ঢাকা, সোমবার, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
bangla news

নিরঙ্কুশ জয়ের পর সংবর্ধনায় ভাসছেন রাজশাহীর ৬ এমপি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-৩১ ৪:২৮:৫৮ পিএম
শুভেচ্ছায় ভাসছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম

শুভেচ্ছায় ভাসছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম

রাজশাহী: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এবার রাজশাহীর ছয়টি আসনেই আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের জয়জয়কার। নিরঙ্কুশ জয়ের পর দলীয় নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষের ভালোবাসায় এখন ভাসছেন নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা। রেকর্ড জয়ে বাতাস লেগেছে নৌকার পালে।

রাজশাহীর ছয়টি আসনের মধ্যে এবার চারজনই হ্যাট্রিক জয় পেয়েছেন। একজন দু’বারের মতো ও একজন নবাগত প্রার্থীও পেয়েছেন জয়। এদের মধ্যে রাজশাহীর-১ আসনে ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-২ আসনে ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী-৪ আসনে ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক ও রাজশাহী-৬ আসনে শাহরিয়ার আলম তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। 

এছাড়া রাজশাহী-৩ আসনে আয়েনউদ্দিন দ্বিতীয়বারের মতো এবং নির্বাচনী লড়াইয়ে নতুন মুখ হিসেবে বিজয়ী হয়ে এসেছেন রাজশাহী-৫ আসনের প্রার্থী ডা. মনসুর রহমান।

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর সাগরপাড়ার বাসভবনে ভিড় করেন দলীয় নেতাকর্মীরা। তাকে ফুলের মালা পরিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে নেতাকর্মীরা বিজয় মিছিল বের করতে চাইলে দলীয় সভানেত্রীর নির্দেশনা না থাকায় তা মানা করা হয়। 

এসময় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামী দিনের উন্নয়নে নিজেদের শ্রম ও মেধা উৎসর্গ করার আহ্বান জানান রাজশাহী-১ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী।

রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা সকালে তার বাবা-মায়ের কবর জিয়ারত করেন। পরে হড়গ্রাম বাজারের বাসভবনে আসলে নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে সংবর্ধনা জানান। এসময় কোনো রকম বিজয় উল্লাস না করা এবং কোনো রকম উসকানিতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নিজেদের না জড়ানোর জন্য আহ্বান জানান ফজলে হোসেন বাদশা।   

এদিকে, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক ও রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমানকেও সকালে নিজ নিজ বাড়িতে সংবর্ধনা দেন বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী। 

এছাড়া সকাল থেকেই রাজশাহী-৬ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের আড়ানীর বাসভবনে ভিড় করেন দলীয় নেতকর্মীরা। এসময় বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার লোকজন তাকে ফুল দিয়ে সিক্ত করেন।  

এসময় শাহরিয়ার আলম বলেন, আপনরা তৃতীয়বারের মতো আমাকে নির্বাচিত করে যে সম্মান দেখালেন তার ঋণ আমি কোনোদিন শোধ করতে পারবো না। তবে কথা দিয়ে যাচ্ছি, যতদিন বেঁচে থাকবো সুখে-দুঃখে পাশে থেকে চারঘাট-বাঘার মানুষের সেবা করে যাবো।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৮
এসএস/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-12-31 16:28:58