bangla news

দেশের বিজ্ঞান-প্রযুক্তি শিক্ষায় দৃষ্টান্ত হবে বশেফমুবিপ্রবি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৯ ৯:৩৯:০৪ পিএম
বক্তব্য দিচ্ছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। ছবি: বাংলানিউজ

বক্তব্য দিচ্ছেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রফেসর ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। ছবি: বাংলানিউজ

জামালপুর: জামালপুরে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেফমুবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বঙ্গমাতার নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়টিকে তথ্য-প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারে আধুনক রূপ দেওয়া হবে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের লক্ষ্য-উদ্দেশ্য হচ্ছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে অত্যাধুনিক ও মানসম্পন্ন শিক্ষার সমন্বয় ঘটানো। উচ্চশিক্ষার মানের দিক দিয়ে দেশের শিক্ষাঙ্গনে বশেফমুবিপ্রবি দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে। আমরা সেই লক্ষ্যে কাজ করছি। 

বশেফমুবিপ্রবির শিক্ষা কার্যক্রম শুরুর একবছর পূর্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ প্রত্যয়ের কথা বলেন।  

ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন বলেন, একটা নতুন বিশ্ববিদ্যালয়কে আকার দিতে অনেক চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। আমরা সেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে শূন্য থেকে শুরু হওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আকৃতি দিতে শুরু করেছি। প্রথম ব্যাচের প্রথম সেমিস্টারের শিক্ষা কার্যক্রম সফলভাবে চলছে। দ্বিতীয় ব্যাচের ভর্তি প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে।  

শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন,  বিশ্ববিদ্যালয় রূপদানের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের আমি ধন্যবাদ জানাই। কৃতজ্ঞতা জানাই জামালপুর-৩ (মেলান্দহ-মাদারগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মির্জা আজম সাহেবের প্রতিও; যিনি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চালাতে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। 

‘ধন্যবাদ জানাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের। তারা নানা সীমাবদ্ধতারও মাঝে সর্বোচ্চ দিয়ে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে। সহযোগিতা করে যাচ্ছেন জামালপুরের স্থানীয় লোকজন। তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি বিশ্বাস করি সবার সম্মিলিত সহযোগিতা ও প্রচেষ্টায় বশেফমুবিপ্রবি এগিয়ে যাবে।’

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার খন্দকার হামিদুর রহমান। বশেফমুবিপ্রবির সমাজকর্ম বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এ এইচ এম মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চার বিভাগের চেয়ারম্যান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী, ফিশারিজ অনুষদ হিসেবে আত্তীকরণের প্রক্রিয়াধীন শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ফিশারিজ কলেজের শিক্ষক- কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। 

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অস্থায়ীভাবে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। 

২০১৭ সালের ২৮ নভেম্বর ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন’ রাষ্ট্রপতির সম্মতি লাভ করে। পরে গতবছরের ১৮ নভেম্বর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক ও প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদকে বশেফমুবিপ্রবির উপাচার্য পদে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মো. আবদুল হামিদ। 

এরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাকার্যক্রম শুরু করেন প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ। 

প্রথম ব্যাচে অর্থাৎ ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে চারটি অনুষদে চারটি বিভাগের শিক্ষাকার্যক্রম চলছে। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে প্রকৌশল অনুষদের অধীনে নতুন বিভাগ ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং চালু করা হয়েছে। 

২৯ নভেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুর মডেল সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে তিন শিফটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ২১১৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
এমএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-19 21:39:04