন। ৩ সেপ্টম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে জমাকৃত মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই করে যোগ্য প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা। আগামী ৮ সেপ্টম্বর এই উপ-নির্বাচনে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। আর ভোটগ্রহণ হবে আগামী ২৬ সেপ্টম্বর।  

চলতি বছরের ২ এপ্রিল সাবেক ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। গুরুত্বপূর্ণ আসনটিকে পুনরুদ্ধার করার জন্য সুষ্ঠু নির্বাচন প্রত্যাশা করেন বিএনপি ও জাপার প্রার্থী। তবে এই আসনটি নিজেদের করতে মাঠের নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করছেন আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী নুরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছেন। এ আসনে প্রয়াত ভূমিমন্ত্রী চার বার নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এ আসনটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ আসন। আমরা আমাদের দলীয় প্রধানকে পাবনা-ঈশ্বরদী আসনটি উপহার দিতে চাই।

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, ৩০ ডিসেম্বরের মত নির্বাচন অনুষ্ঠিত না হলে এই আসনটিতে বিএনপি বিজয়ী হবে। সরকারসহ নির্বাচন কমিশনের কাছে আমাদের একটাই চাওয়া অন্তত এই একটি আসনে সুষ্ঠু নির্বাচন করে জনগণের আস্থা ফিরিয়ে আনুন। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিজয় আমাদের নিশ্চিত।

জাতীয় পার্টির প্রার্থী রেজাউল করিম বলেন, দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমরা এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। নির্বাচনের পরিবেশ ভালো থাকলে এ নির্বাচনে ভালো ফলাফল করবে জাপা। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নির্বাচনে লড়তে চাই।

নির্বাচন নিয়ে জেলা রিটানিং কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ শেখ বলেন, নির্বাচনকে নিয়ে আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচনের সব কাজ এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে। সবার জন্য আইন সমান থাকবে। আচারণ বিধি অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনহত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আশা করছি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।  

পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া) উপজেলার দুটি পৌরসভা ১২টি ইউনিয়নের মোট ভোটকেন্দ্র রয়েছে ১২৯টি। মোট ভোটার ৩ লাখ ৮১ হাজার ১১২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১,৯১,৬৯৭ জন আর নারী ভোটার ১,৮৯,৪১৫ জন।  

বাংলাদেশ সময়: ২৩২০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০২, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa