ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০, ১৬ জিলকদ ১৪৪১

নির্বাচন ও ইসি

প্রতীক পাচ্ছেন প্রার্থীরা 

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১২ ০৪:৩০:৪০ পিএম
প্রতীক পাচ্ছেন প্রার্থীরা  ছবি: বাংলানিউজ গ্রাফিকস

ঢাকা: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিভিন্ন দলের প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। দলীয় প্রতীক ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের স্বতন্ত্র প্রতীক দেওয়া হচ্ছে। 

সোমবার (১০ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ঢাকা জেলা ও মহানগরীর সংসদীয় আসনে প্রার্থীদের প্রতীক দেওয়া হয়।  

প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেওয়া হচ্ছে।                 <div class=

ছবি: শাকিল/বাংলানিউজ" src="https://www.banglanews24.com/media/imgAll/2018October25/bg/Dhaka-BG20181210121914.jpg" style="margin:5px; width:100%" />দেশের অন্যান্য জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়েও প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে। সকালে ঢাকা-৪ ও ঢাকা-৫ অাসনের প্রার্থীদের প্রতীক তুলে দিয়ে দিনের কার্যক্রম শুরু করেন ঢাকা জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) তারিকুল ইসলাম প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন এবং সংশ্লিষ্ট প্রার্থী বা তার প্রতিনিধির হাতে প্রতীক তুলে দেন।  

প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেওয়া হচ্ছে।  ছবি: শাকিল/বাংলানিউজপ্রতীক বরাদ্দের সময় তিনি বলেন, আপনারা নির্বাচনী আচরণবিধি যথাযথভাবে পালন করে প্রচার প্রচারণা করবেন। একই সঙ্গে এখান থেকে যে প্রতীকের মডেল দেওয়া হচ্ছে সেগুলো যেন কোনোভাবেই অবয়ব পরিবর্তন না হয়।

আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৫ আসনে আওয়ামী লীগ বিএনপির বাইরেও একাধিক প্রার্থী রয়েছেন। এই আসনে মোট ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।  

প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেওয়া হচ্ছে।  ছবি: শাকিল/বাংলানিউজতারা হলেন- হাবিবুর রহমান মোল্লা (নৌকা), নবী উল্লাহ (ধানের শীষ), মীর আবদুর সবুর আসুদ (লাঙল), আলতাফ হোসেন (উদীয়মান সূর্য), আব্দুর রশিদ সরকার (কুড়েঘর), আব্দুল কায়ুম (মীনা), রবিউল ইসলাম (গোলাপফুল), শামীম মিয়া (মাছ), সুমন মাস্টার (আম)।

তফসলি অনুযায়ী, আচরণবিধি মেনে সোমবার থেকে নির্বাচনী প্রাচারণা চালাতে পারবেন প্রার্থীরা। নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ ডিসেম্বর)

তথ্যমতে, নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি ছাড়া ১৪ দলীয় জোট ও মহাজোটের শরিক দলের প্রার্থীরা ২৭৪ আসনের মধ্যে ২৭২টিতে নৌকায় নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। বাকি দু’টি আসনে জাতীয় পার্টি (জেপি) বাইসাইকেল প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেবে।  

আর বাকি ২৬টি আসনে লাঙল প্রতীকে লড়বেন জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা।  
প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেওয়া হচ্ছে।  ছবি: শাকিল/বাংলানিউজএদিকে নির্বাচনে শরিকদের জন্য মোট ৫৯টি আসন ছেড়ে দিয়েছে বিএনপি। এরমধ্যে জামায়াত ২২টি, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ১৯টি ও ২০ দলীয় জোটের বাকি শরিক দলগুলো পেয়েছে মোট ১৮টি আসন।

তবে ৫৯টি আসনের মধ্যে ৫৭টি আসনে শরিকদলগুলো ধানের শীষ প্রতীকে লড়বে। বাকি দুইটি আসনের মধ্যে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপির) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ চট্টগ্রাম-১৪ আসনে লড়বেন নিজ দলের প্রতীক ‘ছাতা’ নিয়ে।  

আর কক্সবাজার-২ আসনে স্বতন্ত্র প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেবেন জামায়াতের সাবেক সংসদ সদস্য হামিদুর রহমান আযাদ।  

বাংলাদেশ সময়: ১১২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০১৮/আপডেট: ১৪১১ ঘণ্টা
এসএম/জিসিজি/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

নির্বাচন ও ইসি এর সর্বশেষ

এই বিভাগের সব খবর
Alexa