ঢাকা, সোমবার, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯
bangla news

বিএসএমএমইউর ৫৩ শিক্ষক-চিকিৎসককে গবেষণা অনুদান 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৫ ৫:৪৭:১৪ পিএম
শিক্ষক ও চিকিৎসকদের হাতে অনুদান তুলে দেওয়া হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজ

শিক্ষক ও চিকিৎসকদের হাতে অনুদান তুলে দেওয়া হচ্ছে। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা বিষয়ক গবেষণার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ৪৫ শিক্ষক, এক কনসালটেন্ট, সাত মেডিক্যাল অফিসারসহ মোট ৫৩ শিক্ষক ও চিকিৎসককে অনুদান দেওয়া হয়েছে। 

শনিবার (২৫ মে) বিএসএমএমইউর উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার তার কার্যালয়ে শিক্ষক ও চিকিৎসকদের হাতে এ অনুদান তুলে দেন।

অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গবেষণায় অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়েছেন। মৌলিক ও চিকিৎসা বিষয়ক গবেষণায় তার বিশেষ নজর রয়েছে। সেদিকে খেয়াল রেখে ও জনগণের স্বার্থের কথা চিন্তা করে কল্যাণধর্মী গবেষণায় অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। গবেষণা সম্পর্কে সবাইকে জানাতে হবে, যেন মানুষ এ বিষয়ে সচেতন হয় ও সংশ্লিষ্টরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারেন। 

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলমসহ অন্য চিকিৎসক ও শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, শনিবার (২৫ মে) উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সি ব্লকে যান ও হাসপাতালের অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন। অগ্নিকাণ্ড ঘটলে রোগী, চিকিৎসক, নার্সসহ সংশ্লিষ্টরা যেন নিরাপদে বের হতে পারেন, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ভবনের সিঁড়ি যেন চলাচলের উপযোগী থাকে, সে জন্য দ্রুত সংস্কারসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া। এছাড়া, সব জায়গায় প্রয়োজনীয় অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র রাখার ওপর গুরুত্ব দেন তিনি। অগ্নিকাণ্ড ঘটলে যেন দ্রুততম সময়ে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশ করতে পারে, সে বিষয়ে নির্দেশ দিয়েছেন উপাচার্য, এ সংক্রান্ত কার্যক্রমও শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম, রেজিস্টার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ, পরিচালক (হাসপাতাল) বিগ্রেডিয়ার জেনারেল এ কে মাহাবুবুল হক, প্রধান প্রকৌশলী এ কে এম হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০১৯
এমএএম/একে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-25 17:47:14