ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২২ জিলহজ ১৪৪১

নির্বাচন ও ইসি

রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে ব্যয় ২ কোটি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫৩৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১০, ২০১৯
রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে ব্যয় ২ কোটি নির্বাচন ভবন। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: সদ্য সমাপ্ত রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে দুই কোটি টাকার মতো ব্যয় হয়েছে। এর মধ্যে নির্বাচন পরিচালনা খাতে ব্যয় হয়েছে এক কোটি ৩০ লাখ টাকা।

গত ৫ অক্টোবর উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভোট নেওয়া হয়েছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম)।


 
নির্বাচনে ব্যয়ের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বাজেট শাখার উপ-সচিব এনামুল হক বাংলানিউজ জানিয়েছেন, রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে পরিচালনা খাতে ব্যয় হয়েছে এক কোটি ৩০ লাখ টাকা। এখানে ইভিএম পরিচালনার ব্যয়ও রয়েছে। আর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ চেয়েছে ৫০ লাখ টাকা। এছাড়া অন্যান্য বাহিনীসহ সব মিলিয়ে ব্যয় হয়েছে দুই কোটি টাকার মতো।
 
আইন-শৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনীগুলোকে এখনো টাকা দেওয়া হয়নি। তাদের চাহিদার ভিত্তিতে ইসির অনুমোদনের পর অর্থ পরিশোধ করা হবে।
 
রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে জয় পেয়েছেন রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ। নির্বাচনে মোট ১৭৫টি কেন্দ্রে সাদ এরশাদ (লাঙ্গল প্রতীক) পেয়েছেন ৫৮ হাজার ৮৭৮ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান পেয়েছেন (ধানের শীষ) ১৬ হাজার ৯৪৭ ভোট। আর এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী মকবুল শাহরিয়ার (মটরগাড়ি) পেয়েছেন ১৪ হাজার ৯৮৪ ভোট।
 
গত ১৪ জুলাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ মৃত্যুবরণ করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সংসদ সচিবালয়ের সচিব (রুটিন দায়িত্ব) আ ই ম গোলাম কিবরিয়া মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রংপুর-৩ আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে ১ সেপ্টেম্বর উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১০, ২০১৯
ইইউডি/আরআইএস/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa