ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

পরীক্ষা ছাড়া ভর্তির সিদ্ধান্ত অনুষদ নিতে পারে: ডিন

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৯-১০ ১০:০৯:৫৯ পিএম
সংবাদ সম্মেলনে  বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

সংবাদ সম্মেলনে বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামসহ অন্যরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি): পরীক্ষা ছাড়া ভর্তি হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদের (ডাকসু) নেতা হওয়া ছাত্রদের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের অনিয়ম হয়নি বলে দাবি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম। 

তিনি বলেছেন, অনুষদ চাইলে সব সিদ্ধান্ত নিতে পারে।

তবে অনেকেই মনে করেন, এটি একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত।

মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. হাবিবুল্লাহ কনফারেন্স হলে ডাকসুর আট নেতাসহ ছাত্রলীগের ৩৪ নেতার ভর্তির বিষয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য অনুষদের ছাত্র-ছাত্রীরা, যারা বিভিন্ন ব্যাংক, বীমা, করপোরেট হাউস ও টেলিকমের কাজ করে বা চাকরির সুযোগ পান, তাদের মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে লেখাপড়ার সুযোগ প্রদানের বিষয়ে দেড় বছর আগে অনুষদ সভায় আলাপের মাধ্যমে অনুমোদিত হয়। কিন্তু ঢাবির বাইরের ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীকে যথাযথ লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হওয়ার বিধান চালু আছে। 

এ সময় সাংবাদিকরা সিদ্ধান্তের লিখিত কপি চাইলে বুধবার তা সরবরাহ করবেন বলে জানান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম।

তবে বিশ্ববিদ্যালেয়ের একাধিক অনুষদের ডিনরা জানিয়েছেন, এসব বিষয়ের সিদ্ধান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের মাধ্যমে সুপারিশ আকারে সিন্ডিকেটে অনুমোদন পেয়ে থাকে। অনুষদ এসব সিদ্ধান্ত নিতে পারে না। সান্ধ্যাকালীন কোর্সের কত শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাগারে যাবে, কোন প্রক্রিয়ায় শিক্ষার্থীরা ভর্তি হবে তা একাডেমিক কাউন্সিলে আলোচনা হয়ে অনুমোদন পেতে হয়। 

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাকি যেসব অনুষদে সান্ধ্যকালীন কোর্স রয়েছে সেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরও ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে যথাযথভাবে নিয়ম মেনে ভর্তি হতে হয়।

ছাত্রলীগের ৩৪ নেতাকর্মীর ভর্তির সময় সার্কুলারের সময় ছিল না এমন প্রশ্নের উত্তরে অধ্যাপক শিবলী বলেন, আসন খালি থাকা সাপেক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের সার্কুলারের বাইরেও ভর্তি করানোর সুযোগ রয়েছে। সেক্ষেত্রে লিখিত পরীক্ষা বাধ্যতামূলক নয়। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা একবার লিখিত পরীক্ষা দিয়ে ভর্তি হয়েছে, দ্বিতীয়বার দেওয়ার যৌক্তিকতা নেই।

কোর্স চলমান রাখতে ক্লাসে অংশগ্রহণের বিষয়ে দৃষ্টিআকর্ষণ করলে তিনি বলেন, কারো যদি ৭৫ শতাংশ উপস্থিতি না থাকে তাহলে তার ভর্তি বাতিল হয়ে যাবে।

এ সময় প্রকাশিত খবরের চিরকুটের বিষয়ে অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল বলেন, চিরকুট দেখতে কেমন? চিরকুট কি ছোট কাগজ? জিনিসটা কী? এখন তো চিরকুট দেওয়ার দরকার নেই। এখন টেলিফোন আছে মোবাইল আছে। 

‘যদি ভিসি স্যার কোনো চিরকুট আমাকে দিয়ে থাকেন, তাহলে তো প্রমাণ থেকে গেল। আমার মনে হয় চিরকুট দিয়ে ভিসি স্যার এমন বোকামি করবেন না,’ বলেন তিনি। 

বাংলাদেশ সময়: ২২০৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯
এসকবি/এমএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-09-10 22:09:59