ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২২ মে ২০১৯
bangla news

গাইড পড়ানো বা কোচিংয়ে বাধ্য করা শিক্ষকের কাজ নয় 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৫ ৪:৩২:২১ পিএম
বক্তব্য রাখছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি: বাংলানিউজ

বক্তব্য রাখছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। ছবি: বাংলানিউজ

শরীয়তপুর: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, গাইড বই পড়ানো বা কোচিংয়ে বাধ্য করা কোনো শিক্ষকের কাজ হতে পারে না। 

শুক্রবার (১৫ মার্চ) দুপুরে শরীয়তপুর সরকারি কলেজের ৪০ বছর পূর্তি ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।  

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কিছু অসাধু শিক্ষকের নোট ও গাইড বই প্রস্তুতকারী ছাপাখানার সঙ্গে যোগসাজশ রয়েছে। তাদের কাছ থেকে কমিশন নিয়ে পছন্দের নোট ও গাইড বই ছাত্র-ছাত্রীদের কিনতে উৎসাহিত করছে তারা। এছাড়া শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট কোচিংয়ে আসতে বাধ্য করছে অনেক শিক্ষক। কোনো শিক্ষার্থীকে গাইড বই পড়তে উৎসাহিত করা, প্রাইভেট কোচিংয়ে আসতে বাধ্য করা এবং কোচিংয়ে না এলে তাদের ফেল করানো শিক্ষকের কাজ হতে পারে না। শিক্ষকতা একটি মহান পেশা। শিক্ষকদের মর্যাদা তাদের নিজেদেরই ধরে রাখতে হবে। 

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ১০ বছরে শিক্ষাখাতে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে বাংলাদেশ। এ অর্জন ধরে রেখে শিক্ষার মান আরও উন্নত করতে হবে। শিক্ষার্থীদের শুধু ভালো ফলাফল করলেই হবে না। তাদের নৈতিকতা, মানবতা, দেশপ্রেম, সততা ও নিষ্ঠা শেখাতে হবে। শিক্ষকদের কাছ থেকেই শিক্ষার্থীরা সঠিক শিক্ষা পেয়ে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠবে।  

কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, শরীয়তপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ইকবাল হোসেন অপু ও আওয়ামী যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল।

এসময় জেলা প্রশাসক (ডিসি) কাজী আবু তাহের, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ছাবেদুর রহমান সিকদার, জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) আব্দুল মোমেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুর রব মুন্সী, শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাশেম তপাদার ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০১৯
এসআরএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-03-15 16:32:21