[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪২৫, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
bangla news

সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে একদিন হুদা কমিশনের বিচার হবে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-৩১ ৬:২২:২৪ পিএম
বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব মাহবুব উদ্দীন খোকন

বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব মাহবুব উদ্দীন খোকন

ঢাকা: কমিশন নির্বাচনের নামে ভোটারদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে, জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছে। সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে এক সময় এই কমিশনের বিচার হবে।

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে নির্বাচন কমিশনে গিয়ে নির্বাচনী এলাকার অভিযোগ দেওয়ার পর সাংবাদিকদের একথা বলেন বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব মাহবুব উদ্দীন খোকন।

খোকন বলেন, এক মাস দেখেছি সরাকরি দল আওয়ামী লীগের লোকেরা তাণ্ডব চালিয়েছে, অস্ত্র প্রদর্শন করেছে। অস্ত্র উদ্ধারের জন্য নির্বাচন কমিশনে কয়েকবার অবেদন দিয়ে গেছি। আমি তিনবার এসেছি, কোনো পদক্ষেপ নেয়নি ইসি। কোনো ভূমিকা পালন করেনি। এমনকি নির্বাচনের আগে ডিসি ফোনই ধরেননি। 

‘সেনাবাহিনী, র‌্যাব, বিজিবি রাতে প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে তারা আটটা থেকে বোমাবাজি করেছে সঙ্গে পুলিশও ছিল। সাধারণ ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে আসতে পারিনি। সিল মারার খবর জানিয়েছি, আমি টেলিফোন করেছি। সকালে ১০০টি ভোটকেন্দ্রে কোথাও এজেন্ট ঢুকতে দেয়নি। কোথাও ঢুকতে দিয়ে পরে আবার বের করে দিয়েছে। আমার নির্বাচনী এজেন্ট গুরুতর আহত।’

তিনি বলেন, কমিশন নির্বাচন ভোটারদের সঙ্গে প্রতারণা করেছে, জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছে। সংবিধান লঙ্ঘনের দায়ে এক সময় এই কমিশনের বিচার হবে।

সংবিধান লঙ্ঘনের জন্য আমি এই নির্বাচন কমিশনের বিচার দাবি করেছি। জাতির সঙ্গে প্রতারণার জন্য এই নির্বাচনে নির্বাচন কমিশন, সরকার, আদালত এক হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন আমার এলাকায় নোয়াখালী-১ ও সারা বাংলাদেশে নির্বাচন কমিশন সরকারের সঙ্গে আঁতাত করে তারা নির্বাচন করেছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
ইইউডি/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14