ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

চুল কাটার বর্ণনা শুনলেন ইউজিসি প্রতিনিধিরা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১
চুল কাটার বর্ণনা শুনলেন ইউজিসি প্রতিনিধিরা

সিরাজগঞ্জ: বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) প্রতিনিধি দলের কাছে চুল কাটার ঘটনার বিবরণ দিলেন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের (রবিবা) শিক্ষার্থীরা।  

বুধবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে প্রায় পৌনে দুই ঘণ্টা ধরে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসের একাডেমিক ভবনে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের সাক্ষ্য নেন প্রতিনিধিদলের সদস্যরা।

এর আগে সকাল ১১টার দিকে প্রথমে আত্মহত্যার চেষ্টাকারী ভুক্তভোগী নাজমুল হোসেনের সাক্ষ্যগ্রহণের মধ্য দিয়ে তথ্য নেওয়া শুরু হয়। দুপুর পৌনে ১টার দিকে শিক্ষার্থীদের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে কর্মচারী ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে প্রতিনিধি দল।  

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক গঠিত পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান লায়লা ফেরদৌস হিমেল এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ইউজিসির প্রতিনিধি দল ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের কাছে ঘটনার বিবরণ শুনেছেন। এরপর শিক্ষক-কর্মচারীদের সঙ্গেও কথা বলেছেন। এরপর আমার সঙ্গে এবং অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের সঙ্গেও কথা বলবেন তারা।  

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য প্রফেসর দীল আফরোজার  নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির মধ্যে দু’জন ক্যাম্পাসে এসেছেন। তারা হলেন ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক জামিলুর রহমান এবং ইউজিসির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের সহকারী পরিচালক আবু ইউসুফ হীরা। তদন্ত কমিটির প্রধান প্রফেসর দীল আফরোজা ক্যাম্পাসে না এলেও ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত ছিলেন বলে জানিয়েছেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. সোহরাব আলী।

এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যায়ন বিভাগের ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেন বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিন। অপমান সহ্য করতে না পেরে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাতে নাজমুল হাসান তুহিন নামে এক ছাত্র অতিমাত্রায় ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা সব পরীক্ষা বর্জন করে একাডেমিক এবং প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বিক্ষোভ করে। ওইদিন রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান, সহকারী প্রক্টর ও সিন্ডিকেট সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন। ঘটনা তদন্তে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠিত হয়। এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলেও স্থায়ী বহিষ্কারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলতেই থাকে। একপর্যায়ে শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে আন্দোলন থেকে সরে আসেন শিক্ষার্থীরা।  

এদিকে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় কমিটি। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সিন্ডিকেট মিটিংয়ে ওই প্রতিবেদনের আলোকে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সিদ্ধান্ত ছাড়াই সিন্ডিকেট সভা মূলতবি হওয়ায় রাতেই ফের আন্দোলনে নামেন শিক্ষার্থীরা। রোববার দিনভর মহাসড়ক অবরোধ, অনশন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন তারা। আন্দোলন চলা অবস্থায় দু’জন শিক্ষার্থী সবার সামনে আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন। রোববার (২৪) অক্টোবর সন্ধ্যায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বোঝাতে এসে অবরুদ্ধ হন রেজিষ্টারসহ শিক্ষক-কর্মকর্তারা। নয় ঘণ্টা পর পুলিশের হস্তক্ষেপে মুক্ত হন শিক্ষক-কর্মকর্তারা। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) শিক্ষকদের আশ্বাসে বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত করেন শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন: 

চুল কাটার ঘটনা তদন্তে রবিতে ইউজিসি প্রতিনিধি দল

'লাথি মেরে চারতলা থেকে ফেলে দেবো'

ছাত্রদের চুল কেটে দেওয়া শিক্ষিকার পদত্যাগ 

চুল কাটা: তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিল কমিটি

১৪ জনের চুল কেটে দিয়েছেন শিক্ষক

৯ ঘণ্টা পর মুক্ত রবির অবরুদ্ধ

সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ সিন্ডিকেট সভা, অনশনে

চুল কেটে নেয়া শিক্ষিকার অপসারণ দাবিতে আমরণ

শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেওয়ার প্রতিবাদে

অবশেষে শিক্ষার্থীদের চুল কেটে দেয়া সেই

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০২১ 
এসআই 


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa