[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪২৫, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
bangla news

খাগড়াছড়িতে রেকর্ডসংখ্যক ভোটে নৌকার জয়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-৩১ ১:২৩:২৭ এএম
কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

খাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ি আসনে এ যেন রীতিমত রেকর্ড। গত সংসদ নির্বাচনের ভোটের ফলাফলের তুলনায় প্রায় দেড়গুণ বেশি ভোট পেয়ে পুনরায় খাগড়াছড়ির ২৯৮ নং আসনে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা। তিনি পেয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ১৫৬ ভোট। গত সংসদ নির্বাচনে তিনি পেয়েছিলেন ৯৯ হাজার ৩৮ ভোট।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইউপিডিএফ সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা সিংহ প্রতীকে পেয়েছেন ৫৯ হাজার ২৫৭ ভোট।
 
খাগড়াছড়ির রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম ভূইয়া বেসরকারিভাবে কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে নির্বাচিত ঘোষণা করেছেন। তবে এখানে ১৮৬টি ভোট কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করা হয়।  দুর্গমকেন্দ্র হওয়ায় দীঘিনালার নারাইছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফলাফল পাওয়া যায়নি। সেই কেন্দ্রের ফলাফল সকালে ঘোষণা করা হবে।
 
বাকি তিন প্রার্থীর মধ্যে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী শহিদুল ইসলাম ভূইয়া পেয়েছেন ৫১ হাজার ২৬৬ ভোট। লাঙল প্রতীক নিয়ে জাতীয় পার্টির প্রার্থী সোলয়মান আলম শেঠ পেয়েছেন ২ হাজার ৩৪০ ভোট। এছাড়া ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী আব্দুল জব্বার গাজী হাতপাখা মার্কায়পেয়েছেন ২ হাজার ৯৩৫ ভোট।
 
গতবারের সংসদ নির্বাচনের তুলনায় এবার ভোটারের উপস্থিতি ছিল অনেক বেশি। ভোটার বেড়েছে প্রায় ৬০ হাজার। আর মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ৮৪৩ জন। এরমধ্যে ভোট দিয়েছেন ৩ লাখ ৫৭ হাজার ১৫৪ ভোট। এরমধ্যে বাতিল ভোটের সংখ্যা ৫হাজার ২শ। শতাংশের হিসেবে যা ৮০ দশমিক ৮৪ শতাংশ।
 
এবার খাগড়াছড়ি আসনে মোট ৫  জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। খাগড়াছড়ির ৯টি উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্রে সংখ্যা ১৮৭টি। এরমধ্যে ১৬৪টি কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। লক্ষ্মীছড়ি ও দীঘিনালা উপজেলার ৩টি দুর্গম কেন্দ্রে ব্যবহার করা হয় হেলিকপ্টার। নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য কেন্দ্রগুলোতে ছিল প্রায় ৪ হাজার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য।
 
বাংলাদেশ সময়: ০১১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮
এডি/এসএইচ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14