bangla news

বিশৃঙ্খলা হতে পারে, শিক্ষকদের কর্মস্থল ছাড়তে বারণ

ইসমাইল হোসেন, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২৩ ১:১২:৩৭ এএম
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়

ঢাকা: বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের দাবিতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাসমাবেশের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে বলে সতর্ক করেছে সরকার।

এজন্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বুধবার (২৩ অক্টোবর) সরকারি ছুটির দিনে কর্মস্থল ত্যাগ না করতে নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশের পর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর আরও জানায়, খুব শিগগিরই শিক্ষকদের দাবি-দাওয়ার বিষয়ে একটি যৌক্তিক এবং সন্তোষজনক সমাধানে উপনীত হওয়া সম্ভব হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, শিক্ষকদের গ্রেড উন্নীতের জন্য মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে। এনিয়ে অর্থ বিভাগের সঙ্গে আলোচনাও হয়েছে। এ পর্যায়ে শিক্ষকদের আন্দোলন না করতে আমরা বার বার আহ্বান জানিয়েছি।

বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে মহাসমাবেশের ডাক দিলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কর্তৃপক্ষ এবং প্রশাসন আমাদের সমাবেশের অনুমতি দেয়নি। কিন্তু আমরা শান্তিপূর্ণভাবে সেখানে অবস্থান করে সমাবেশ করব। 

নানাভাবে বাধা দেওয়া সত্ত্বেও ইতোমধ্যে অনেক শিক্ষক ঢাকায় এসেছেন বলে জানান ঐক্য পরিষদের এই আহ্বায়ক।

বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের দাবিতে দীর্ঘ ধারাবাহিক কর্মসূচির অংশ হিসাবে পর্যায়ক্রমে কর্ম বিরতি পালনের পর বুধবার (২৩ অক্টোবর) পবিত্র আখেরি চাহার সোম্বা উপলক্ষে বিদ্যালয় ছুটির দিনে মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছেন শিক্ষকরা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সারাদেশে ৬৫ হাজার ৯৯টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের সংখ্যা তিন লাখ ৪৮ হাজার ৫৮৪ জন। প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী শিক্ষকেরা বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের আন্দোলনে যোগ দেবেন।

শিক্ষকদের এই জমায়েতের আগের দিন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে সতর্ক করা হয়েছে।

মহাপরিচালকের ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, বুধবার (২৩ অক্টোবর) পবিত্র আখেরি চাহার সোম্বা উপলক্ষে বিদ্যালয় ছুটির দিনে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কতিপয় শিক্ষক সংগঠন বিভিন্ন দাবি নিয়ে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারেন মর্মে জানা যায়। 

এমতাবস্থায় তার আওতাধীন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষককে ওই ছুটি উপলক্ষে কর্মস্থল ত্যাগের অনুমতি না দিতে নির্দেশনা দেওয়া হলো।

প্রাথমিক শিক্ষার সব উপ-পরিচালক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, পিটিআইয়ের সুপারিনটেনডেন্ট, উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসারকে এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

মহাপরিচালক মনজুর কাদির স্বাক্ষরিত আরেক চিঠিতে শিক্ষকদের দাবির বিষয়ে সরকারের পদক্ষেপর কথাও জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের লক্ষ্যে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় অর্থ বিভাগের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রেখেছে।

আশা করা যায় যে, সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে খুব শিগগিরই সম্মানিত শিক্ষকগণের দাবি-দাওয়ার বিষয়ে একটি যৌক্তিক এবং সন্তোষজনক সমাধানে উপনীত হওয়া সম্ভব হবে।

এমতাবস্থায় প্রজাতন্ত্রের দায়িত্বশীল কর্মচারী হিসেবে সম্মানিত শিক্ষকগণকে আন্দোলন বা সমাবেশের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পারে এমন কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকতে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।

সব প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী শিক্ষকদের চিঠি দিয়ে এ তথ্য জানায় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

অন্যদিকে, আন্দোলনকারী শিক্ষকদের চিহ্নিত করে তাদের শোকজ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ সময়: ০১১০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০১৯
এমআইএইচ/এসআরএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-10-23 01:12:37