ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

বাঘারপাড়ায় ভিক্টোরিয়া পারভীন, সদরে মিলি নির্বাচিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮২৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২০
বাঘারপাড়ায় ভিক্টোরিয়া পারভীন, সদরে মিলি নির্বাচিত বাঘারপাড়ায় ভিক্টোরিয়া পারভীন, সদরে মিলি নির্বাচিত

যশোর: যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে বিজয়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থী ভিক্টোরিয়া পারভীন সাথী। তিনি ৬৩টি কেন্দ্রে এক লাখ ৭৩ হাজার ৭৭৯ জন ভোটারের মধ্যে এক লাখ এক হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়েছেন।

মোট ভোট পড়েছে এক লাখ পাঁচ হাজার ৯০০। অর্থাৎ ভোট পড়েছে প্রায় ৬১ শতাংশ। তার প্রতিদ্বন্দ্বি দুই প্রার্থীরই জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। যদিও ভোটের আগের রাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী দিলু পাটোয়ারী ও নির্বাচনের দিন সকাল ৯টার দিকে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী শামছুর রহমান ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন।

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সহকারী রিটানিং অফিসার মেহেদী হাসান বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল ৯টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ করা হয়। উৎসবমুখর ও শন্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন।

মেহেদী হাসান বাংলানিউজকে জানান, নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী এক লাখ এক হাজার ৭৯৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ধানের শীষের প্রার্থী ভোট পেয়েছেন দুই হাজার ৩৩২টি। নির্বাচনে অপর প্রার্থী আনারস প্রতীকের পিএম রেজাউল ইসলাম দ্বীন মোহাম্মদ ওরফে দিলু পাটোয়ারী পেয়েছেন এক হাজার ৭৭৫ ভোট।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ বাংলানিউজকে জানান, যশোর সদর উপজেলায় কলস প্রতীকের প্রার্থী জ্যোৎস্না আরা মিলি ৫৩ হাজার ৪৫২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বি 
এ্যাডভোকেট সেতারা খাতুন ভোট পেয়েছেন ৩৩ হাজার ৭০১টি। উপজেলার ১৭৫টি কেন্দ্রে পাঁচ লাখ ৬০ হাজার ৫৬০ জন ভোটারের মধ্যে ৮৭ হাজার ৮২২ জন ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন। যার মধ্যে ৬৬৯টি ভোট বাতিল হয়। সেই হিসেবে যশোর সদর উপজেলার ১৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটারাধিকার প্রয়োগ করেন।

এদিকে, ঘন কুয়াশা ও তীব্র শীতের কারণে কিছু কিছু কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম হলেও উপজেলা সদর ও বাজার সংলগ্ন কেন্দ্রগুলোতে সকাল থেকেই ভোটার উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি বাড়তে থাকে।

সকাল ১০টার দিকে বাঘারপাড়া উপজেলার পূর্ব পাইকপাড়া, দোহাকুলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাঘারপাড়া সিদ্দিকীয়া ফাযিল 
মাদ্রাসাসহ বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল কম। তবে চাড়াভিটা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, করিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বাঁকড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। দুপুর গড়াতেই বর্ণময় কিন্ডারগার্ডেন, রহরামপুর, খলশি, ক্ষেত্রপালাসহ রায়পুর ও জহুরপুর ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে শত শত নারী-পুরুষ ভোট দিতে আসেন।

বাংলাদেশ সময়: ০৮২৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১১, ২০২০
ইউজি/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।