ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

৩২২ ভোটারের বুথে কেউ দিলেন না ভোট

খোরশেদ আলম সাগর, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৬ ঘণ্টা, মে ২৯, ২০২৪
৩২২ ভোটারের বুথে কেউ দিলেন না ভোট

লালমনিরহাট: পুরো কেন্দ্রে দিনভর ভোট দিলেন মাত্র ১৬ জন ভোটার। ৩২২ ভোটারের বুথে কেউ দিলেন না ভোট।

বুধবার (২৮ মে) দিনভর শূন্য ভোটের রেকর্ড করল লালমনিরহাট সদর উপজেলার বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয় নারী ভোট কেন্দ্রের ৭ নম্বর বুথ।

জানা গেছে, ৩য় ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। লালমনিরহাট সদর উপজেলায় ১১৮টি ভোটকেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ছিল অনেক কম। লালমনিরহাট পৌরসভা ও তার পার্শ্ববর্তী কিছু কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কিছুটা থাকলেও অধিকাংশ কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে। বিশেষ করে বড়বাড়ি ইউনিয়নের কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতির হার সব থেকে নিম্নমুখী। সেখানে বেশির ভাগ কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ছিল শতাধিকের মধ্যে।

বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ে দুটি ভোট কেন্দ্র। একটিতে পুরুষ ভোটার অপরটিতে নারী ভোটার। নারীদের ভোটকেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ৭৫২ জন। এর মধ্যে ভোট পড়েছে মাত্র ১৬টি। এ কেন্দ্রের ৭ নম্বর বুথে ৩২২ ভোটের মধ্যে কেউ ভোট দেননি। এ বুথ শূন্য ভোটের রেকর্ড তৈরি করেছে। এ কেন্দ্রের এক নম্বর বুথে ৩৯৩ ভোটারের মধ্যে ভোট পড়েছে মাত্র দুটি। দুই নম্বর বুথে এক ভোট, তিন নম্বর বুথে দুই ভোট, চার নম্বর বুথে তিন ভোট, পাঁচ নম্বর বুথে দুই ভোট, ছয় নম্বর বুথে পাঁচ ভোট, সাত নম্বর বুথে শূন্য ও আট নম্বর বুথে ভোট পড়েছে মাত্র একটি। মোট আটটি বুথে ২ হাজার ৭৫২ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন মাত্র ১৬ জন।

শূন্য ভোটের বুথের সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার শাহ আলম বলেন, ব্যালট বহি যেভাবে নিয়ে এসেছি, সেভাবেই জমা দিতে হলো। কোনো ভোটার আসেনি বুথে। একটি ব্যালটও ভোটারের হাতে তুলে দিতে পারিনি। অলস সময় কাটালাম দিনভর।

বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী চঞ্চল কুমার শর্মা জানান, সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মাত্র ১৬ জন ভোটার ভোট দিয়েছেন। ভোট গ্রহণ করতে এ কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ দায়িত্বে রয়েছেন ৩৯ জন কর্মকর্তা কর্মচারী।

একই বিদ্যালয়ের পুরুষ কেন্দ্রে মোট ভোটার দুই হাজার ৭৮৬ জন। এর মধ্যে দিনভর ভোট দিয়েছেন ৯০ জন ভোটার। এর মধ্যে ১৪টি ভোট অবৈধ (নষ্ট) হিসেবে ধরা হয়েছে। ভোটার উপস্থিতি না থাকায় অলস সময় গল্প গুজবে কাটিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ভোট নিয়ে স্থানীয়দের যেন কোনো মাথা ব্যথা নেই এখানে। ভোটকেন্দ্রের সামনের পরিবেশও ছিল সুনসান। তেমন কেউ নেই যারা নিজেদের প্রার্থীকে ভোট দিতে আগন্তুক ভোটারদের অনুরোধ করবেন। সব মিলে বড়বাড়ী ইউনিয়নে ভোটার উপস্থিতি নেই বললেই চলে।

বড়বাড়ী শহীদ কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ের পুরুষ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসারের দায়িত্বে থাকা লালমনিরহাট সরকারি কলেজের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষক ইমরান আলী মির্জা জানান, এ কেন্দ্রের সাতটি বুথে মোট ২ হাজার ৭৮৬ জন ভোটারের মধ্যে ৯০ জন ভোটার ভোট দিয়েছেন। অবৈধ ভোট ১৪টি এবং ৭৬টি ভোট বৈধ হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা বলছেন, লালমনিরহাট সদর উপজেলায় বিএনপির প্রভাব কিছুটা বেশি থাকায় উপজেলা নির্বাচনে ভোটারদের আগ্রহ কম। বিএনপি এ নির্বাচন বর্জন ঘোষণা করায় বিএনপির কর্মী-সমর্থকরা ভোটকেন্দ্রে যাননি। বড়বাড়ী ইউনিয়নটি পুরো বিএনপি অধ্যুষিত হওয়ায় এ ইউনিয়নের কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম। বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র দুইটি মূলত বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক উপমন্ত্রী আসাদুল হাবীব দুলুর ভোটকেন্দ্র। বিএনপির কেন্দ্রীয় এ নেতা ও তার পরিবার এ কেন্দ্রের ভোটার। এ কারণে এ কেন্দ্রের ভোটার উপস্থিতি কম।

কেন্দ্রটির গেটের চা বিক্রেতা দুলু মিয়া বলেন, প্রধান দুই দলের প্রার্থী না থাকায় ভোট জমেনি। বিএনপি- আওয়ামী লীগ দুই দলের প্রার্থী থাকলে জমে উঠতো ভোট। এখন ভোট দিলেও যারা না দিলেও তারাই নির্বাচিত হবেন। তাই ভোট দিয়ে লাভ কি।

লালমনিরহাট জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা লুৎফুল কবির জানান, কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৫ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২৪
আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।