ঢাকা, সোমবার, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

শিক্ষা

ইবি’র খাবারে শামুক-পোকা পাওয়ার অভিযোগে প্রভোস্ট কাউন্সিলের পরিদর্শন

ইবি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৯ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২২
ইবি’র খাবারে শামুক-পোকা পাওয়ার অভিযোগে প্রভোস্ট কাউন্সিলের পরিদর্শন ইবির আবাসিক হল পরিদর্শন করেন প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক ড. রেবা মণ্ডল।

ইবি: বেশ কিছু দিন ধরেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আবাসিক হলের খাবারে শামুক ও পোকামাকড় পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ছাড়া হলে নিম্নমানের খাবার পরিবেশন ও মূল্য বৃদ্ধির অভিযোগও উঠেছে।

এ অবস্থায় আবাসিক হলগুলো পরিদর্শন করেন প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক ড. রেবা মণ্ডল। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আটটি হলের ডাইনিংয়ে খাবারের মান যাচাই করেন। একইসঙ্গে হল শিক্ষার্থীদের সার্বিক খোঁজখবর নেন।

সোমবার (২৩ মে) সকাল সাড়ে দশটা থেকে অধ্যাপক ড. রেবা মণ্ডল হল পরিদর্শন শুরু করেন। হলগুলোর ডাইনিংয়ে দেওয়া খাবারের মান যাচাইয়ের পাশাপাশি এর মান ভালো করারও নির্দেশ দেন।

হলের ফ্রিজে পচা-বাসি খাবার আছে কিনা তা দেখেন প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতি। এ ছাড়া হলের পরিবেশগত অবস্থা পরিদর্শন করেন। তিনি হলের রান্নাঘরে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ বজায় রাখতে পরামর্শ দেন। একইসঙ্গে চাল রান্না ও খাবারের দাম ঠিক রাখাসহ সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ম অনুসারে পরিচালনা করতে নির্দেশনা দেন।

অধ্যাপক ড. রেবা মণ্ডল বলেন, শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা ও গবেষণা করে। তাদের মাথা ঠাণ্ডা রাখা দরকার। এ সময় তাদের পুষ্টিকর ও ভালো খাবার খাওয়া দরকার। যদি কোনো হলে যদি পচা-বাসি খাবার পাওয়া যায় অথবা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার পরিবেশনের অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে জরিমানা করা হবে। এছাড়া সেই হলের ডাইনিং পরিচালককে বাদ দিয়ে নতুন কাউকে নিয়োগ করা হবে।

হল পরিদর্শনে প্রভোস্ট কাউন্সিলের সভাপতির সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন লালন শাহ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. ওবায়দুল ইসলাম, ভূমি ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষক মেহেদী হাসান, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষক মাহবুবা সিদ্দীকা, মার্কেটিং বিভাগের শিক্ষক মাজেদুল ইসলামসহ অন্যান্যরা।

জানা গেছে, আবাসিক হলে নিম্নমানের খাবার পরিবেশন ও হঠাৎ মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই অভিযোগ করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। প্রতিটি হলের ডাইনিংয়ের খাবারে চুল, টিকটিকি, শামুক, চ্যালা, মাছিসহ অনেক পোকামাকড় পাওয়ার অভিযোগ করেন তারা। বিভিন্ন সময় পোকামাকড়সহ খাবারের ছবি দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিকারেরও দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

এদিকে খাবারের মান বৃদ্ধি ও মূল্য কমানোর দাবিতে সোমবার (২৩ মে) ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করে শাখা ছাত্র মৈত্রী। মানববন্ধন শেষে উপাচার্যের কাছে সাতটি দাবিসহ স্মারকলিপি প্রদান করে সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৫ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa