ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

রাজৈর পৌরনির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থী নাজমা বেসরকারিভাবে নির্বাচিত 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৩৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২০
রাজৈর পৌরনির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থী নাজমা বেসরকারিভাবে নির্বাচিত  নাজমা রশীদ

মাদারীপুর: মাদারীপুরের রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজমা রশীদ বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।   তিনি দুই হাজার ১৭৫ ভোট বেশি পেয়ে নৌকা প্রতিকে বিজয়ী হন।

 

বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে সবক’টি কেন্দ্রের ফলাফল শেষে এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

একাধিক সূত্রে জানা যায়, রাজৈর পৌরসভায় প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট হয়। এটিই মাদারীপুর জেলায় প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে প্রথম নির্বাচন। সকাল ৮টা থেকে বিকেলে ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে চলে এই ভোট গ্রহণ।  

এই রাজৈর পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ১২টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ৩০ হাজার ৪১৮ জন ভোটাধিকারের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৫ হাজার ৩৬৭ জন ও নারী ভোটারের সংখ্যা ১৫ হাজার ৫১ জন।  

নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে নির্বাচনী এলাকাজুড়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দায়িত্ব পালনে স্ব স্ব কেন্দ্রে মোতায়েন থাকে বিজিবি, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা।  

এছাড়া নির্বাচনে একজন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও ৯ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেন। তাদের সঙ্গে এক প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের ৪টি টিম, পুলিশ ও আনসার সদস্য দায়িত্ব থাকেন। এছাড়া প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ৫ জন স্বশস্ত্র পুলিশসহ ১৯ জন করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে।  
রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে ৭ জন মেয়র প্রার্থী, ৯ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী ও ৩০ জন কাউন্সিলর প্রার্থী অংশ নেন।

মাদারীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নাজমা রশীদ ৯ হাজার ৭৭৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিদ্দিকুর রহমান বক্কর চামচ প্রতীক নিয়ে পেছেন ৭ হাজার ৫৯৮ ভোট। তবে, এবার ভোট সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২০/আপডেট: ১১৪০ ঘণ্টা
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।