ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

‘একটি জাল ভোট পড়লেই কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হবে’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০১ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
‘একটি জাল ভোট পড়লেই কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হবে’

ঝালকাঠি: নির্বাচন কমিশনার অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আহসান হাবিব খান বলেছেন, কেন্দ্র দখল তো দূরের কথা, একটি জাল ভোট পড়লেও কেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হবে। আমি প্রার্থীদের বলব, গুন্ডা বা পেশিশক্তির ব্যবহার এবং যদি কালো টাকা ছড়ানো হয়, তাহলে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ডেকে ব্যবস্থা নেবে।

আর যদি তাতেও না হয়, তাহলে ভোট কেন্দ্র বন্ধ করে দিতে হবে। কোন অসুবিধা নেই প্রয়োজনে এই কেন্দ্রে আবার ভোট গ্রহণ করা হবে, পরিষ্কার কথা - কোনো ছাড় নাই।  

শনিবার (১৮ মে) ঝালকাঠি জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বরিশাল, ঝালকাঠি ও পিরোজপুর জেলার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।  

এসময় ঝালকাঠির জেলা প্রশাসক ফারাহ গুল নিঝুম, বরিশালের জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম, পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক জাহিদুর রহমান ও বরিশাল র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক কর্নেল জুবায়ের আলম শুভ উপস্থিত ছিলেন।  

আহসান হাবিব খান বলেন, সকল প্রার্থীই নির্বাচন কমিশনের কাছে সমান। যে কোনো মূল্যে অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন নিশ্চিত করা হবে। কোনো প্রার্থী আচরণবিধি ভঙ্গ বা নির্বাচনী অপরাধ করলে তাৎক্ষণিক কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।  

তিনি বলেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সুষ্ঠু নির্বাচন। আর স্থানীয় সরকারের সাধারণ নির্বাচন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। সারা দেশের মানুষ রাজনৈতিক দলসহ সবার চাওয়া একটি সুষ্ঠু নির্বাচন। এই গুরুদায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের ওপর ন্যস্ত। আমরা জাতিকে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, অংশগ্রহণমূলক ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন উপহার দিতে চাই।  

এ সময় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে নির্দেশ দেন তিনি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৭ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।