bangla news

ঢাবি উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনে আলোচনায় চার নাম

সাজ্জাদুল কবির, ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-২৯ ৮:৩৭:৪২ পিএম
অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ও অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল

অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ও অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: আগামী ৩১ জুলাই বসছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটের বিশেষ অধিবেশন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ অনুযায়ী সিনেটের কাজ হচ্ছে বার্ষিক বাজেট পাস ও উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন করা। এবার পূর্ণাঙ্গ সিনেট নিয়ে নির্বাচন করা হবে তিন সদস্যের উপাচার্য প্যানেল। সেখানে বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে আলোচনায় আছেন চার অধ্যাপক। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এই প্যানেল থেকেই আগামী চার বছরের জন্য একজনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব দেবেন।

যে চারজনের নাম আলোচনায় আছে, তারা হলেন ঢাবির উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেও এ চারজনেরই নাম শোনা গেছে।

সিনেটের সর্বশেষ উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন হয় ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই। সেই সভায় তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিকের সঙ্গে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক কামাল উদ্দীন ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন (তৎকালীন) অধ্যাপক ড. আব্দুল আজিজ প্যানেলে যুক্ত হন। পূর্ণাঙ্গ সিনেট না থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামীপন্থি নীল দলের শিক্ষকদের একটি অংশের রিটের পরিপ্রেক্ষিতে ১০ অক্টোবর ওই প্যানেলকে অবৈধ ঘোষণা করেন আদালত। তখন উপাচার্য অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের পক্ষে-বিপক্ষে নীল দল বিভক্ত হয়ে পড়ে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ৪ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক আখতারুজ্জামানকে সাময়িক উপাচার্যের দায়িত্ব দেন।

পরে সিনেট পূর্ণাঙ্গ করতে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট ও প্রায় তিন দশক পর অনুষ্ঠিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন। সেখান থেকে পাঁচজন ছাত্রপ্রতিনিধি যোগ দিয়েছেন সিনেটের বার্ষিক অধিবেশনে। বর্তমানে সিনেটে মোট সদস্য সংখ্যা ১০৫ জন। যার মধ্যে বেশিরভাগ সদস্য নীল দলের। শিক্ষক প্রতিনিধিদের ৩৫ জনের মধ্যে ৩৩ জন অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিকের সময়ে নির্বাচিত। বাকি দুই জন বিএনপি-জামায়াতপন্থি সাদা দল থেকে নির্বাচিত।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সিনেট (শিক্ষক প্রতিনিধি) সদস্য বাংলানিউজকে জানান, বর্তমানে নীল দলের মধ্যে কোনো বিভক্তি নেই। প্রধানমন্ত্রী বর্তমান উপাচার্যকে নিয়োগ দিয়েছেন। যার কারণে আমাদের সমর্থন থাকবে। প্যানেলের দুই সদস্য নিয়ে আমরা ব্যক্তিগতভাবে মতামত দেবো।

একাধিক সিনেট সদস্যের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনে মূল ভূমিকা রাখবেন শিক্ষক প্রতিনিধি ও রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটরা। বিরোধী পক্ষ থাকলে কার পক্ষে ভোট দিতে হবে তা সরকারের পক্ষ থেকে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এবার প্রায় সবাই নীল দলের হওয়ায় সেরকম কিছুই থাকছে না। তবু সিনেট অধিবেশনে যেন ঐকমত্যের ভিত্তিতে একটি প্যানেল উত্থাপিত হয়, সেজন্য নীল দল মূল অধিবেশনে বসার আগেই প্যানেল চূড়ান্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সূত্র জানায়, সোমবার (২৯ জুলাই) রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েটদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট, সিন্ডিকেট সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাহালুল মজনুন চুন্নু। আর মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সিনেট ভবনে নীল দলের শিক্ষক, রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট সবাইকে নিয়ে সর্বশেষ সভা হবে। সেখানে প্যানেল উত্থাপন করা হবে। মতৈক্য না হলে ব্যক্তি পর্যায়ে ভোটাভুটি হবে। তবে নীল দল থেকে যেন দু’টি প্যানেল না আসে সেজন্য মঙ্গলবারের সভায় তিনজনের নাম চূড়ান্ত করা হবে। সেখানে উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সামাদের বিষয়ে সবাই মতামত দিলেও তৃতীয় ব্যক্তি হিসেবে অধ্যাপক নাসরীন আহমাদ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক মাকসুদ কামাল, জবি উপাচার্য অধ্যাপক মীজানুর রহমানের নাম আলোচনায় আসবে। তখন ভোটের মাধ্যমে তৃতীয় জন নির্ধারিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন নীল দল সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে এ সংক্রান্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের বিশেষ অধিবেশন ৩১ জুলাই (বুধবার) বেলা ৩.৩০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ, ১৯৭৩ এর আর্টিক্যাল ২১ (২) ধারায় অর্পিত ক্ষমতাবলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সিনেটের এই বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করেছেন। সিনেটের এই বিশেষ অধিবেশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আদেশ, ১৯৭৩ এর আর্টিক্যাল ১১(১) ধারা অনুযায়ী চ্যান্সেলর কর্তৃক ভাইস-চ্যান্সেলর নিয়োগের জন্য তিন জনের একটি প্যানেল মনোনয়ন করা হবে। অধিবেশনে সভাপতিত্ব করবেন সিনেটের চেয়ারম্যান ও উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।’

বাংলাদেশ সময়: ২০২১ ঘণ্টা, জুলাই ২৯, ২০১৯
এসকেবি/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-29 20:37:42