ঢাকা, সোমবার, ২ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শিক্ষা

ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিল ২৩৮ পরীক্ষার্থী!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২১
ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিল ২৩৮ পরীক্ষার্থী!

রাজশাহী: রাজশাহীর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কেন্দ্রের ২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নপত্রে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) রসায়ন প্রথম পত্রের পরীক্ষায় রাজশাহী শহরের এই কেন্দ্রটিতে এমন ঘটনা ঘটেছে।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের ২০০টি কেন্দ্রে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। বুধবার সবগুলো কেন্দ্রেই পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে সেট-২ এর ‘তারা’ নামের প্রশ্নপত্রে। শুধু রাজশাহীর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কেন্দ্রে সেট-৪ এর ‘তিমি’ নামের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়া হয়। সকাল ১০টায় এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কর্তৃপক্ষ সেট ভুল হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। তখন শিক্ষাবোর্ডকেও বিষয়টি জানানো হয়। কিন্তু তখন আর কিছু করার ছিল না। তাই ভুল প্রশ্নপত্রেই ২৩৮ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া হয়। ২০০টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৯৯টি কেন্দ্রে সেট-২ এবং এই একটি কেন্দ্রে সেট-৪ এর প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হয়। ফলে এই কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীরা এখন উদ্বিগ্ন।

জানতে চাইলে কেন্দ্র সচিব সালমা শাহাদাতও বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে দুটি করেই সেট পাঠানো হয়। কোন সেটে পরীক্ষা নেওয়া হবে তা পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে শিক্ষাবোর্ড থেকে এসএমএস দিয়ে জানানো হয়।

এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে শিক্ষাবোর্ড থেকে এসএমএস ঠিকই এসেছে। কিন্তু ট্যাগ অফিসার হিসেবে থাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা (মাউশি) অধিদফতরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সেট-৪ এর প্রশ্নপত্র বের করে দিয়ে দিয়েছেন। ট্যাগ অফিসারকে সেট-২ জানিয়েছিলেন বলে দাবি করেন সালমা শাহাদাত।

তিনি বলেন, পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পরই তারা ভুল প্রশ্নপত্র দেওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। এরপর শিক্ষাবোর্ডে ফোন করে পরামর্শ চাওয়া হয়। বোর্ড ওই প্রশ্নেই পরীক্ষা নিয়ে নেওয়ার নির্দেশনা দেয়। এখন সেট-৪ এর প্রশ্নে এখানকার পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়নের জন্য তিনি শিক্ষা বোর্ডে লিখিতভাবে আবেদন করেছেন।

ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা শেষ করার পর বিষয়টি জানাজানি হয়। এতে পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মধ্যে পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন নিয়ে উৎকণ্ঠা ছড়িয়ে পড়ে।

নাসির ওয়াহিদ নামে একজন পরীক্ষার্থীর অভিভাবক জানান, তার বোন ভুল সেটের প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছে। রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সব শিক্ষার্থীর পরীক্ষার মূল্যায়ন হবে সেট-২-এ। অথচ এই মাদার বখস কেন্দ্রের ২৩৮ জনের মূল্যায়ন হবে সেট-৪-এ।

নাসির বলেন, সেট-২-এ এবার অংক ছিল বেশি। আর সেট-৪-এ কম। যারা গণিতে ভালো তাদের ফলাফল ভালো হবে। গণিত মিলিয়ে দিতে পারলেই নম্বর পাওয়া যায়। আর লিখিত পরীক্ষা অনেক ভালো লিখলেও নম্বর কম পাওয়া যায়। এ কারণে সেট-৪ এর পরীক্ষার্থীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সময় এর প্রভাব পড়বে।

ভুল প্রশ্নপত্র বিষয়ে রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আরিফুল ইসলাম বলেন, কোনোক্রমে আজ এমন একটা ভুল হয়ে গেছে। এই ভুল প্রশ্নের এখন আর কোনো সমাধান নেই। তবে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

দুই সেটের পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন দুই রকম হবে, অভিভাবকদের এমন বক্তব্যের বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেন, সেট-৪ এর পরীক্ষার্থীদের ‘সেভাবেই’ মূল্যায়নের জন্য বলা হবে।

বুধবার রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষায় আট জেলায় রসায়ন বিষয়ের পরীক্ষার্থী ছিল ৩৭ হাজার ৮০৮ জন। এর মধ্যে ৩৭ হাজার ৬৬ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। ৭৪২ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল বলে জানিয়েছে রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড কন্ট্রোল রুম।

বাংলাদেশ সময়: ২২০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮, ২০২১
এসএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa