ঢাকা, বুধবার, ১৮ মাঘ ১৪২৯, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯ রজব ১৪৪৪

নির্বাচন ও ইসি

ইভিএমের বাজার যাচাইয়ের সুযোগ নেই: ইসি আলমগীর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৯, ২০২২
ইভিএমের বাজার যাচাইয়ের সুযোগ নেই: ইসি আলমগীর

ঢাকা: ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) বাজার যাচাই করার কোনো সুযোগ নেই। কেননা, এ মেশিনের সোর্স (প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান) একটি।



বুধবার (৯ নভেম্বর) নির্বাচন ভবনের নিজ দফতরে নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

বাজার যাচাই না করেই ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, যে জিনিসের একটাই মাত্র সোর্স সে জিনিসের বাজারদর যাচাই করার সুযোগ নেই। ইভিএমের সোর্স বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরি (বিএমটিএফ)।

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দুই লাখ ইভিএম কেনার লক্ষ্যে নতুন একটি প্রকল্প প্রস্তাব করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আট হাজার ৭১১ কোটি ৪৪ লাখ টাকার ওই প্রকল্প প্রস্তাবটিতে ইভিএম প্রতি দাম ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৫ হাজার টাকা।

চলমান ইভিএম প্রকল্পটি ২০১৮ সালে নেওয়া। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দেড় লাখ ইভিএম কেনার লক্ষ্যে ওই প্রকল্পটি হাতে নেওয়া হয়েছিল, যেখানে ইভিএম প্রতি দাম ধরা হয়েছিল দুই লাখ পাঁচ হাজার টাকা। সে সময়ও বিএমটিএফ-এর কাছ থেকে ভোটযন্ত্রটি কিনেছিল ইসি।  

আরেক প্রশ্নের জবাবে আলমগীর বলেন, ইনভেসমেন্ট প্রকল্পে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডি করতে হয়। এটা ইনভেসমেন্ট (ইভিএম প্রকল্প) প্রোগ্রাম না। ইভিএমের ক্ষেত্রে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডির তেমন কিছু নেই। ন্যাচারটাই ভিন্ন। আগে দেড় লাখ ইভিএম যে কেনা হয়েছে সেগুলো আমরা এখন পুরোদমে ব্যবহার করছি বিভিন্ন নির্বাচনে। এখানে সেটিই বলা হয়েছে। এক্ষেত্রে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডির প্রয়োজন নেই।  

প্রস্তাবিত প্রকল্পের বিষয়ে  ইসি আলমগীর বলেন, বাজেট কমে গেলে ১৫০ আসনে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হবে না। কমে যাবে। এছাড়া আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে প্রকল্প পাস না হলেও ১৫০ আসনে ইভিএম ব্যবহার করা সম্ভব হবে না।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৯, ২০২২
ইইউডি/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa