ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

ভর্তিচ্ছুদের ফুল দিতে এসে ছাত্রলীগের পিটুনি খেল ছাত্রদল

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
ভর্তিচ্ছুদের ফুল দিতে এসে ছাত্রলীগের পিটুনি খেল ছাত্রদল

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি): গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার্থীদের ফুল দিতে এসে ছাত্রলীগের পিটুনি খেয়েছে জবি শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় জবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক প্রার্থী মেহেদী হাসান হিমেলসহ আরও একজন আহত হন।

রোববার (১৭ অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চ সংলগ্ন গেটের সামনে এ হামলা করা হয়। এ সময় ভর্তিচ্ছুদের মাঝে ভীতিকর অবস্থা তৈরি হয়।

জবি ছাত্রদলের আহ্বায়ক পদপ্রার্থী মেহেদী হাসান হিমেলের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ফুল ও কলম দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন। এ সময় ছাত্রলীগকর্মী মফিজুর রহমান হামিম, নাজমুল হাসান মুন্না, শেখ রাসেল, মেহেদী হাসান,  নওশের বিন আলম ডেভিডসহ কয়েকজন ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এতে গুরুতর আহত হন ছাত্রদল নেতা মেহেদী হাসান হিমেল এবং শাহরিয়ার হোসেন।

আহত ছাত্রদল নেতা মেহেদী হাসান হিমেল

এছাড়া শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়ার সময় ছাত্রদল নেতা সাইফুল হক তাজ, নাহিদ চৌধুরী, মাহবুব রহমান, রাতুল হাসান, নাছিম উদ্দিন, জামাল হোসেন, জাহিদ হাসান, আব্দুল আজিজ, কুতুব উদ্দিন স্বরণ, আল আমিন, তৌহিদ চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

হামলার বিষয়ে মেহেদী হাসান হিমেল বলেন, ছাত্রসংগঠন হিসেবে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। সে দায়িত্ব পালনে আমরা যখন শিক্ষার্থীদের মাস্ক, কলম ও ফুল দিয়ে স্বাগত জানাচ্ছিলাম, তখন ছাত্রলীগ আমাদের ওপর হামলা করে। এ ঘটনাই প্রমাণ করে জবিতে ছাত্রলীগ কখনও শিক্ষার্থীবান্ধব ছিল না। আমরা ক্যাম্পাসে সহবস্থানের নিশ্চিতের দাবি জানাই। শিগগিরই আমরা ক্যাম্পাসে অবস্থান নেব।

আহত ছাত্রদল নেতা শাহরিয়ার হোসেন

জবি ছাত্রলীগ নেতা ও জবির গোপালগঞ্জ জেলা ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মফিজুর রহমান হামিম বলেন, পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ নং গেটে কিছু অছাত্র ছাত্রদল নেতা-কর্মী শিক্ষার্থীদের যাতায়তে বিঘ্ন ঘটায়। আমরা তাদের সরে যেতে বললে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa